ওয়ানডেতে সিরিজ সেরা ইমরুল, টেস্টে তাইজুল
jugantor
ওয়ানডেতে সিরিজ সেরা ইমরুল, টেস্টে তাইজুল

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৪৭:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ইমরুল কায়েস-তাইজুল ইসলাম
ইমরুল কায়েস-তাইজুল ইসলাম

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে দাপুটে ব্যাটিং করেছেন ইমরুল কায়েস। তিন ম্যাচ সিরিজে ১৪৪, ৯০ ও ১১৫ রানের ইনিংস খেলে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন তিনি। তবে ওয়ানডে সিরিজে ধারাবাহিক খেলে যাওয়া কায়েস, টেস্ট সিরিজে প্রত্যাশিত ব্যাটিং করতে পারেননি। দুই টেস্টের চার ইনিংসে তার সংগ্রহ মাত্র ৫১ রান। আর এই ধারাবাহিকতার অভাবেই তাকে বার বার দল থেকে বাদ পড়তে হয়েছে।

তবে টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত খেলেছেন তাইজুল ইসলাম ও মুশফিকুর রহিম। বল হাতে দুই টেস্টে ১৮ উইকেট শিকার করেছেন তাইজুল। সিলেটের ঐতিহাসিক অভিষেক টেস্টের দুই ইনিংসে ৬ ও ৫ উইকেট নেয়ার পর ঢাকা টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন তাইজুল।

টানা তিন ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে সাকিব আল হাসান ও এনামুল হক জুনিয়রকে স্পর্শ করেন তাইজুল। ঢাকা টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করলে বিশ্ব রেকর্ডের মালিক হতেন তাইজুল।

তবে বুধবার ১ উইকেট নেয়া তাইজুল বৃহস্পতিবার শেষ দিনে নেন মাত্র এক উইকেট। এতে করে দুই টেস্টে ১৮ উইকেট শিকার করে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন বাংলাদেশ দলের এই বাঁ-হাতি স্পিনার। দুই টেস্টে ১১ উইকেট শিকার করে দুই দলের বোলারদের মধ্যে দ্বিতীয় মেহেদী হাসান মিরাজ।

টেস্ট সিরিজে দাপুটে ব্যাটিং করেছেন মুশফিকুর রহিম। ঢাকা টেস্টে তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল (২১৯) সেঞ্চুরি। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে এই ডাবল সেঞ্চুরি করার মধ্য দিয়ে ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং শ্রীলংকার কিংবদন্তি ক্রিকেটার কুমার সাঙ্গাকারাকে ছাড়িয়ে যান মুশফিক। দুই টেস্টের সিরিজে ২৭০ রান সংগ্রহ করে দুইদলের ব্যাটসম্যানের তালিকায় শীর্ষে মুশফিক। ২৪৬ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ের সাবেক অধিনায়ক ব্রান্ডন টেইলর আছেন দুইয়ে। এক সেঞ্চুরিতে ১৮২ রান সংগ্রহ করে তিনে মুমিনুল হক সৌরভ।

ওয়ানডেতে সিরিজ সেরা ইমরুল, টেস্টে তাইজুল

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০৪:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইমরুল কায়েস-তাইজুল ইসলাম
ইমরুল কায়েস-তাইজুল ইসলাম

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে দাপুটেব্যাটিং করেছেন ইমরুল কায়েস। তিন ম্যাচ সিরিজে ১৪৪, ৯০ ও ১১৫ রানের ইনিংস খেলে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন তিনি। তবে ওয়ানডে সিরিজে ধারাবাহিক খেলে যাওয়া কায়েস, টেস্ট সিরিজে প্রত্যাশিত ব্যাটিং করতেপারেননি। দুই টেস্টের চার ইনিংসে তার সংগ্রহ মাত্র ৫১ রান। আর এই ধারাবাহিকতার অভাবেই তাকে বার বার দল থেকে বাদ পড়তে হয়েছে।

তবে টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত খেলেছেন তাইজুল ইসলাম ও মুশফিকুর রহিম। বল হাতে দুই টেস্টে ১৮ উইকেট শিকার করেছেন তাইজুল। সিলেটের ঐতিহাসিক অভিষেক টেস্টের দুই ইনিংসে ৬ ও ৫ উইকেট নেয়ার পর ঢাকা টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেন তাইজুল।

টানা তিন ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে সাকিব আল হাসান ও এনামুল হক জুনিয়রকে স্পর্শ করেন তাইজুল। ঢাকা টেস্টের চতুর্থ ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করলে বিশ্ব রেকর্ডের মালিক হতেন তাইজুল।

তবে বুধবার ১ উইকেট নেয়া তাইজুলবৃহস্পতিবার শেষ দিনেনেন মাত্র এক উইকেট। এতে করে দুই টেস্টে ১৮ উইকেট শিকার করে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন বাংলাদেশ দলের এই বাঁ-হাতি স্পিনার। দুই টেস্টে ১১ উইকেট শিকার করে দুই দলের বোলারদের মধ্যে দ্বিতীয় মেহেদী হাসান মিরাজ।

টেস্ট সিরিজে দাপুটে ব্যাটিং করেছেন মুশফিকুর রহিম। ঢাকা টেস্টে তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল (২১৯) সেঞ্চুরি। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে এই ডাবল সেঞ্চুরি করার মধ্য দিয়ে ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং শ্রীলংকার কিংবদন্তি ক্রিকেটার কুমার সাঙ্গাকারাকে ছাড়িয়ে যান মুশফিক। দুই টেস্টের সিরিজে ২৭০ রান সংগ্রহ করে দুইদলের ব্যাটসম্যানের তালিকায় শীর্ষে মুশফিক। ২৪৬ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ের সাবেক অধিনায়ক ব্রান্ডন টেইলর আছেন দুইয়ে। এক সেঞ্চুরিতে ১৮২ রান সংগ্রহ করে তিনেমুমিনুল হক সৌরভ।

 

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ