কোথায় তোমার নয়া পাকিস্তান, বন্ধু ইমরান খানকে গাভাস্কার

  স্পোর্টস ডেস্ক ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫১ | অনলাইন সংস্করণ

ইমরান,

কাশ্মীর হামলার পর ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক ইতিহাসের তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। সবদিক থেকে পাকদের বয়কটের দাবি তুলেছেন ভারতীয়রা। এ তালিকায় আছেন সেলিব্রেটি থেকে সাধারণ মানুষ। আসন্ন বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারত যেন না খেলে, সেই দাবিও জানিয়েছেন তারা।

তবে উল্টো পথে হাঁটলেন ভারতের প্রথম লিটল মাস্টার সুনিল গাভাস্কার। সবার দেখানো পথে না গিয়ে সরাসরি বন্ধু ও প্রতিবেশী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ঝাঁজালো প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন তিনি।

গেল বছর আগস্টে পাকিস্তানের মসনদে বসেন বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারে বসার পরই নয়া পাকিস্তান গড়ার শপথ নেন তিনি। সন্ত্রাসবাদের ছায়া থেকে বেরিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেন কিংবদন্তি এ ক্রিকেটার। কিন্তু আট মাস না গড়াতেই পাক মদদপুষ্ট ‘জঙ্গিগোষ্ঠী’ ‘ভারতে’ ভয়াবহ হামলা চালাল।

সম্প্রতি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ গাড়ির কনভয়ে বর্বর হামলা চালায় পাক মদদপুষ্ট জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ। নৃশংস হামলায় নিহত হন ৪৪ ভারতীয় সেনা। এ ঘটনায় সারাবিশ্বে সমালোচনার তীব্র ঝড় উঠেছে। তবে সাফাই গাইছেন ইমরান। জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া তো দূরের কথা, কাপুরুষোচিত এ ঘটনায় লেশমাত্র নিন্দা শোনা যায়নি তার কণ্ঠে। বরং এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে ভারতকে প্রত্যাঘাতের হুশিয়ারি দেন তিনি।

ইমরানের একগুঁয়ে এমন অবস্থানে শঙ্কিত ভারতীয় ক্রিকেটমহল। পরিপ্রেক্ষিতে নানাজন বিভিন্ন মন্তব্য করলেও মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন গাভাস্কার। এবার তা নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। সরাসরি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন কিংবদন্তি ভারতীয় ওপেনার। ইন্ডিয়া টুডেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে গাভাস্কার বলেন, আমি তরুণ ক্রিকেটারদের মতো মন্তব্য করতে চাই না। কিন্তু ইমরানকে সরাসরি জিজ্ঞেস করার সুযোগ পেলে বলতাম- এটিই কি তোমার নয়া পাকিস্তান?

বন্ধুর উদ্দেশে তিনি বলেন, তুমি বলেছ- ভারত এক কদম এগোলে পাকিস্তান দুই কদম এগোবে। কিন্তু আমি বলছি- তোমাদের উচিত প্রথম ধাপ এগোনো। তুমি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দুধাপ এগোলে আমরা অনেক ধাপ এগোবো। আমি রাজনীতিবিদ নই। তুমি আমার বন্ধু। ওয়াসিম আকরাম ও শোয়েব আখতারও আমার খুব ভালো বন্ধু। প্রথমে পা তোমারই বাড়ানো উচিত। পুরনো পাকিস্তান ছেড়ে বেরিয়ে এসে দেখে, ভারত কতটা বন্ধুত্বের হাত প্রসারিত করতে পারে।

ইমরানের উদ্দেশে ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণে সর্বপ্রথম ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়া ক্রিকেট ঈশ্বর সুনিল বলেন, তোমার প্রথম কদমটা হবে নয়া পাকিস্তানের গোড়াপত্তন। এই হামলার জন্য দায়ী ও দোষীদের ভারতের হাতে তুলে দাও। সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ কর। আমি একজন ক্রীড়াবিদ হিসেবে বলছি- এ দেশের জনগণ তোমার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাবে। শুধু প্রতিশ্রুতি নয়, তোমার কাজ দেখতে চাই।

বন্ধুত্বের সম্পর্ক সীমান্তের কাঁটাতারে আটকে থাকে না। ক্রিকেটার হিসেবে দীর্ঘসময় ভারতে কাটিয়েছেন ইমরান। সুতরাং অন্য যে কোনো পাক প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে তিনি ভারতীয় জনগণকে ভালো করে চেনেন-জানেন বলে মনে করেন গাভাস্কার।

গাভাস্কার ও ইমরানের বন্ধুত্ব অনেক দিনের। বন্ধু ইমরানের পরামর্শে অবসর নেয়া পিছিয়ে দেন গাভাস্কার। ভারতের সাবেক অধিনায়ক বলেন, আমি তার কথায় অবসর পিছিয়ে দিয়েছিলাম। আশা করি, সে আমার কথা শুনবে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অবসর নিতে চেয়েছিলেন গাভাস্কার। কিন্তু ইমরান তাকে বলেছিলেন- ইন্দো-পাক সিরিজের পর অবসর নাও। বন্ধুর কথামতো ১৯৮৭ সালের ১৭ মার্চ বেঙ্গালুরুতে ভারত-পাকিস্তান সিরিজের শেষ টেস্টের পর অবসর নেন গাভাস্কার।

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×