মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ: ড. সায়েম 
jugantor
মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ: ড. সায়েম 

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৪ জুন ২০২২, ২২:১১:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

অর্থনীতিবিদ ও জাকের পার্টির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ড. সায়েম আমীর ফয়সল বলেছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা এ অর্থবছরের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

জাকের পার্টির বনানী কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পর্যালোচনায় তিনি মঙ্গলবার দুপুরে এ কথা বলেন।

একইসঙ্গে বাজেটের সফল বাস্তবায়নে সুষম বণ্টন ও গুণগত ব্যয় নিশ্চিত করতে অর্থনৈতিক অঙ্গরাজ্য গঠনের প্রস্তাবও তুলে ধরেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শামীম হায়দার, রাজনৈতিক উপদেষ্টা এজাজুর রসুল প্রমুখ।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে তিনি ব্যাংকের প্রকৃত সুদের হার তিন শতাংশ বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে ড. সায়েম বলেন, বাজেটে মূল্যস্ফীতির টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে পাঁচ দশমিক ছয় শতাংশ, যা আমার দৃষ্টিতে অবাস্তব। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে মজুতদারদের সিন্ডিকেটগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

ড. সায়েম বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী প্রতি জেলা গড়ে বরাদ্দ পায় প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা। প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ না করলে জনসাধারণকে মূল অর্থনৈতিক স্রোতধারায় অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হবে না। দেশে শিক্ষিত বেকারত্বের হার প্রায় ৪২ শতাংশ। কাজেই কর্মসংস্থানমুখী শিক্ষার ব্যাপক সম্প্রসারণ ঘটাতে হবে।

এ সময় পদ্মা সেতুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাকের পার্টির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান তিনি।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ: ড. সায়েম 

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৪ জুন ২০২২, ১০:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অর্থনীতিবিদ ও জাকের পার্টির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ড. সায়েম আমীর ফয়সল বলেছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা এ অর্থবছরের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। 

জাকের পার্টির বনানী কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পর্যালোচনায় তিনি মঙ্গলবার দুপুরে এ কথা বলেন। 

একইসঙ্গে বাজেটের সফল বাস্তবায়নে সুষম বণ্টন ও গুণগত ব্যয় নিশ্চিত করতে অর্থনৈতিক অঙ্গরাজ্য গঠনের প্রস্তাবও তুলে ধরেন তিনি। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাকের পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শামীম হায়দার, রাজনৈতিক উপদেষ্টা এজাজুর রসুল প্রমুখ। 

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে তিনি ব্যাংকের প্রকৃত সুদের হার তিন শতাংশ বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়ে ড. সায়েম বলেন, বাজেটে মূল্যস্ফীতির টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে পাঁচ দশমিক ছয় শতাংশ, যা আমার দৃষ্টিতে অবাস্তব। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে মজুতদারদের সিন্ডিকেটগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। 

ড. সায়েম বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী প্রতি জেলা গড়ে বরাদ্দ পায় প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা। প্রশাসন বিকেন্দ্রীকরণ না করলে জনসাধারণকে মূল অর্থনৈতিক স্রোতধারায় অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হবে না। দেশে শিক্ষিত বেকারত্বের হার প্রায় ৪২ শতাংশ। কাজেই কর্মসংস্থানমুখী শিক্ষার ব্যাপক সম্প্রসারণ ঘটাতে হবে। 

এ সময় পদ্মা সেতুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাকের পার্টির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন