যমুনা ফিউচার পার্ক না খোলার সিদ্ধান্তে প্রশংসার ঝড়

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৭ মে ২০২০, ২১:৩১:৪৬ | অনলাইন সংস্করণ

যমুনা ফিউচার পার্ক। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারের পক্ষ থেকে মার্কেট ও শপিংমল খোলার অনুমতি দিলেও জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় খুলছে না যমুনা ফিউচার পার্ক।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকায় যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম এশিয়ার বৃহত্তম এ শপিংমলটি না খোলার সিদ্ধান্ত নেন। এ সিদ্ধান্তের কারণে ভার্চুয়াল জগতসহ সর্বত্রই প্রশংসার জোয়ারে ভাসছে যমুনা গ্রুপ।

যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে সিলেট জজকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইমরান আহমেদ চৌধুরী তার ফেসবুক কমেন্টে লেখেন, সরকার হঠকারী সিদ্ধান্ত নিলেও নাগরিক হিসেবে তারা সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ফেসবুকে ইমরুল কবির নামের একজন লেখেন, এমন শুভ চিন্তা আরও দেখতে চাই।

আবুল কাশেম নামের একজন লেখেন, জীবনের থেকে ঈদের নতুন জামা বড় নয় | মার্কেট খোলা থাকুক আমরা না গেলেই তো হয় | বেঁচে থাকলে অনেক সুযোগ আসবে নতুন জামা পড়ার। তাই ঘরে থাকুন নিজ ও পরিবারকে নিরাপদ রাখুন।

শিহাব চৌধুরী নামের একজন লেখেন, বেঁচে না থাকলে এই ব্যবসা দিয়ে কী হবে? তাই সামনের এই কঠিন সময়ের মাঝে শপিংমলগুলো বন্ধ থাকলে বেঁচে যাবে দেশের মানুষ। আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন।

রাবেয়া আক্তার নামের একজন লেখেন, ধন্যবাদ যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষকে। করোনাকে মহামারী নিয়ে বিবেকের তাড়নায় পুড়তে হবে না আপনাদেরকে। চমৎকার সিদ্ধান্ত।

ইউএস বাংলা এয়ারইলান্সের কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন, সম‌য়োপ‌যোগী এবং যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত , ধন্যবাদ নয় দোয়া রইল তা‌দের এ মহান ত্যা‌গের জন্য, দেশের পরিস্থিতি যে অবস্থা দিন দিন করোনাভাইরাস নতুন রেকর্ড হচ্ছে। এ অবস্থায় আমি মনে করি মার্কেট দোকানপাট খুললে দেশের অবস্থা কী হবে একমাত্র আল্লাহ তায়ালাই জানেন।

একটি মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির প্রোডাকশন অ্যান্ড প্ল্যানিং অফিসার সাইফুল ইসলাম লেখেন, সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের সবচেয়ে বড় শপিং মল যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষ। আশা করি অন্য শপিংমল কর্তৃপক্ষও দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে তাদের থেকে শিক্ষা নেবে।

বরিশালের জাকিয়া নামের এক আইনজীবী ফেসবুক কমেন্টে লেখেন, সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়ায় যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। ১০ থেকে ১৫ দিন পরে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ, তখন তো বন্ধ করতে হবে তার চেয়ে আগেই বন্ধ রাখা ভালো। সবাই চাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসুক। ইনশাআল্লাহ আল্লাহ সবাইকে হেফাজত রাখবেন।

আবদুর রহিম অভি নামের একজন ফেসবুক কমেন্টে লেখেন, যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষে সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি। বেঁচে থাকলে এবং পরিস্থিতি ভালো হলে প্রথম কেনাকাটা আপনাদের ওইখানেই করবো ইনশাল্লাহ।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত