পরিকল্পনামন্ত্রীর ‘কচুরিপানা ইস্যুতে’ যা বললেন আসিফ নজরুল

  যুগান্তর ডেস্ক ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০২:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রীর ‘কচুরিপানা ইস্যুতে’ যা বললেন আসিফ নজরুল

গরু কচুরিপানা খেতে পারলে মানুষ কেন পারবে না! এমন হাস্যরসপূর্ণ কথা বলেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

সোমবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে একটি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী জাতীয় ফল কাঁঠালের পাশাপাশি কচুরিপানা নিয়েও গবেষণা করতে কৃষি গবেষকদের আহ্বান জানান।

এসময় পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘কচুরিপানা নিয়ে কিছু করা যায় কিনা, কচুরিপানার পাতা খাওয়া যায় না কোনোমতে? গরু তো খায়। গরু খেতে পারলে আমরা খেতে পারব না কেন?’

তার কথা শুনে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই হেসে ফেলেন। পরে মন্ত্রী হাসতে হাসতে বলেন, ‘এমনি একটা কথা বললাম।’

তার ওই বক্তব্য পরে দেশব্যাপী সমালোচিত হয় ও ইস্যুতে পরিণত হয়।

পরিকল্পনামন্ত্রীর এ বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে বক্তব্য দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

নিজের ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

আসিফ নজরুলের দেয়া স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

‘গরু, কচুরীপানা, মন্ত্রী

পরিকল্পনা মন্ত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, গরু কচুরিপানা খেতে পারলে মানুষ কেন পারে না?

আমার উত্তর হচ্ছে: গরু তো উদাম থাকে, আপনি কি তেমন থাকেন? থাকেন না!

গরু মাঠেঘাটে পেশাব পায়খানা করে, আপনি করেন? করেন না!

গরু ঘাস খায়, আপনি কি তা খান? না!

গরু গোবর ত্যাগ করে, আপনি কি তা করেন? না!

সবগুলোর উত্তর হবে না। কারণ আপনি গরু না। গরু কচুরিপানা খেলে তাই আপনাকে তা খেতে হবে না।

পরিকল্পনা মন্ত্রী, তারপরও যদি আপনার মনে হয় গরু পারে বলে মানুষেরও কচুরিপানা খাওয়া উচিত তা হলে আপনি টিভিতে লাইভে আসেন একদিন। গপগপ করে কিছু কচুরিপানা খেয়ে দেখান। তারপর না হয় আমাদেরকে এসব কথা বলেন।’

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৪৮ ১৫
বিশ্ব ৬,২২,১৫৭১,৩৭,৩৬৪২৮,৭৯৯
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×