বিশ্বকাপে ভারত না খেললে লাভবান হবে পাকিস্তান

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

ভারত,

জম্মু-কাশ্মীরে নৃশংস ‘জঙ্গি’ হামলার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। রাগে-ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা ভারত। সন্ত্রাসবাদ নির্মূলের দাবিতে সোচ্চার দেশটির আপামর জনসাধারণ। পাশাপাশি নিহত সেনাদের প্রতি শ্রদ্ধা ও তাদের পরিবারের প্রতি সমবেত সমবেদনা জানাচ্ছেন তারা।

এ ঘটনার ছাপ ফেলতে শুরু করেছে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট সম্পর্ককেও। একযোগে এ ঘৃণ্য ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সাবেক, বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটার ও সংশ্লিষ্টরা। সেই সঙ্গে নিহত সেনাদের পরিবারকে অর্থসহায়তা করার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তানি মদদপুষ্ট বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ধিক্কার জানিয়েছেন সবাই।

ইতিমধ্যে এর জেরে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও '৯২ বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক ইমরান খানসহ একাধিক ক্রিকেটারের ছবি ঢেকে দিয়েছে মুম্বাইয়ের ঐতিহ্যবাহী ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া (সিসিআই)।

মোহালি থেকেও সরিয়ে ফেলা হয়েছে শহীদ আফ্রিদি, ওয়াসিম আকরামসহ একাধিক ক্রিকেটারের ছবি। পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা আইএমজি-রিলায়েন্সও টুর্নামেন্টটির সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করেছে।

এমনকি আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ বয়কটেরও দাবি উঠেছে। সর্বপ্রথম এ দাবি তোলেন সিসিআই সচিব সুরেশ বাফনা। ধীরে ধীরে সেই দাবি জোরালো হচ্ছে। সদ্য সেই সুরে তাল মিলিয়েছেন সাবেক ভারতীয় অফস্পিনার হরভজন সিং।

শেষ পর্যন্ত যদি এ দাবি আলোর মুখ দেখে তা হলে লাভবান হবে পাকিস্তান। চলতি বছরের ৩০ মে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে গড়াবে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরের সূচি অনুয়ায়ী, ১৬ জুন ওল্ড ট্রাফোর্ডে হওয়ার কথা পাকিস্তান-ভারতের ব্যাট-বলের ‘যুদ্ধ’। সেই মহারণ না হলে পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পেয়ে যাবে সরফরাজ বাহিনী।

আইসিসির নীতি অনুযায়ী, কারও সম্মতি থাকলে যদি তাদের সঙ্গে কোনো দল স্বেচ্ছায় না খেলে তা হলে প্রতিপক্ষরা পূর্ণ পয়েন্ট পাবে। একে বলে ওয়াকওভার।

অর্থাৎ ভারত না খেললে পূর্ণ পয়েন্ট পাবে পাকিস্তান। ২০১৯ বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের প্রতিটি ম্যাচে ৩ পয়েন্ট বরাদ্দ। বিরাট কোহলিরা স্বেচ্ছায় না খেললে এ পয়েন্ট পাবে সরফরাজ বাহিনী। তবে সেই ম্যাচ খেলতে সম্মতি থাকতে হবে পাকিস্তানের।

গেল বৃহস্পতিবার জম্মু-কাশ্মীরে পুলওয়ামার অবন্তীপুরায় তথাকথিত পাকিস্তানের জঙ্গি হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ইতিমধ্যে এ সংখ্যা ৪৯-এ দাঁড়িয়েছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সবাই ভারতীয় আধাসামরিক বাহিনী সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) সদস্য।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×