এখনই ক্যারিয়ারের শেষ দেখছি না: আব্দুর রাজ্জাক

  আল-মামুন ৩০ অক্টোবর ২০১৮, ২৩:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

আব্দুর রাজ্জাক
আব্দুর রাজ্জাক

বিপিএল সিজন সিক্সের নিলাম হয়ে গেল গত রোববার। দেশি-বিদেশি তারকা ক্রিকেটারসহ উদীয়মান কিছু খেলোয়াড় সুযোগ পেয়েছে আসন্ন আসরে।

তবে বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে দল পাননি অভিজ্ঞ আব্দুর রাজ্জাকসহ বেশ কিছু ক্রিকেটার। ওয়ানডে ক্রিকেটে মাশরাফি বিন মুর্তজা এবং সাকিব আল হাসানের পর বাংলাদেশের তৃতীয় সেরা বোলার রাজ্জাক।

একটা সময়ে জাতীয় দলে অটোমেটিক চয়েজ ছিলেন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটের প্রতিষ্ঠিত নাম রাজ্জাক। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৫৪২ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ চূড়ায় আছেন ৩৬ বছর বয়সী এই বাঁ-হাতি স্পিনার।

বিপিএলের গত পাঁচ আসরে দাপটের সঙ্গে পারফর্ম করে যাওয়া অভিজ্ঞ এই বোলার এবারের আসরে দল পাননি। বিপিএলে দল না পাওয়াসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে যুগান্তরের সঙ্গে কথা বলেন। তার সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন আল-মামুন

যুগান্তর: বিপিএলে দল না পেয়ে নিশ্চয়ই হতাশ?

রাজ্জাক: আসলে এ বিষয়ে কথা বলাটাও আমার জন্য লজ্জাজনক। তাই এই বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। এ পর্যায়ে এসে দল পাওয়া না পাওয়া নিয়ে বলতে চাই না। আমাকে হয়তো প্রয়োজন হচ্ছে না বা পছন্দ হচ্ছে না। যারা টিম করবে বা যারা টিম চালাবে বা ম্যানেজমেন্ট মনে করেছে আমাকে দিয়ে হবে না তাই হয়তো নেয়নি। দল না পেলে তো অবশ্যই খারাপ লাগবেই।

যুগান্তর: দেশি ক্রিকেটারদের জন্য বলতে গেলে বিপিএলই রুটি-রুজির মাধ্যম। সেই দিক বিবেচনায় আপনি কি মনে করেন ক্রিকেট বোর্ডের আরও বেশি দায়িত্বশীল হওয়া উচিত?

রাজ্জাক: আসলে এখানে আমি কারও দোষ দিতে চাই না। হয়ত আমারই কোনো সমস্যা আছে। তারা মনে করছে আমাকে দিয়ে হবে না। তবে আমি জানি না, আমাকে নিয়ে বোর্ডের কোনো পরিকল্পনা আছে কিনা। কেন দল পেলাম না, এসব নিয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না।

ক্রিকেট বোর্ড, ম্যানেজমেন্ট বা ফ্রাঞ্চাইজি মালিকরা হয়তো আমাদের প্রয়োজন মনে করেনি তাই নেয়নি। আমাকে তাদের দরকার হচ্ছে না, তাই নেয়নি। এখানে বাধ্যবাধকতার তো আসলে কিছু নেই।

আমি দল না পেলে, খেলতে না পারলে তো আমার কাছে অবশ্যই খারাপ লাগবে। আমি তো খেলতে চাই। দল না পাওয়ায় খারাপ তো লাগছেই। কেউ যদি না নেয়, সেহেতু বলারও তো কিছু থাকে না।

যুগান্তর: চার বছর পর গত ফেব্রুয়ারিতে জাতীয় দলে ফিরে শ্রীলংকার বিপক্ষে অসাধারণ বোলিং করেছেন, তখন বলেছেন আগের চেয়ে নিজেকে আরও বেশি পরিণত মনে হচ্ছে। এখনকার উইকেটও ভালো, উইকেট পাওয়া সহজ। এই ভালো খেলার পরও দল থেকে বাদ পড়ে যাওয়া...

রাজ্জাক: এগুলো তো ভাই আমার হাতে নেই। আমার হাতে থাকলে আমি মন্তব্য করতে পারতাম। বোর্ডের নিশ্চয়ই পরিকল্পনা আছে, তারা সেই মোতাবেক এগোচ্ছে। আমি তো আসলে জানিও না কী হচ্ছে? এসব নিয়ে মন্তব্য করা আমার ঠিক হবে না। আমি চেষ্টা করি ভালো খেলার। যতদিন খেলেছি- চেষ্টা করেছি নিজের সেরাটা দেয়ার।

যুগান্তর: সিনিয়র ক্রিকেটাররা অনেক সময় কাউকে নেয়ার জন্য রিকোয়েস্ট করে বা নিলামের পরও দল পাওয়ার রেওয়াজ আছে?

রাজ্জাক: আমি ভাই বলতে পারি না। মাত্রই তো নিলাম শেষ হলো, দল পাব না, আমি এটা চিন্তা করি নাই। কোনো দলে নেই, এখন আর কী চিন্তা করব। আমার পুরো ক্যারিয়ারে কখনও এমন হয়নি। আমি বুঝতে পারছি না, কী চিন্তা করা উচিত আর কী বলা উচিত। সবশেষ ৫টা বিপিএলে ছিলাম। অথচ এখন নেই।

যুগান্তর: ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের ঘোষিত টি-টোয়েন্টি দলে সুযোগ পাননি মহেন্দ্র সিং ধোনি। এই বাদ পড়াকে অনেকেই ধোনির ক্যারিয়ারের শেষ দেখছেন। সেদিক থেকে বললে আপনিও কি ক্যারিয়ারের শেষ দেখছেন?

রাজ্জাক: ভাই...। শেষ আমার যখন মনে হবে তখনই ক্যারিয়ার শেষ করব। দলে নেয়া না নেয়া টিমের ব্যাপার বা ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার। এসব নিয়ে কাউকে দোষ দিয়ে লাভ নেই। আমি আমার চেষ্টা করে যাব।

যুগান্তর: ক্রিকেট থেকে বিদায় নেয়ার পর আপনার পরিকল্পনা কী?

রাজ্জাক: না, আসলে এখনও বলতে পারি না।

যুগান্তর: আপনার পরিবার থেকে কাউকে ক্রিকেটে ক্যারিয়ার গড়তে পরামর্শ দেবেন?

রাজ্জাক: আমি কাউকে প্রেসার করব না। জোর করে কাউকে ক্রিকেটার বানাতে চাইব না। তবে কেউ হতে চাইলে অবশ্যই চেষ্টা কবর হেল্প করতে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×