‘পাকিস্তান এভাবেই আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলুক’

প্রকাশ : ২৬ জুন ২০১৯, ১৮:২১ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি বলেন, পাকিস্তান চমৎকার শুরু করেছে। তবে এটাই শেষ নয়, শারীরিকভাষা দিয়ে এই আক্রমণাত্মক মুড ধরে রাখতে হবে। এভাবেই ম্যাচ শেষ করতে হবে।

বুধবার ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে বাঁচা-মরার লড়াইয়ের ম্যাচে মুখোমুখি পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড। শাহীন শাহ আফ্রিদি ও মোহাম্মদ আমিরের গতি মুখে পড়ে ১২.৩ ওভারে ৪৬ রানে প্রথম সারির ৪ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে চাপের মধ্যে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

এরপর পঞ্চম উইকেটে ৩৭ রানের জুটি গড়তেই বিপদে পড়ে যান অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ইনিংসের শুরু থেকে পাকিস্তানের বোলারদের গতির প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন। শাদাব খানের গুগলিতে সরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন কিউই অধিনায়ক। তার আগে ৬৯ বলে ৪১ রান করেন উইলিয়ামসন। তার বিদায়ে ২৬.২ ওভারে ৮৩ রানে ৫ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।  

কিউইদের বিপক্ষে দুর্দান্ত শুরুর পর পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক সারফরাজ আহমেদের উদ্দেশে টুইটবার্তায় বলেন, শুরুর এই পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত ধরে রাখতে হবে। তাহলেই কাঙ্খিত জয় পাওয়া সম্ভব।

হারলেই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় পাকিস্তানের। আর জিতলে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হবে নিউজিল্যান্ডের।এমন সমীকরণের ম্যাচে বৃষ্টির বাগড়া। বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ের ঘণ্টাখানেক পর খেলা শুরু হয়।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ব্যাটিংয়ে নেমেই পাকিস্তানের তারকা পেসার মোহাম্মদ আমিরের গতির মুখে পড়ে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন মার্টিন গাপটিল।

প্রাথমিক ধকল সামলিয়ে ওঠার আগেই ফের বিপদে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। শাহীন শাহ আফ্রিদির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন অন্য ওপেনার কলিন মুনরো।

এরপর চার নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে বাড়তি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে পারেননি রস টেইলর। শাহীন শাহ আফ্রিদির গতির বলে উইকেটকিপার সরফরাজ আহমেদের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হয়ে সাজঘরে ফেরেন টেইলর।

ব্যাটিংয়ে ধুকতে থাকা নিউজিল্যান্ড শিবিরে চতুর্থ আঘাত হানেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। কলিন মুনরো, রস টেইলরের পর টম লাথামকে সাজঘরে ফেরান শাহীন। তার গতির বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন মুনরো, টেইলর, লাথামরা।

দলীয় ১২.৩ ওভারে ৪৬ রানে মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, রস টেইলর ও টম লাথামের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ড: মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, কেন উইলিয়ামসন, রস টেইলর, টম লাথাম, জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্রান্ডহোম, ম্যাট হেনরি, লুকি ফার্গুনসন ও ট্রেন্ট বোল্ট।

পাকিস্তান: ইমাম-উল-হক, ফখর জামান, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, সরফরাজ আহমেদ, হারিস সোহেল, ইমাদ ওয়াসিম, ওয়াহাব রিয়াজ, শাদাব খান, মোহাম্মদ আমির ও শাহীন শাহ আফ্রিদি।