‘ইতিহাসে কোনো বিজয়ী অধিনায়ককে এভাবে সরিয়ে দেয়া হয়নি’

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৮:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

সৌরভ গাঙ্গুলি-গ্রেগ চ্যাপেল

২০০৫ সালে আচমকা অধিনায়কত্ব কেড়ে নেয়া ও দল থেকে বাদ দেয়ার বিষয়টিকে অগ্রহণযোগ্য এবং ক্ষমার অযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি। টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন বিস্ফোরক মন্তব্যই করেছেন মহারাজ।

আত্মজীবনী ‘এ সেঞ্চুরি ইজ নট এনাফ’ প্রকাশিত হওয়ার আগে বোমা ফাটালেন বর্তমান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি) প্রধান সৌরভ। সাক্ষাতকারে সাবেক কোচ গ্রেগ চ্যাপেলের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়েও মুখ খুলেছেন ‘প্রিন্স অব কলকাতা’।

সৌরভ বলেন, ‘২০০৪ সালে তৎকালীন কোচ জন রাইটের পর ভারতীয় কোচ কে হতে পারেন সেটা নিয়ে আমরা যখন চিন্তায় মগ্ন, তখনই গ্রেগ চ্যাপেলের কথা মাথায় আসে। মনে হয়েছিল আমাদের একনম্বরে পৌঁছে দিতে তিনিই যোগ্যতম ব্যক্তি। আমি পছন্দের কথা জগমোহন ডালমিয়াকে (তৎকালীন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট) জানাই, যদিও কেউ কেউ এ নিয়ে আমাকে নিষেধ করেছিলেন।’

ভারতের সাবেক অধিনায়ক সুনীল গাভাস্কারের কথা উল্লেখ করে সৌরভ বলেন, ‘সানি ভাই বলেছিলেন, সৌরভ ব্যাপারটা আরেকবার ভেবে দেখো। সে থাকলে দল পরিচালনায় তোমার সমস্যা হতে পারে। তার কোচিং রেকর্ডও আকর্ষণীয় নয়।’

সৌরভকে সতর্ক করেছিলেন বোর্ড সভাপতি ডালমিয়াও। তার কথায়, ‘এক সকালে নিজের বাড়িতে ডেকে গ্রেগের ভাই ইয়ান চ্যাপেলের নেতিবাচক ধারণা সম্পর্কে সতর্ক করেছিলেন ডালমিয়া। কিন্তু এসব কথায় কান না দিয়ে নিজের সিদ্ধান্তে অবিচল ছিলাম। বাকিটা ইতিহাস। আমার জীবনটা এরকমই। অস্ট্রেলিয়া গিয়ে যেমন সে দেশ জয় করে ফিরেছিলাম, কিন্তু সেদেশের একজন নাগরিককেই জয় করতে পারিনি।’

ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম সফল অধিনায়ক বলেন, ‘২০০৫ সালটা আমার জীবনের দুর্যোগপূর্ণ অধ্যায়। শুধু মাত্র অধিনায়কত্বই কেড়ে নেয়া হয়নি, দল থেকেও বাদ দেয়া হয়। এখন লিখতে গিয়ে রাগ হচ্ছে। যা হয়েছিল তা অভাবনীয়। অগ্রহণযোগ্য। ক্ষমার অযোগ্য। ইতিহাসে কোনো বিজয়ী অধিনায়ককে এভাবে সরিয়ে দেয়া হয়নি। এমনকি টেস্টে সেঞ্চুরি করার পর। ভারতীয় ক্রিকেটে এমন ঘটনা অভূতপূর্ব এবং ভবিষ্যতেও হবে কিনা সন্দেহ।’ ওয়েবসাইট।

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.