অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বল হাতে সৌম্যই সফল

  স্পোর্টস ডেস্ক ২০ জুন ২০১৯, ২১:১২ | অনলাইন সংস্করণ

উইকেট শিকারের পর সৌম্যর উচ্ছ্বাস।
উইকেট শিকারের পর সৌম্যর উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার

বাংলাদেশের বিপক্ষে রীতিমতো ব্যাটিং তাণ্ডব চালিয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার, উসমান খাজা ও অ্যারন ফিঞ্চরা। তাদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভেঙে যায় টাইগারদের বোলিং লাইনআপ। খুনে ব্যাটিং করেছেন গ্ল্যান ম্যাক্সওয়েলও। ১০ বলে ৩২ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি।

রুবেল হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোস্তাফিজুর রহমানদের তুলোধুনো করে ৫০ ওভারে ৩৮১ রানের পাহাড় গড়ে অস্ট্রেলিয়া। বিশ্বকাপের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান করেছে অজিরা।

এর আগে ২০১৫ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপের রেকর্ড সর্বোচ্চ ৪১৭/৬ রানের ইনিংস খেলে অস্ট্রেলিয়া।

বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের নটিংহামে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে রীতিমতো তাণ্ডব চালায় অজি ব্যাটসম্যানরা। তাদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের দিনে আনকোরা বোলার হয়েও সফল সৌম্য সরকার।

উদ্বোধনী জুটিতে ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে ১২১ রানের জুটি গড়েন অ্যারন ফিঞ্চ। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা তাদের এই জুটি ভাঙেন সৌম্য সরকার। মাশরাফি, মোস্তাফিজ, সাকিব, রুবেল মিরাজরা ইনিংসের প্রথম ২০ ওভার বল করেও দলকে ব্রেক থ্রু এনে দিতে ব্যর্থ হন।

টুকটাক বোলিং করা জাতীয় দলের ওপেনার সৌম্য সরকার ২১তম ওভারে বোলিংয়ে এসেই অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চকে ক্যাচ তুলতে বাধ্য করেন। রুবেলের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরার আগে ৫১ বলে ৫টি চার ও দুই ছক্কায় ৫৩ রান করেন ফিঞ্চ।

এরপর দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া ডেভিড ওয়ার্নারকে সাজঘরে ফেরান সৌম্য। তার বলে রুবেলের হাতে ক্যাচ তুলে দেয়ার আগে ১৪৭ বলে ১৪টি চার ও পাঁচটি ছক্কায় ১৬৬ রান করেন অস্ট্রেলিয়ান এ ওপেনার।

একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন উসমান খাজা। দুর্দান্ত ব্যাটিং করে যাওয়া খাজাকেও সাজঘরে ফেরান সৌম্য। তার আগে ৭২ বলে ১০টি চার ও এক ছক্কায় ৮৯ রান করেন উসমান।

ম্যাচে ৮ ওভারে ৫৮ রানে ৩ উইকেট শিকার করেন সৌম্য সরকার। ৯ ওভারে ৬৯ রানে এক উইকেট শিকার করেন মোস্তাফিজ। এছাড়া রুবেল, মিরাজ, মাশরাফি, সাকিবরা ৮৩, ৫৯, ৫৬ ও ৫০ রান দিয়ে কোনো সাফল্য পাননি।

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×