ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন সরফরাজ
jugantor
ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন সরফরাজ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:২৩:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন সরফরাজ আহমেদ। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটার আন্দিলে ফিকোয়াওকে উদ্দেশ্য করে বর্ণবাদী ও বাজে মন্তব্য করায় তুমুল সমলোচনার মুখে পড়েছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তোপের মুখে পড়ে ক্ষমা চাইলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক।

দক্ষিণ আফ্রিকায় চলমান ৫ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাটিং করছিলেন ফিকোয়াও। একপর্যায়ে তাকে উদ্দেশ্য করে বাজে ও বণবৈষম্যমূলক মন্তব্য করেন উইকেটের পেছনে থাকা সরফরাজ। প্রোটিয়া ক্রিকেটারকে ‘কালো’ বলে কটূক্তি করেন তিনি।

এতেই ক্ষ্যান্ত হননি সরফরাজ। এরপর অযাচিতভাবে আরেকটি মন্তব্য করে বসেন তিনি। ফিকোয়াওকে উদ্দেশ্য করে পাক অধিনায়ক বলেন, তোমার মা আজ কোথায়, তিনি কী এখন তোমার জন্য প্রার্থনা করেছেন?

ক্যামেরায় স্পষ্টভাবে ধরা পড়ে সেই দৃশ্য। পরে ম্যাচটিও হেরে যায় পাকিস্তান। ম্যাচ শেষে সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে সমলোচনার ঝড় ওঠে। ক্রিকেটবিশ্বে সৃষ্টি হয় ব্যাপক শোরগোল এবং শুরু হয় হইচই। অনেকে সরফরাজের বহিস্কারের দাবি জানেন। খোদ তার নিজ দেশের সাবেক তারকা ক্রিকেটাররাও বিপক্ষে অবস্থান নেন। যে যার মতো করে তাকে ধুয়ে দেয়। একের পর এক সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হন।

তীব্র রোশানলের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন সরফরাজ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তিনি লিখেছেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কিংবা ইচ্ছে করে কাউকে এমন মন্তব্য করিনি। স্ট্যাম্প মাইকে যা শোনা গিয়েছে এবং এজন্য যারা রাগে-ক্ষোভে ফেটেছেন সবার কাছে আমি ক্ষমা চাচ্ছি। জেনেশুনে কোনো ব্যক্তিকে আঘাত করতে চাইনি। ভবিষ্যতে যেন এমনটি না হয় সেই ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন থাকব।

সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে গড়াবে আসছে শুক্রবার। এখন পর্যন্ত দুটি ম্যাচ খেলা হয়েছে। একটি জিতেছে পাকিস্তান, আরেকটি দক্ষিণ আফ্রিকা। অর্থাৎ ১-১ ব্যবধানে সমতা আছে। আগামী ম্যাচে যারা জিতবে তারাই এগিয়ে যাবে।

ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন সরফরাজ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ০২:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন সরফরাজ আহমেদ। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটার আন্দিলে ফিকোয়াওকে উদ্দেশ্য করে বর্ণবাদী ও বাজে মন্তব্য করায় তুমুল সমলোচনার মুখে পড়েছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তোপের মুখে পড়ে ক্ষমা চাইলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক।

দক্ষিণ আফ্রিকায় চলমান ৫ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ব্যাটিং করছিলেন ফিকোয়াও। একপর্যায়ে তাকে উদ্দেশ্য করে বাজে ও বণবৈষম্যমূলক মন্তব্য করেন উইকেটের পেছনে থাকা সরফরাজ। প্রোটিয়া ক্রিকেটারকে ‘কালো’ বলে কটূক্তি করেন তিনি।

এতেই ক্ষ্যান্ত হননি সরফরাজ। এরপর অযাচিতভাবে আরেকটি মন্তব্য করে বসেন তিনি। ফিকোয়াওকে উদ্দেশ্য করে পাক অধিনায়ক বলেন, তোমার মা আজ কোথায়, তিনি কী এখন তোমার জন্য প্রার্থনা করেছেন?

ক্যামেরায় স্পষ্টভাবে ধরা পড়ে সেই দৃশ্য। পরে ম্যাচটিও হেরে যায় পাকিস্তান। ম্যাচ শেষে সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে সমলোচনার ঝড় ওঠে। ক্রিকেটবিশ্বে সৃষ্টি হয় ব্যাপক শোরগোল এবং শুরু হয় হইচই। অনেকে সরফরাজের বহিস্কারের দাবি জানেন। খোদ তার নিজ দেশের সাবেক তারকা ক্রিকেটাররাও বিপক্ষে অবস্থান নেন। যে যার মতো করে তাকে ধুয়ে দেয়। একের পর এক সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হন।

তীব্র রোশানলের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন সরফরাজ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তিনি লিখেছেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কিংবা ইচ্ছে করে কাউকে এমন মন্তব্য করিনি। স্ট্যাম্প মাইকে যা শোনা গিয়েছে এবং এজন্য যারা রাগে-ক্ষোভে ফেটেছেন সবার কাছে আমি ক্ষমা চাচ্ছি। জেনেশুনে কোনো ব্যক্তিকে আঘাত করতে চাইনি। ভবিষ্যতে যেন এমনটি না হয় সেই ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন থাকব।

সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডে গড়াবে আসছে শুক্রবার। এখন পর্যন্ত দুটি ম্যাচ খেলা হয়েছে। একটি জিতেছে পাকিস্তান, আরেকটি দক্ষিণ আফ্রিকা। অর্থাৎ ১-১ ব্যবধানে সমতা আছে। আগামী ম্যাচে যারা জিতবে তারাই এগিয়ে যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন