ঘণ্টা বাজানো নিয়ে বেজায় চটেছেন গম্ভীর

  স্পোর্টস ডেস্ক ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৫:৫০ | অনলাইন সংস্করণ

ঘণ্টা,
‘দ্য ফাইভ মিনিটস বেল’খ্যাত ঘণ্টা বাজিয়ে সিলেট স্টেডিয়ামের টেস্ট অভিষেক ঘোষণা করেন বাংলাদেশ সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান। ছবি সংগৃহীত

দেশের অষ্টম এবং বিশ্বের ১১৬তম ভেন্যু হিসেবে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ফুটেছে টেস্ট 'ফুল'। জাঁকজমকপূর্ণ আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে এ মাঠে গড়ায় বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে খেলা। ঐতিহাসিক প্রথা মেনে ‘দ্য ফাইভ মিনিটস বেল’খ্যাত ঘণ্টা বাজিয়ে উদ্বোধন ঘোষণা করেন বাংলাদেশ সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান।

এবার সেই ঘণ্টা বাজানো নিয়েই খেপে গেলেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। তবে আকরাম খানের নয়, ভারতীয় সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের 'বেল’ বাজানো নিয়ে।

একই দিনে অর্থাৎ গেল রোববার ইডেন গার্ডেনসে গড়ায় ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ৩ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ। রীতি মেনে মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন ঘণ্টা বাজালে শুরু হয় খেলা। তাতেই খ্যাপা গম্ভীর। অবশ্য ঘণ্টা বাজানো নিয়ে নয়, যিনি বাজিয়েছেন তাকে নিয়ে। কারণ, সাবেক ভারতীয় অধিনায়কের বিরুদ্ধে রয়েছে স্পট ফিক্সিং অভিযোগ।

সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন গম্ভীর। ক্যাপশনে ভারতের সাবেক ওপেনার লিখেছেন, ইডেনে ভারত জিতেছে। এটি অবশ্যই ভালো ব্যাপার। তবে দুঃখের বিষয়, বিসিসিআই, সিওএ এবং সিএবি হেরে গেছে। এ তিন সংস্থার কাজ হচ্ছে ক্রিকেট থেকে দূর্নীতি নির্মূল করা। অথচ মাঠে খেলা গড়াতে ম্যাচ পাতানোর দায়ে অভিযুক্ত খেলোয়াড়কে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। আমি খুব অবাক হয়েছি।

গম্ভীর লেখেন, হায়দরাবাদ ক্রিকেট সংস্থার নির্বাচনে আজহারকে দাঁড়ানোর অনুমতি দেয়া হয়েছে। এর ওপর ইডেনে তার ঘণ্টা বাজানোর ঘটনা স্তম্ভিত করেছে। আশা করি, ক্ষমতাসীনরা এ ঘণ্টার আওয়াজ শুনেছেন।

বেটিংয়ের দায়ে ২০০০ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হন আজহার। ২০১২ সালে নিষেধাজ্ঞামুক্ত হন তিনি। এর পর থেকে ফের ক্রিকেটাঙ্গনে তার ‘বিতর্কিত’ আনাগোনা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×