এটিই সর্বকালের সেরা দল কিনা, জবাবে যা বললেন মাশরাফি

প্রকাশ : ২১ জুন ২০১৯, ১২:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

মাশরাফি

বৃহস্পতিবার ট্রেন্ট ব্রিজে অস্ট্রেলিয়ার ৩৮২ রান তাড়া করে টাইগাররা যেভাবে জবাব দিয়েছে, সেটি নিঃসন্দেহে দুর্দান্ত। ক্রিকেটবিশ্বকে মনে রাখতে হবে বহুদিন। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে মুশফিক যে সেঞ্চুরিটি করলেন সেটি বাঁধিয়ে রাখার মতো। মাথার ওপর এত বড় লক্ষ্যের বোঝা নিয়ে সাকিব, তামিম, মাহমুদউল্লারা যে লড়াইটা করেছেন শেষ পর্যন্ত, সেটি এককথায় লড়াকু। 

এটি তো মানতেই হবে যে, বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে ৩০০ রান তাড়া করে জেতাই যেখানে কঠিন, ৪০০ ছোঁয়া স্কোর তো প্রায় অসম্ভব! ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির কণ্ঠেও ধ্বনিত হয় সে কথাই। এ ছাড়া ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট নিয়েও কথা বলেন টাইগার অধিনায়ক।

ম্যাচ–পরবর্তী পুরস্কার বিতরণীতে ভারতীয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলের প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি অকপটে স্বীকার করেন, খরুচে বোলিংয়েই ম্যাচ খুঁইয়েছে বাংলাদেশ, ‘আমরা ৪০-৫০ রান বেশি দিয়েছি শেষের দিকে। না হলে ব্যাটসম্যানরা ভিন্ন মানসিকতা নিয়ে খেলতে পারত, রান তাড়ার ধরনটাও ভিন্ন হতো। তবে ওয়ার্নার এবং অন্য অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানদের প্রশংসা করতে হবে, তারা দারুণ ব্যাটিং করেছে। 

মাশরাফি বাংলাদেশের ইনিংসের শুরুতে উইকেট হারানোকেই কাঠগড়ায় তুললেন, ‘সৌম্য রান আউট হওয়ার পর থেকেই আমাদের পতন শুরু। তামিম ও সাকিব এর পর চেষ্টা করেছিল। কিন্তু ৩৮২ রান তাড়া করাটা মোটেও সহজ নয়।’

বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্সের প্রশংসা করে মাশরাফি বলেন, মুশফিক, সাকিব, তামিম এবং শেষের দিকে রিয়াদ ভালো ব্যাটিং করেছে। এটি আমাদের লড়াইয়ের মানসিকতার প্রমাণ দিয়েছে।

এদিন ট্রেন্টব্রিজে নিজেদের ওয়ানডে ইতিহাসে ইনিংসে সর্বোচ্চ রান তোলার রেকর্ড গড়ে  বাংলাদেশ। ৩৩৩ রান করে ম্যাচে জয় না পেলেও রান তাড়ায় হাল ছাড়েনি বাংলাদেশ। 

এই লড়াকু দলটিই ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বকালের সেরা দল কিনা, সেই প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বলেন, ‘আমি মনে করি, বর্তমান সময়ে এটিই আমাদের সেরা দল। সামনে হয়তো নতুন অনেক মুখ দলে আসবে, তবে বর্তমানে এটিই আমাদের সেরা দল।’

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ হারের ফলে বাংলাদেশের সেমিফাইনালে যাওয়ার সমীকরণটিও বেশ কঠিন হয়ে উঠল। বাকি তিনটি ম্যাচও যদি বাংলাদেশ জিতে তবু তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যদের ফলের দিকে। মাশরাফিও বিষয়টি তুলে ধরলেন রাখঢাক না করে, ‘সেমিফাইনালে যেতে হলে বাকি ম্যাচগুলো জিততে হবে। অন্যদের সুবাদে কিছু সমীকরণ তৈরি হতে পারে। তবে আমাদের নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে হবে।’