ঢাকা থেকে বরিশাল আশরাফুলের ইচ্ছা পূরণ

  আল-মামুন ০৮ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০২ | অনলাইন সংস্করণ

মোহাম্মদ আশরাফুল
মোহাম্মদ আশরাফুল। ফাইল ছবি

জাতীয় লিগে ক্রিকেটাররা সাধারণত নিজেদের বিভাগের হয়েই খেলে থাকেন। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ঢাকা মহানগরের হয়ে খেলেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। কিন্তু ফিটনেস টেস্ট আর পারফরম্যান্স বিবেচনায় দল নির্বাচন করেছে বিসিবি। দীর্ঘদিন ঢাকা মেট্রোর হয়ে খেলা মোহাম্মদ আশরাফুলের জায়গা হয়নি নিজের বিভাগের দলে।

আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া এনসিএলে বরিশালের হয়ে খেলবেন বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ এ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় লিগ খেলতে ঢাকা থেকে বাসযোগে রাজশাহী যাওয়ার পথে ছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

সে সময় যুগান্তরকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক এনসিএল, ঘরোয়া ক্রিকেটসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন। তার চুম্বক অংশ এখানে তুলে ধরা হল। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন স্পোর্টস রিপোর্টার আল-মামুন

যুগান্তর: প্রায় বিশ বছর হল ঢাকা মেট্রোর হয়ে জাতীয় লিগ খেলছেন। অথচ ক্যারিয়ারের অন্তিম মুহূর্তে এসে নিজের বিভাগের হয়ে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন না। এ ব্যাপারে আপনার অভিমত?

মোহাম্মদ আশরাফুল: আমি অনেক দিন ধরেই চাচ্ছি ঢাকার বাইরের কোনো দলের হয়ে খেলতে। আমার সেই চাওয়া পূরণ হতে যাচ্ছে। দীর্ঘদিন ঢাকা মেট্রোর হয়ে খেলেছি। এবার বরিশালের হয়ে খেলতে চাই। আশা করছি নতুন দলের নতুন পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে সেরাটা উজাড় করে দিতে পারব। বরিশালকে ধন্যবাদ আমাকে খেলার সুযোগ করে দেয়ার জন্য।

যুগান্তর: জাতীয় লিগের এবারের আসর নিয়ে হাইফ তৈরি হয়েছে। ক্রিকেট বোর্ডও চাচ্ছে এবার যাতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়ে....?

আশরাফুল: আমাদের কাছেও তাই মনে হচ্ছে। অন্য আসরগুলোর চেয়ে এবারের জাতীয় লিগ আরও বেশি জমজমাট হবে। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা প্রথম দুই রাউন্ড খেলার সুযোগ পাবেন। তাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়বে। মিডিয়ার ফোকাসও বেশি থাকবে।

যুগান্তর: জাতীয় লিগের দল চূড়ান্ত করার আগে বিপ টেস্ট হল, সেটা নিয়ে যদি বলেন..।

আশরাফুল: শুধু এবারই নয়! জাতীয় লিগের গত আসরের আগেও বিপ টেস্ট হয়েছিল। সেবার বলা হয়েছিল ৯-এর নিচে নাম্বার পেলে সুযোগ দেয়া হবে না। এবার নির্ধারণ করা হয়েছে ১১। আমাদের যদি আগ থেকে বলা হতো বিপ টেস্টে ১১ নাম্বার পেয়ে পাস করতে হবে। তাহলে আগ থেকেই সচেতন হতাম। তাছাড়া আগামী বছর বিপ টেস্টে কততে পাস করতে হবে তা আগে জানিয়ে দিলে ভালো হবে। তবে যাই বলেন, বিপ টেস্ট হওয়াতে ভালোই হয়েছে। সবাই ফিট থেকেই জাতীয় লিগে খেলতে পারবে।

যুগান্তর: জাতীয় লিগের আগের আসরগুলোর চেয়ে এবারের লিগে কেমন পার্থক্য দেখছেন?

আশরাফুল: আমার কাছে মনে হয় আগের আসরগুলোর চেয়ে এবার বেশ প্রতিযোগিতা হবে। জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা থাকবে। বিপ টেস্ট হওয়াতে সবাই ফিট থেকেই খেলা শুরু করতে পারবে। আগের চেয়ে এবার বেশি ফোকাস থাকবে। সবাই নিজেকে প্রমাণ করতে চাইবে।

যুগান্তর: ঘরোয়া ক্রিকেটের উইকেট নিয়ে অনেক কথা হয়। উইকেটগুলো আন্তর্জাতিক মানের করার দাবিও সেই পুরনো। এ ব্যাপারে আপনি কি বলবেন?

মোহাম্মদ আশরাফুল: আগামী মাসেই জাতীয় দলের ভারত সফর রয়েছে। ভারতে যাওয়ার আগে ক্রিকেটাররা এনসিএলে খেলেই তাদের প্রস্তুতি জোরদার করবেন। জাতীয় লিগে যদি আন্তর্জাতিক মানের উইকেটে খেলা হয়। তারা সেই উইকেটে খেলে অভ্যস্ত হন তাহলে শুধু ভারত কেন! বিশ্বের যে কোনো উইকেটে খেলার অভ্যাস তৈরি হবে। অদূর ভবিষ্যতে এর ফল পাবে বাংলাদেশ দল।

যুগান্তর: ২১তম জাতীয় লিগে আপনাদের বরিশালের দলটি কেমন হল?

মোহাম্মদ আশরাফুল: আলহামদুলিল্লাহ টিম ভালো হয়েছে। শাহরিয়ার নাফীস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, কামরুল ইসলাম রাব্বি, সোহাগ গাজীর মতো জাতীয় দলের পরীক্ষিত ক্রিকেটাররা আছেন। আমি আছি। আরও বেশকিছু ভালো মানের ক্রিকেটার রয়েছে। অধিনায়ক হিসেবে ফজলে রাব্বি থাকছে। আশা করছি প্রত্যাশিত ক্রিকেট খেলতে পারব।

যুগান্তর: জাতীয় লিগে ব্যক্তিগতভাবে আপনার টার্গেট কী?

মোহাম্মদ আশরাফুল: লিগে ভালো খেলাই টার্গেট। সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছি। এখন দেখা যাক কি হয়। মন থেকেই চাইব টিম ম্যানেজমেন্টের প্রত্যাশার চেয়েও বেটার ক্রিকেট খেলতে।

যুগান্তর: সবশেষ বিশ্বকাপের সময় আপনি ইংল্যান্ডেই ছিলেন। কাছ থেকে বিশ্বকাপ দেখার সুযোগ পেয়েছেন। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যদি মূল্যায়ন করতেন।

মোহাম্মদ আশরাফুল: বিশ্বকাপে আমাদের রেজাল্ট দেখলে মনে হয় ভালো হয়নি। তবে ম্যাচ টু ম্যাচ বিবেচনা করলে আমার মনে হয় ভালোই হয়েছে। শেষ দুই-তিনটি ম্যাচ বাদ দিলে আমরা প্রতিটি ম্যাচেই প্রতিপক্ষের সঙ্গে সমানতালে লড়াই করেছি। দু’একটি ম্যাচে আমরা জয়ের জোর সম্ভাবনা তৈরি করেও শেষ পর্যন্ত হেরে গেছি। সেই ম্যাচগুলোতে জয় পেলে রেজাল্ট আরও ভালো হতে পারত।

যুগান্তর: সম্প্রতি ক্যাসিনো ঘটনায় কলঙ্কিত হয়েছে দেশের ক্রীড়াঙ্গন। মোহামেডানসহ বেশ কিছু ক্লাব এই ক্যাসিনোর টাকায় অতীতে টিম গঠন করেছে। আসন্ন প্রিমিয়ারে সেই ক্লাবগুলো দল গঠন নিয়ে আর্থিক সংকটে রয়েছে। এর প্রভাব ক্রিকেটারদের ওপর পড়বে। বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক হিসেবে এ ব্যাপারে আপনি কি বলবেন?

মোহাম্মদ আশরাফুল: আসলে এ বিষয়ে আমি মন্তব্য করতে চাই না। এটা সংশ্লিষ্ট ক্লাবের কর্মকর্তা এবং ক্রিকেট বোর্ডই ভালো বলতে পারবে।

ঘটনাপ্রবাহ : জাতীয় লিগ-২০১৯

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×