ইমরুল যেভাবে ‘পটু’ হলেন

  স্পোর্টস রিপোর্টার ২১ অক্টোবর ২০১৮, ২৩:৩১ | অনলাইন সংস্করণ

ইমরুল কায়েস

২০১৬ সালের আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদে খেলার সময় কোচ টম মুডি মজা করেই মোস্তাফিজুর রহমানকে ‘ফিজ’ নামে ডাকতেন। এরপর থেকে সেই ফিজ নামেই পরিচিতি লাভ করেন কাটার মাস্টার।

তার আসল নাম মোস্তাফিজুর রহমান হলেও ক্রিকেট পাড়ায় তাকে ফিজ নামেই অনেকে ডাকেন।

মোস্তাফিজের মতো এমন অনেক ক্রিকেটার আছেন, যারা ডাক নামেই বেশ পরিচিত। ঠিক তেমনি ইমরুল কায়েসেরও ক্রিকেট পাড়ায় একটা নাম আছে।

তাকে অনেকেই ‘পটু’ নামে ডাকেন। তবে কিভাবে এই ‘পটু’ নামের প্রচলন হলো তা নিজেও জানেন না ইমরুল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রোববার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়ানডে ক্যারিয়ার সেরা ১৪৪ রানের ইনিংস খেলার পর ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে আসেন ইমরুল কায়েস।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতা এই ওপেনারকে সংবাদ সম্মেলনে দল থেকে বাদ পড়া নিয়েই বেশি প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়।

তবে সবচেয়ে মজার প্রশ্ন ছিল ইমরুলকে কেন ‘পটু’ নামে ডাকা হয়?

এমন প্রশ্নের জবাবে কায়েস বলেন, ‘ঢাকা লিগে ভিক্টোরিয়া দলে শাহীন নামে একটা লেগ স্পিনার ছিল। তাকে আমি মজা করেই ‘পটু’নামে ডাকতাম। সেটা কিভাবে কনভার্ট হয়ে আমার নাম হলো তা আমি নিজেও জানি না।’

নামে ‘পটু’ হলেও কথায় ততোটা পটু নন কায়েস। বেশি কথা বলার চেয়ে নিজের ক্যারিয়ার নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হয় তাকে। তার কারণ ২০০৮ সালের অক্টোবরে জাতীয় দলে অভিষেকের পর ১০ বছর কেটে গেছে কায়েসের। এই লম্বা সময়ে জাতীয় দলে আসা-যাওয়ার মধ্যেই ছিলেন তিনি।

বাজে ফর্মের কারণে দল থেকে বাদ পড়েছেন। তবে হতাশ হননি। বারবার দলে আসা-যাওয়া নিয়ে জাতীয় দলের এ ওপেনার বলেন, ‘আসলে টিম ম্যানেজমেন্ট যখন মনে করেছে আমার চেয়ে অন্যরা বেটার, তখন তারা তাদের নিয়েছেন। হয়ত তারা সুযোগ পেয়ে ভালো করেছে। তবে আমি হতাশ হইনি। আমি মুশফিকুর রহিমকে দেখে অনেক শিখেছি, উনি কষ্ট করে মুশফিক হয়েছেন। আমিও সেই কষ্ট করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই।’

জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট এবং ওয়ানডে মিলে ৬টি সেঞ্চুরি করা ইমরুল আরও বলেন, ‘আমার সঙ্গে অনেক প্লেয়ারের অভিষেক হয়েছে। আমি সব সময় বিশ্বাস করি, দেশকে এখনও আমার অনেক কিছু দেয়ার আছে। তবে যে সময় জাতীয় দলে খেলার সুযোগ থাকবে না, তখন আমি নিজেই ধন্যবাদ বলে দেব।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter