অগ্নিসেনা সোহেলই আসল সুপারম্যান: মাশরাফি

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৯ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

রাজধানীর বনানী অগ্নিকাণ্ডে উদ্ধারকাজে নেমেছিলেন ফায়ারম্যান সোহেল রানা। কিন্তু নিজেই এক সপ্তাহের বেশি মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে হেরে গেছেন তিনি। অন্যের স্বার্থে জীবন উৎসর্গ করা সোহেলকেই আসল সুপারম্যান বলে অভিহিত করেছেন বাংলাদেশে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

ঢাকার কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান ছিলেন সোহেল। গেল ২৮ মার্চ বনানীর এফআর টাওয়ারে উঁচু মইয়ে উঠে আগুন নেভানো এবং আটকেপড়া ব্যক্তিদের উদ্ধারকাজ করছিলেন তিনি। কিন্তু একপর্যায়ে নিজেই আহত হয়ে পড়েন। নিরাপত্তা হুক খুলে পড়ে গিয়ে তার পা ভেঙে যায়।

গুরুতর আহত সোহেলকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। গেল ৮ এপ্রিল সেখানেই বাংলাদেশ সময় মধ্যরাতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এই অগ্নিসেনা।

সোহেলকে আসল সুপারম্যান বলে আখ্যায়িত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়েছেন মাশরাফি।  এতে তার মতো আরও যারা দেশের ও দশের জন্য নিঃস্বার্থে প্রাণ বিলিয়ে দিয়েছেন সবাইকে স্মরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে নড়াইল এক্সপ্রেস লেখেন, আমরা প্রতিনিয়ত গল্পের সুপারহিরোদের নিয়ে কথা বলি। তাদের নিয়ে জমে ওঠে আমাদের চায়ের আড্ডা। স্পাইডারম্যান, সুপারম্যান- এরা আমাদের জীবনকে প্রতিনিয়ত প্রভাবিত করে। কিন্তু আমাদের আশপাশে এমন কত যে সুপারহিরো আছে, আমরা জানিও না। তাদের নিয়ে জমে ওঠে না আমাদের চায়ের আড্ডা।

আমরা স্মরণ করি না তাদের ত্যাগের কথা। আজ এমনই একজন সুপারম্যানের কথা বলব। এই সুপারম্যানের নাম হচ্ছে সোহেল রানা। তিনি বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিসের একজন ফায়ারম্যান ছিলেন। গত ২৮ মার্চ বনানীর এফআর টাওয়ারে অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধারকাজে অংশ নিয়েছিলেন।

মরনের ভয় না করে উদ্ধার করতে গিয়েছিলেন এফআর বিল্ডিংয়ে আটকেপড়া মানুষদের। কিন্তু উদ্ধারকাজ করতে গিয়ে তিনি গুরুতর আহত হন। তাকে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন গত সোমবার বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ১৭ মিনিটে তার মৃত্যু হয়। আমরা গভীরভাবে স্মরণ করছি তার মতো সব সুপারম্যানকে।