বিশ্বকাপে রিজার্ভ ডে না রাখায় বাংলাদেশ কোচের ক্ষোভ

  স্পোর্টস ডেস্ক ১২ জুন ২০১৯, ১৭:০২ | অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্যায়ে রিজার্ভ ডে না রাখায় বাংলাদেশ কোচের ক্ষোভ
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ স্টিভ রোডস বলেছেন, মানুষ যদি চাঁদে অবতরণ করতে পারেন, তা হলে বিশ্বকাপ কর্তৃপক্ষ গ্রুপ পর্যায়ের ম্যাচের জন্য রিজার্ভ ডে বা সংরক্ষিত দিনও রাখতে পারতেন। খবর এএফপির।

মঙ্গলবার ব্রিস্টলের বৃষ্টিতে শ্রীলংকা বনাম বাংলাদেশ ম্যাচটি ভেসে যাওয়ার পর তিনি এমন মন্তব্য ছোড়েন।

বৃষ্টির হানায় আম্পায়ারদের এই সিদ্ধান্ত বিশ্বকাপে ম্যাচ পরিত্যক্ত ঘোষণার রেকর্ড গড়েছে। ১৯৯২ ও ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত করা হয়েছিল।

ব্রিস্টলে শুক্রবারে পাকিস্তান বনাম শ্রীলংকার ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা হয়েছিল। মাঠে একটি বলও গড়ানোর আগে ম্যাচ পরিত্যক্ত ঘোষণার দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার।

সোমবার সাউথ্যাম্পটনে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যের ম্যাচটি মাত্র সাত ওভার তিন বল পর্যন্ত গড়িয়ে ছিল। পরে বৃষ্টির হানায় সেটিও ভেসে যায়।

যদিও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল সেমি-ফাইনাল ও ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে রেখেছে। কিন্তু শেষ চারে যারা উঠবেন, তাদের জন্য বৃষ্টির হানার উদ্বেগ রয়েছে।

ইংল্যান্ডের সাবেক উইকেট কিপার রোডস বলেন, যদি আপনি ইংলিশ আবহাওয়া সম্পর্কে জানেন, দুঃখের সঙ্গে বলতে হয়, আমরা প্রচুর বৃষ্টি পেতে যাচ্ছি। আমার জানামতে, খেলার আয়োজকদের জন্য এটা একটা বড় ধরনের ম্যাথা ব্যথার কারণ হওয়া উচিত ছিল। যদিও এটা কঠিন হওয়ার কথা আমি জানি।

রোডস বলেন, খেলার মধ্যে আমরা প্রচুর সময় পেয়েছি এবং যদি একদিন পরে আমাদের সফরে যাওয়া লাগতো, তখন পরিস্থিতি মেনেই তা করতো হতো।

১৭ জুন বাংলাদেশের পরবর্তী ম্যাচ হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

তিনি বলেন, আমরা চাঁদে মানুষ পাঠাই, কাজেই কেন আমাদের একটি রিজার্ভ ডে থাকবে না। যখন এটা সত্যিকার অর্থে দীর্ঘ টুর্নামেন্ট?

শ্রীলংকার ক্যাপ্টেন ডিমুথ করুণারত্নে রোডসের কথায় সায় দিয়ে বলেন, এটা সহজ কাজ না। কিন্তু আমি মনে করি, যদি তারা একটি রিজার্ভ ডে রাখতেন, তবে তা সবার জন্যই ভালো হতো।

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×