স্মিথকে দুয়োধ্বনি দেবে না পাকিস্তানের সমর্থকরা : সরফরাজ

  স্পোর্টস ডেস্ক ১২ জুন ২০১৯, ১৩:১১ | অনলাইন সংস্করণ

স্মিথকে দুয়োধ্বনি দেবে না পাকিস্তানের সমর্থকরা : সরফরাজ
সরফরাজ আহমেদ। ফাইল ছবি

‘স্যান্ডপেপার গেট' কেলেঙ্কারিতে সাজা খেটে ক্রিকেটে ফিরে আসা অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিট ওয়ার্নারদের আজকের ম্যাচে বিদ্রূপের মুখে পড়তে হবে না। পাকিস্তানের দর্শকরা ভারতীয়দের মতো তাদের দেখে দুয়ো দেবে না বলে জানিয়েছেন অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির কারণে নিষেধাজ্ঞার পর বিশ্বকাপ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন অস্ট্রেলিয়ার দুই ক্রিকেটার ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথ। ক্রিকেটে ফিরলেও অপমান বয়ে বেড়াতে হচ্ছে দুজনকে। যেখানেই তারা যাচ্ছেন, সেখানেই মুখোমুখি হচ্ছেন বিদ্রূপের। মাঠে নামলেই শুনতে হচ্ছে দুয়োধ্বনি।

গত রোববার কেনিংটন ওভালে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের সময় বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করতে গিয়ে ভারতীয় সমর্থকদের কাছ থেকে দুয়ো শোনেন স্মিথ। ভারতীয় দর্শকরা তাকে উদ্দেশ্য করে ‘প্রতারক, প্রতারক’ বলে চিৎকার করে যাচ্ছিলেন।

ভারতের সঙ্গে হারার পর আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামছেন স্মিথরা। স্মিথদের মনে দুয়োধ্বনির শঙ্কা কাজ করতেই পারে। তবে আজকের ম্যাচে এমন কিছুই হবে না বলে আশ্বাস দিলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

সরফরাজ বলেন, ‘আমি মনে করি না, পাকিস্তানি সমর্থকরা স্মিথের প্রতি দুয়ো দেবে। পাকিস্তানি মানুষেরা ক্রিকেটকে ভালোবাসে। তারা সমর্থন দিতে ভালোবাসে এবং খেলোয়াড়দেরও ভালোবাসে।’

বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই নিজেদের ঘরের মাঠে (আরব আমিরাত) অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। তাই ধারণা করা হচ্ছে, বিশ্বকাপে তাদের বিপক্ষে নামার আগে কিছুটা পিছিয়ে থাকবে সরফরাজ আহমেদের দল; কিন্তু সে বিষয়টি মেনে নিলেন না পাকিস্তান অধিনায়ক।

সরফরাজ বলেন, ‘আমি মনে করি, হোয়াইটওয়াশ হওয়াটা এখন অতীত। আমরা সেটি নিয়ে আর ভাবছি না। আমরা শুধু আজকের (বুধবার) ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। সুতরাং আমাদের মনোবল খুবই উঁচু এবং আমরা আমাদের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব।’

সব মিলিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে শেষ ১৪ ম্যাচের মাত্র একটিতে জিতেছে পাকিস্তান। কিন্তু স্বাগতিক ইংল্যান্ডতে হারিয়ে মোমেন্টাম পেয়ে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিবর্ণ রেকর্ড নিয়ে একেবারেই ভাবিত নন পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ।

‘অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খুব বেশি ম্যাচ আমরা জিতিনি। কিন্তু ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও আমাদের রেকর্ড খুব ভালো ছিল না। শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডকে আমরা হারিয়েছি। এতে দলের মধ্যে একটি ইতিবাচক আবহ তৈরি হয়েছে। আমরা এখন কোনো দলকেই ভয় পাই না। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলবে পাকিস্তান। প্রতিপক্ষকে সমীহ করলেও আমরা প্রস্তুত’-যোগ করেন সরফরাজ।

প্রসঙ্গত এর আগে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে স্মিথকে শুনতে হয়েছে বিদ্রূপ। তা থামাতে এগিয়ে আসতে হয়েছে স্বয়ং ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে।

নিজ দেশের সমর্থকদের এমন উগ্র আচরণ ভালো লাগেনি ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির। মাঠেই এর প্রতিবাদ করেন তিনি। স্মিথের জন্য দর্শকদের প্রতি হাততালি দেয়ার অনুরোধ জানান ভারতীয় অধিনায়ক।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৬ রানের জয়ের ম্যাচে কোহলির ব্যাটিংয়ের সময় স্মিথকে গ্যালারি থেকে গালি দেন ভারতীয় দর্শকরা। ব্যাপারটি বুঝতে পেরে এগিয়ে আসেন খোদ কোহলি। তিনি হাতের ইশারায় দর্শকদের বুঝিয়ে দেন এমন ব্যবহার না করতে। সেই সময় তিনি স্মিথের সঙ্গে স্পোর্টসম্যানশিপ স্বরূপ হাতও মেলান।

পরে ম্যাচশেষে সমর্থকদের হয়ে স্টিভেন স্মিথের কাছে ক্ষমা চান কোহলি। জানান, বল টেম্পারিংকাণ্ডে শাস্তি হওয়ার পরও স্মিথের প্রতি দর্শকদের এমন আচরণে বেশ কষ্টই পেয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক। ভবিষ্যতে সমর্থকদের এমন আচরণ না করতে অনুরোধও জানিয়েছেন এই মারকুটে ব্যাটসম্যান।

কোহলি বলেন, ‘কি ঘটেছিল সেটি তো অনেক আগের। তারা এখন খেলায় ফিরেছে। মাঠে সর্বোচ্চটাও দিচ্ছে। তবে এভাবে কাউকে হেয় করাটা মোটেও ঠিক নয়।’

ভারতীয়দের উদ্দেশ্যে কোহলি বলেন, ‘আমি চাই না সমর্থক হিসেবে ভারতীয়রা খারাপ দৃষ্টান্ত স্থাপন করুক। দুয়ো পাওয়ার মতো কিছুই করেননি স্মিথ। আমার এটি খারাপ লেগেছে। আমার সঙ্গে এমন ঘটলে সেটি আমাকেও পোড়াবে। আমার এটি খুবই খারাপ লেগেছে। সমর্থকদের পক্ষ থেকে আমি তার (স্মিথ) কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত ‘স্যান্ডপেপার গেট' কেলেঙ্কারির কারণে সাজা হয় অস্ট্রেলিয়ার দুই ক্রিকেটার ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথের। সাজা শেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে আসেন তারা। তাদের ব্যাটও হাসছে। তবে বল টেম্পারিংকাণ্ডের অভিশাপ পেছন ছাড়ছে না তাদের। প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই দর্শকদের দুয়ো শুনতে হচ্ছে এ দুই ক্রিকেটারকে। আসরের শুরুতেই ইংলিশ সমর্থকরা জানিয়েছিলেন মাঠে প্রতারক বলে দুয়ো দেয়া হবে তাদের।

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×