‘ধোনির পরিবর্তে অন্য কেউ হলে আমাকে আগেই বাদ দিয়ে দিত’

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০১:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

ওয়াটসন-ধোনি

চলতি আইপিএলের শুরু থেকেই অফ ফর্মে ছিলেন শেন ওয়াটসন। চেন্নাই সুপার কিংস ধারাবাহিক জয়ে থাকায় ওয়াটসনের ব্যর্থতা সেভাবে ফুটে ওঠনি। গত আট ম্যাচে মাত্র ১২ গড়ে সবমিলে ১০৩ রান করেন অস্ট্রেলিয়া এই অলরাউন্ডার।

দিনের পর দিন ব্যর্থ হওয়ার পরও মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং কোচ স্টিফেন ফ্লেমিং আস্থা রেখেছেন ওয়াটসনের ওপর। মঙ্গলবার সেই আস্থার জবাব দিলেন ৩৭ বছর বয়সী এই তারকা ওপেনার।

তার ব্যাটে ভর করেই সাকিব আল হাসানদের সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে জয় লাভ করে চেন্নাই। ৫৩ বলে ছয়টি দৃষ্টি নন্দন ছক্কা নয়টি চারের সাহায্যে ৯৬ রান করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন ওয়াটসন।

খেলা শেষে ধারাভাষ্যকারদের ওয়াটসন বলেন, মহেন্দ্রং ধোনি এবং কোচ স্টিফেন ফ্লেমিংকে ধন্যবাদ। অফ ফর্মে থাকার পরও কোচ-অধিনায়ক আমার ওপর আস্থা রেখেছেন। এজন্য আমি ওনাদের কাছে কৃজ্ঞ। অন্য দল হলে টানা ব্যাটিং বিপর্যয়ে কারণে আমি আগেই বাদ পড়ে যেতাম। তবে আমাকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য ধন্যবাদ।

মঙ্গলবার চেন্নাইয়ে অনুষ্ঠিত আইপিএলের চলতি আসরের ৪১তম ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিংয় করে হায়দরাবাদ।

আগে ব্যাট করে মনশ পান্ডিয়ার ৪৯ বলের অপরাজিত ৮৩ এবং ডেভিড ওর্য়ানারের ৫৭ রানের ইনিংসে ভর করে তিন উইকেটে ১৭৫ রান সংগ্রহ করে হায়দরাবাদ। ব্যাটিংয়ে নামার সুযোগ হয়নি সাকিবের।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে শেন ওয়াটসনের ব্যাটিং তাণ্ডবে জয়ের কাছাকাছি চলে যায় চেন্নাই। জয়ের জন্য শেষ ১৮ বলে প্রয়োজন ছিল মাত্র ১৬ রান। দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া ওয়াটসনকে ১৮তম ওভারের প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরান ভুবনেশ্বর কুমার। এই ওভারে মাত্র রান খরচ করেন হায়দরাবাদের অধিনায়ক।

১২ বলে প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। ১৯তম ওভারে অসাধারণ বোলিং করেন খলিল আহমেদ। এই ওভারে তিনি খরচ করে মাত্র রান। শেষ দিকে দুই দলই জয়ের স্বপ্ন দেখছিল।

শেষ বলে প্রয়োজন রান। ২০তম ওভারে আম্বাতি রাইডুর উইকেট শিকার করলেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি সন্দীপ শর্মা। নির্ধারিত ওভারে এক বল আগেই জয়ের বন্দরে পৌঁচে যায় চেন্নই।

দলের জয়ে ৫৩ বলে ছয়টি ছক্কা ৯টি চারের সাহায্যে ৯৬ রান করেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন চেন্নাইয়ের অস্ট্রেলিয় অলরাউন্ডার শেন ওয়াটসন।

সাকিব ওভার বল করে ২৭ রান খরচ করে কোনো উইকেট শিকার করতে পারেননি।

ঘটনাপ্রবাহ : আইপিএল-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×