ইচ্ছে করেই বাটলারকে মানকাডিং আউট করেন অশ্বিন!

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৬ মার্চ ২০১৯, ১১:২২ | অনলাইন সংস্করণ

অশ্বিন,

নাটকীয় জয় পেয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। তবে জয় ছাপিয়ে দলটির অধিনায়কের করা সেই আউটটিই এখন আইপিএলের টক অব দ্য টপিক। রাজস্থান রয়্যালসের ব্যাটসম্যান জস বাটলারকে ‘মানকাড’ রানআউট করে দুয়োধ্বনি শুনছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

তবে তাতে কর্ণপাত নেই অশ্বিনের। তার মতে, আইসিসির নিয়মে থাকাতেই এমন আউট করেছেন। এতে ‘স্পিরিট অব ক্রিকেটের’ কোনো ক্ষতিও হয়নি।

পাঞ্জাবের ছুড়ে দেয়া ১৮৫ রানের টার্গেট ভালোভাবেই তাড়া করছিল রাজস্থান। ৬৯ রান করে ফেলেছিলেন বাটলার। ইনিংসের ১৩তম ওভারে নন স্ট্রাইক প্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। অশ্বিন বল করার আগেই ক্রিজ ছেড়ে দেন এ ব্যাটসম্যান। পেছনে ফিরে দেখেন স্ট্যাম্প ভেঙে দিয়েছেন বোলার। ঘটনার আকস্মিকতায় কিছুটা অবাক হলেও নিয়ম মেনে সাজঘরে ফেরেন বাটলার। তার আউটের পরই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে রাজস্থান। শেষ পর্যন্ত হেরে এর খেসারত গুনতে হয়।

টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, বল হাত থেকে ছোড়ার আগ মুহূর্তেও ক্রিজে ছিলেন বাটলার। অশ্বিন কিছুটা অপেক্ষায় করায় ক্রিজ ছেড়ে সামনের দিকে এগিয়ে যান তিনি। এরপরই বল দিয়ে স্ট্যাম্পের বেল ফেলেন বোলার। প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কি ইচ্ছা করেই বাটলারকে ‘মানকাডের’ ফাঁদে ফেলেছেন অশ্বিন?

অবশ্য তা মানতে নারাজ অশ্বিন, এটা আপনাআপনিই হয়ে গেছে। আগে থেকে পরিকল্পনা ছিল না। আমি ক্রিকেটের নিয়মের বাইরে কিছু করিনি। নিয়মের বাইরে না গেলে সেটা ক্রিকেটের চেতনা নষ্ট করে কীভাবে? উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে দেন তিনি। জোর দিয়ে বলেন, এ আউট আইসিসির নিয়মেই আছে।

মানকাড আউট নিয়ে বিতর্ক আগেও উঠেছে। তবে এবার এমন আউটের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় অশ্বিনকে রীতিমতো ধুয়ে দিচ্ছেন সাবেক ক্রিকেটারসহ সংশ্লিষ্টরা।

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×