‘গণতন্ত্রের হুমকি ফেসবুক’
jugantor
‘গণতন্ত্রের হুমকি ফেসবুক’

  যুগান্তর ডেস্ক  

১০ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৮:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

ফেসবুক

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বিভাজন সৃষ্টি, শিশুদের ক্ষতি করা, নিরাপত্তার চেয়ে লাভের দিকে বেশি নজর দেওয়া ও গুজব ছড়ানোসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

এবার ফেসবুককে গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ বলে অভিযোগ করেছেন নোবেলজয়ী সাংবাদিক মারিয়া রেসা। এছাড়া ফেসবুকের বিরুদ্ধে ভুয়া খবর ও গুজবকে প্রাধান্য দেওয়ারও অভিযোগ তুলেছেন তিনি। ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাক স্বাধীনতা রক্ষার জন্য লড়াই করে দিমিত্রি মুরাতভের সঙ্গে এ বছর যৌথভাবে নোবেল শান্তি পুরস্কার জিতেছেন সাংবাদিক মারিয়া রেসা। পুরস্কার ঘোষণার পর শনিবার একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়ে ফেসবুকের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে রেসা বলেন, ফেসবুক গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ। বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যটি ঘৃণা, ভুয়া তথ্য ও গুজব ছড়ানো রুখতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। ফেসবুক তথ্য নিয়ে একেবারেই নিরপেক্ষ নয় বলে অনেকবার প্রমাণ পাওয়া গেছে। নিরপেক্ষতার চেয়ে ঘৃণা, ক্ষোভ এবং মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর উপরই বেশি গুরুত্ব দেয় জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি।

ফেসবুকের সিভিক মিসইনফরমেশন টিমের সাবেক প্রোডাক্ট ম্যানেজার ফ্রান্সেস হিউগেনও সম্প্রতি ফেসবুক নিয়ে বিভিন্ন চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করেছেন। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ফেসবুক মানুষের চেয়ে মুনাফার দিকে বেশি গুরুত্ব দেয়।

ফেসবুকের এহেন কর্মকাণ্ডে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন টাইম তাদের সর্বশেষ প্রচ্ছদেও ফেসবুকের এই বিষয়টি সামনে এনেছেন। ওই প্রচ্ছদে দেখা গেছে জাকারবার্গের মুখের ওপর একটি ‘ডিলিট ফেসবুক’ লেখা আইকন। আইকনের নিচে রয়েছে দুটি অপশন- ‘ক্যান্সেল’ আর ‘ডিলিট’।

অবশ্য মারিয়া রেসার এসব অভিযোগ নাচক করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বলেছেন, আমরা সংবাদমাধ্যেমের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সংবাদসংস্থা এবং সাংবাদিকদের গুরুত্বপূর্ণ কাজকে আমরা সমর্থন করি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ভুয়া খবর ও বিদ্বেষমূলক পোস্ট সরাতে ফেসবুক ক্রমাগত চেষ্টা করে যাচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

‘গণতন্ত্রের হুমকি ফেসবুক’

 যুগান্তর ডেস্ক 
১০ অক্টোবর ২০২১, ০৭:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফেসবুক
ছবি : প্রতীকী

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বিরুদ্ধে সম্প্রতি বিভাজন সৃষ্টি, শিশুদের ক্ষতি করা, নিরাপত্তার চেয়ে লাভের দিকে বেশি নজর দেওয়া ও গুজব ছড়ানোসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

এবার ফেসবুককে গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ বলে অভিযোগ করেছেন নোবেলজয়ী সাংবাদিক মারিয়া রেসা।  এছাড়া ফেসবুকের বিরুদ্ধে ভুয়া খবর ও গুজবকে প্রাধান্য দেওয়ারও অভিযোগ তুলেছেন তিনি।  ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান  এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাক স্বাধীনতা রক্ষার জন্য লড়াই করে দিমিত্রি মুরাতভের সঙ্গে এ বছর যৌথভাবে নোবেল শান্তি পুরস্কার জিতেছেন সাংবাদিক মারিয়া রেসা। পুরস্কার ঘোষণার পর শনিবার একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়ে ফেসবুকের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করেন তিনি। 

সংবাদ সম্মেলনে রেসা বলেন, ফেসবুক গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ। বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যটি ঘৃণা, ভুয়া তথ্য ও গুজব ছড়ানো রুখতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। ফেসবুক তথ্য নিয়ে একেবারেই নিরপেক্ষ নয় বলে অনেকবার প্রমাণ পাওয়া গেছে। নিরপেক্ষতার চেয়ে ঘৃণা, ক্ষোভ এবং মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর উপরই বেশি গুরুত্ব দেয় জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি।

ফেসবুকের সিভিক মিসইনফরমেশন টিমের সাবেক প্রোডাক্ট ম্যানেজার ফ্রান্সেস হিউগেনও সম্প্রতি ফেসবুক নিয়ে বিভিন্ন চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করেছেন।  সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ফেসবুক মানুষের চেয়ে মুনাফার দিকে বেশি গুরুত্ব দেয়।

ফেসবুকের এহেন কর্মকাণ্ডে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন টাইম তাদের সর্বশেষ প্রচ্ছদেও ফেসবুকের এই বিষয়টি সামনে এনেছেন। ওই প্রচ্ছদে দেখা গেছে  জাকারবার্গের মুখের ওপর একটি ‘ডিলিট ফেসবুক’ লেখা আইকন। আইকনের নিচে রয়েছে দুটি অপশন- ‘ক্যান্সেল’ আর ‘ডিলিট’।

অবশ্য মারিয়া রেসার এসব অভিযোগ নাচক করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে ফেসবুকের একজন মুখপাত্র বলেছেন,  আমরা সংবাদমাধ্যেমের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সংবাদসংস্থা এবং সাংবাদিকদের গুরুত্বপূর্ণ কাজকে আমরা সমর্থন করি। 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ভুয়া খবর ও বিদ্বেষমূলক পোস্ট সরাতে ফেসবুক ক্রমাগত চেষ্টা করে যাচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন