মোহাম্মদ সামিকে কোন যুক্তিতে খেলানো হলো না?

  শরদিন্দু মুখোপাধ্যায় ১২ জুলাই ২০১৯, ২১:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

মোহাম্ম সামি
যশপ্রিত বুমরাহর সঙ্গে মোহাম্ম সামি (ডানে)। ফাইল ছবি

বিশ্বকাপ থেকে ভারতের বিদায়ে চুলছেঁড়া বিশ্লেষণ চলছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ শরদিন্দু মুখোপাধ্যায় দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সত্ত্বেও সেমিফাইনালে মোহাম্মদ সামিকে না খেলানো নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

ম্যানচেস্টারে অনুষ্ঠিত নিউজিল্যান্ড-ভারতের মধ্যকার সেমিফাইনাল ম্যাচে ২৪০ রানের সহজ টার্গেট তাড়া করতে নেমে ১৮ রানের পরাজয় নিয়ে ইন্ডিয়ান এক্সেপ্রেসের এই প্রতিবেদক বলেন, সেমিফাইনালে লড়াইটা ছিল নিউজিল্যান্ডের বোলারদের সঙ্গে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের। লকি ফার্গুনসন ফিরে আসায় ওরা একটা গতি পেয়েছে। ম্যাট হেনরি অসাধারণ সুইং বোলার। ট্রেন্ট বোল্টও দুরন্ত সুইং বল করেছেন।

এদের সঙ্গেই জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্রান্ডহোম ও মিচেল স্যান্টনার রয়েছেন। নিউজিল্যান্ড অতিরিক্ত ব্যাটসম্যানের বদলে অতিরিক্ত বোলার নিয়ে খেলল। আর ভারত ঠিক উল্টোটা করল। আমার তো মাথায় আসছে না, মাত্র চার ম্যাচে ১৪টা উইকেট নিয়ে যে বোলার ফর্মে ছিল, তাকে কোন যুক্তিতে খেলানো হলো না?

খেলাটা দুদিনে গড়ানোয় একটা অসুবিধা হয়েছে। প্রথম দিন নিউজিল্যান্ড শুকনো পিচে টসে জিতে ব্যাটিং-সহায়ক উইকেট হওয়া সত্ত্বেও কিন্তু ভারতীয় বোলারদের প্রশংসা করতেই হবে। দুর্দান্ত বল করে নিউজিল্যান্ডকে ৪৬.১ ওভারে ২১১ রানের মধ্যে রাখতে পেরেছিলেন তারা। কিন্তু পরের দিন অনবরত বৃষ্টির জন্য কিছুটা ময়শ্চার কভারের তলায় চলে যায়। যতই পিচ কভারে ঢাকা থাকুক না কেন, উইকেট কিন্তু ভেজা থাকেই। ফলে অনেক লাইট হয়ে যায়। আর এটার পুরোপুরি ফায়দা তুলেছেন নিউজিল্যান্ডের বোলাররা। খেলাটা প্রথম দিন হলে ভারত জিততে পারত।

পাঁচ রানের মধ্যে যখন তিন উইকেট পড়ে গেল, তখন কার্তিকের পর এমএস ধোনিকে নামানো উচিত ছিল। একটা পার্টানারশিপ গড়ে উঠতে পারত। পরের দিকে আস্কিং রান রেট ১০-১২-র কাছাকাছি চলে গেলে কিন্তু রিশব প্যান্ট আর হার্দিক পাণ্ডিয়া খেলে দিত। রবীন্দ্র জাদেজা রয়েছেন এরপর।

সাতে ধোনির কোনও জায়গাই নেই। ধোনি তাও শেষ পর্যন্ত খেলেছেন। নিজে হাফসেঞ্চুরি করেছেন। জাদেজার সঙ্গে সপ্তম উইকেটে ১১৬ রান যোগ করেছে স্কোরবোর্ডে। আমি বলব, ধোনির পাঁচে নামা উচিত ছিল। ধোনির সঙ্গে কার্তিক যদি ২০ ওভারের পার্টনারশিপ গড়ে দিতে পারতেন, তাহলে পরের দিকে রিশব, পাণ্ডিয়া এবং জাদেজার জন্য কাজটা অনেক সহজ হয়ে যেত।

তবে আমি নিউজিল্যান্ডকেই কৃতিত্ব দেব। ওরা খাতায়-কলমে ভারতের থেকে পিছিয়ে থেকেও ভালোই খেলেছে। তিনটে অসাধারণ রানআউট আর দুটো দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়েছে। আমি বলব ওরা সেরা ফিল্ডিং সাইড, অস্ট্রেলিয়ার থেকেও ভালো।

লেখক: শরদিন্দু মুখোপাধ্যায়, ভারতীয় ক্রীড়া বিশ্লেষক

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×