ক্রিকেটের সব পুড়িয়ে কী এখন চাকরি খুঁজব, প্রশ্ন রাজার
jugantor
ক্রিকেটের সব পুড়িয়ে কী এখন চাকরি খুঁজব, প্রশ্ন রাজার

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৯ জুলাই ২০১৯, ১৫:২২:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের সদস্যপদ হঠাৎ করে স্থগিত করেছে আইসিসি। স্বাভাবিকভাবেই মর্মাহত দেশটির ক্রিকেটাররা। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের কাছে হৃদয়স্পর্শী প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন দলটির ব্যাটিং অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা।

দল নির্বাচনে সরকারি হস্তক্ষেপ থাকায় জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিত করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সদস্য না হওয়ায় এখন আইসিসি আয়োজিত কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবে না দলটি। সংস্থার তহবিল থেকেও কোনো অর্থ পাবে না তারা।

গেল বৃহস্পতিবার লন্ডনে আইসিসির বোর্ডসভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অধিকন্তু জিম্বাবুইয়ানদের ক্রিকেটে দুর্নীতির বিষয়টিও মাথায় রেখেছেন তারা। এর পরই হতাশা প্রকাশ করেছেন সিকান্দার।

ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে তিনি বলেন, এ মুহূর্তে আমাদের সবার হৃদয় ভেঙে গেছে। সত্যি বলতে আমরা এখনও আতঙ্কিত। দেখুন আমাদের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার কিভাবে শেষ হয়ে গেল। এটা কেবল একজন খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে নয়, গোটা দেশের ক্রিকেটারদের জন্যই। আমি এটা সহজে মেনে নিতে পারছি না। আমি নিশ্চিত, আমার সতীর্থরাও তেমনটাই অনুভব করছে। আমরা এখন কি করব? কোথায় যাব? কোনো পথ কী আছে?

জিম্বাবুয়েতে ক্রিকেট বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন সিকান্দার। তিনি বলেন, আমাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে সেটা কতদিনের জন্য স্পষ্ট করে বলেনি আইসিসি। দুই বছরের স্থগিতাবস্থাও আমাদের অনেকের ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দেবে। কোন শর্তে বা কি কারণে আমাদের ক্রিকেট থেকে দূরে সরিয়ে দেয়া হলো সেটা অজানা। এখন যদি বোর্ড ঢেলে না সাজানো হয়, তা হলে গোটা দেশে ক্রিকেট বন্ধ হয়ে যাবে। আমি অবগত নই, কীভাবে এককভাবে এ সিদ্ধান্ত নেয়া যায়? তবে আমাদের ক্ষেত্রে সেটাই ঘটেছে।

সবশেষে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার বলেন, আমি জানি না, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে আমাদের এখন কোথায় যাওয়া উচিত। আমরা কি ক্লাবে খেলব? নাকি ক্রিকেটই আমাদের জন্য নয়? আমরা কি ক্রিকেটের সব পুড়িয়ে ফেলব এবং চাকরির সন্ধান করব? আমাদের ঠিক এখন কি করা উচিত; আমি জানি না।

ক্রিকেটের সব পুড়িয়ে কী এখন চাকরি খুঁজব, প্রশ্ন রাজার

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৯ জুলাই ২০১৯, ০৩:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের সদস্যপদ হঠাৎ করে স্থগিত করেছে আইসিসি। স্বাভাবিকভাবেই মর্মাহত দেশটির ক্রিকেটাররা। ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের কাছে হৃদয়স্পর্শী প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন দলটির ব্যাটিং অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজা।

দল নির্বাচনে সরকারি হস্তক্ষেপ থাকায় জিম্বাবুয়ের সদস্যপদ স্থগিত করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সদস্য না হওয়ায় এখন আইসিসি আয়োজিত কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবে না দলটি। সংস্থার তহবিল থেকেও কোনো অর্থ পাবে না তারা।

গেল বৃহস্পতিবার লন্ডনে আইসিসির বোর্ডসভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেই এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অধিকন্তু জিম্বাবুইয়ানদের ক্রিকেটে দুর্নীতির বিষয়টিও মাথায় রেখেছেন তারা। এর পরই হতাশা প্রকাশ করেছেন সিকান্দার।

ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে তিনি বলেন, এ মুহূর্তে আমাদের সবার হৃদয় ভেঙে গেছে। সত্যি বলতে আমরা এখনও আতঙ্কিত। দেখুন আমাদের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার কিভাবে শেষ হয়ে গেল। এটা কেবল একজন খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে নয়, গোটা দেশের ক্রিকেটারদের জন্যই। আমি এটা সহজে মেনে নিতে পারছি না। আমি নিশ্চিত, আমার সতীর্থরাও তেমনটাই অনুভব করছে। আমরা এখন কি করব? কোথায় যাব? কোনো পথ কী আছে?

জিম্বাবুয়েতে ক্রিকেট বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন সিকান্দার। তিনি বলেন, আমাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে সেটা কতদিনের জন্য স্পষ্ট করে বলেনি আইসিসি। দুই বছরের স্থগিতাবস্থাও আমাদের অনেকের ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দেবে। কোন শর্তে বা কি কারণে আমাদের ক্রিকেট থেকে দূরে সরিয়ে দেয়া হলো সেটা অজানা। এখন যদি বোর্ড ঢেলে না সাজানো হয়, তা হলে গোটা দেশে ক্রিকেট বন্ধ হয়ে যাবে। আমি অবগত নই, কীভাবে এককভাবে এ সিদ্ধান্ত নেয়া যায়? তবে আমাদের ক্ষেত্রে সেটাই ঘটেছে।

সবশেষে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার বলেন, আমি জানি না, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে আমাদের এখন কোথায় যাওয়া উচিত। আমরা কি ক্লাবে খেলব? নাকি ক্রিকেটই আমাদের জন্য নয়? আমরা কি ক্রিকেটের সব পুড়িয়ে ফেলব এবং চাকরির সন্ধান করব? আমাদের ঠিক এখন কি করা উচিত; আমি জানি না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন