বাংলাদেশের হারের পাঁচ কারণ

  স্পোর্টস ডেস্ক ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৪:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

মোস্তাফিজুর রহমান

শ্রীলংকার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ২১৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। এতে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের পর টেস্ট সিরিজও খোয়ালো টাইগাররা। এখন অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগতে পারে- এ টেস্টে এমন লজ্জার হার কেন? সেসব পাঠকের চাহিদা নিবৃত্ত করতেই এ বিব্রতকর হারের কারণ তুলে ধরা হল-

এক.

বাংলাদেশ চেয়েছিল স্পিন সহায়ক উইকেট। চাহিদা অনুযায়ী, লংকান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা তেমনই উইকেট বানিয়েছিলেন। এতে হিতে বিপরীত ঘটেছে স্বাগতিকদের। নিজেদের ফাঁদা জালে আটকেছেন তামিমরাই।

দুই.

এ হারের অন্যতম কারণ টস। ঢাকা টেস্টে লংকান অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালের কাছে টস হেরে যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে শ্রীলংকা। ফলে বাংলাদেশের আগে ব্যাট করার পরিকল্পনা ভেস্তে যায়। যা গোটা টেস্টেই প্রভাব ফেলেছে।

তিন.

উইকেটে বল টার্ন করেছে, খানিকটা বাউন্সও। তবে আনপ্লেয়েবল ছিল না। বলের গুণাগুণ বিচার করে খেললে রান পাওয়া সম্ভব ছিল। তা ভালোভাবেই দেখিয়েছেন লংকান ব্যাটসম্যান রোশেন সিলভা। এক্ষেত্রে শতভাগ ব্যর্থ হয়েছেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা।

চার.

বাংলাদেশ এখনও সাকিব-তামিম নির্ভর দল। ইনজুরির কারণে এ টেস্টে খেলতে পারেননি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। আর দুই ইনিংসেই ব্যর্থ হয়েছেন ড্যাশিং ওপেনার। এতে ভরাডুবি ঘটেছে স্বাগতিকদের।

পাঁচ.

কোনো বিশেষজ্ঞ কোচ ছাড়াই সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। ফলে প্রতিপক্ষদের বেঁধে রাখতে দলীয় অধিনায়ক ও কর্মকর্তারা যে ফন্দি আঁটেন তা চন্ডিকা হাথুরুসিংহের মেধার কাছে হার মানে।

SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"event";s:[0-9]+:"বাংলাদেশ শ্রীলংকা টেস্ট ঢাকা ২০১৮".*')) AND id<>16239 ORDER BY id DESC

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ শ্রীলংকা টেস্ট ঢাকা ২০১৮

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter