জুটি গড়ার পথে সাকিবের যে কথায় উজ্জীবিত হন লিটন

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ জুন ২০১৯, ১৬:২৪ | অনলাইন সংস্করণ

জুটি গড়ার পথে সাকিবের যে কথায় উজ্জীবিত হন লিটন

বিশ্বকাপে প্রথম সুযোগ পাওয়া লিটন দাস সুযোগটা কাজে লাগিয়েছেন কড়ায়-গণ্ডায়। মূলত ওপেনার হলেও এ ম্যাচে তাকে খেলানো হয়েছে পাঁচ নম্বরে। নিজের স্বাভাবিক পজিশনে না নেমেও বিশ্বকাপ অভিষেকেই খেলেছেন ৬৯ বলে ৯৪ রানের ঝলমলে এক ইনিংস।

ম্যাচশেষে অধিনায়ক মাশরাফির কণ্ঠে তাই লিটনের জন্যও আলাদা করে প্রশংসা ঝরল, ‘গত দুই ম্যাচে মুশফিক ভালো ব্যাট করেছে, আজ লিটন অসাধারণ খেলেছে। সাধারণত সে টপঅর্ডারে ব্যাট করে, ওর জন্য পাঁচে নামাটা তাই কঠিন ছিল। কিন্তু ও মানিয়ে নিয়েছে এবং পারফর্মও করেছে।’ ক্যারিবীয়দের বিরুদ্ধে ম্যাচের এক পর্যায়ে মুখ থুবড়ে পড়ে টাইগাররা। ১৩৩ রানে সৌম্য, তামিম ও মুশফিকের মতো তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। সেই চাপ দারুণভাবে সামলেছেন সাকিব আল হাসান ও লিটন দাস। এই দুজনের রেকর্ড ১৮৯ রানের জুটি জয়ের বন্দরে নিয়ে যায় টাইগারদের। এই জুটি গড়ার পথে সাকিবের একটি কথা উজ্জীবিত করে লিটনকে।

এ বিষয়ে ম্যাচশেষে সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, ‘আমি আর তামিম যখন ব্যাটিং করছিলাম, তখন তামিমকে বলেছি, আমরা যদি উইকেটে টিকে থাকার চেষ্টা করি, তাহলে হয়তো আমরা দুজনই ম্যাচ শেষ করতে পারবো এবং খেলা শেষ হবে ৫-৬ ওভার আগে। তামিম দুর্ভাগ্যজনকভাবে রানআউট হওয়ায় তা হয়নি।’

পরে চতুর্থ উইকেটে লিটনকে নিয়ে চমতকার এক জুটি গড়েন সাকিব। ক্যারিবীয় বোলারদের তুলোধুনো করে দুজন মিলে অবিচ্ছিন্ন জুটিতে বাংলাদেশকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে, গড়েন বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পক্ষে রেকর্ড ১৮৯ রানের জুটি।

এ রেকর্ড জুটি গড়ার পথে লিটনকেও তামিমের মতো একই কথা বলছিলেন সাকিব। ‘তামিম ফিরে গেলেও লিটনকে নিয়ে আমরা অনেক আগেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে গেছি। লিটনকেও বলেছি, উইকেটে টিকে থাক। কারণ ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানরা প্রচুর বাজে বল করছে। তাই উইকেটে থাকলেই রান করা যাবে’-যোগ করেন সাকিব।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে লিটনের ব্যাটিং প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, ‘আমি জানতাম, উইকেট বেশ ভাল ছিলো। তবে লিটন যেভাবে ব্যাটিং করলো তা দেখে অভিভূত ও মুগ্ধ হয়েছি। বিশ্বকাপে এটাই তার প্রথম ম্যাচ এবং আগের তিন ম্যাচে একাদশের বাইরে ছিল। সেখান থেকে দলে এসে এরকম বড় রানের চাপ নিয়ে খেলতে নেমেও লিটন যা ব্যাটিং করেছে, তার প্রশংসা যতই করি, কম হবে।’

৬৯ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় অপরাজিত ৯৪ রানের ইনিংসটি সাজান লিটন। সাকিবকে সঙ্গে নিয়ে তার এমন ব্যাটিংয়ে ভর করেই ৫১ বল আগে থাকতে ৩২২ রানের লক্ষ্যে পৌঁছায় বাংলাদেশ।

সাধারণত উদ্বোধনী খেলে অভ্যস্ত লিটন। দলের স্বার্থে বেশ কয়েকবার তিন নম্বর ও চার নম্বরে খেলতে হয়েছিল। কিন্তু এবারই প্রথম ৫ নম্বরে খেললেন তিনি। ব্যাটিং অর্ডার বদলে সাবলীল খেলাটা সহজ নয়। কিন্তু লিটনের খেলা দেখে মনেই হয়নি যে, পজিশন বদলে খেলায় তার কোনো সমস্যা হচ্ছে।

সাকিবও এদিন ১২৪ রানের ঝলমলে একটি ইনিংস উপহার দেন। শুধু রানই করেননি। বিশ্ব আসরে নতুন একজনকে যোগ্য সমর্থন দেন। নন-স্ট্রাইকিং প্রান্ত থেকে মুগ্ধ চোখে লিটনের নান্দনিক ব্যাটিং উপভোগ করেন। প্রয়োজন হলেই পরামর্শ দিয়েছেন। সেই অনুযায়ী ব্যাট চালান লিটন।

তাই ম্যাচ শেষে লিটনের প্রশংসা না করে পারলেন না সাকিব। সাকিব লিটনের ৯৪ রানের অনবদ্য ইনিংসের প্রশংসা করেন। বলেন, লিটনের ইনিংসা ছিল চোখ ধাঁধানো, এক কথায় বাধিয়ে রাখার মত।

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×