কোয়ালিটির দিক থেকে ভারত-বাংলাদেশ সমান: মামুনুল ইসলাম

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:২৯ | অনলাইন সংস্করণ

মামুনুল ইসলাম
মামুনুল ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মামুনুল ইসলাম বলেছেন, কোয়ালিটির দিক থেকে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই।

ভারতীয় জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম এনটিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমনটি বলেছেন জাতীয় দলের এ তারকা ফুটবলার।

মঙ্গলবার কলকাতার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়া কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচে র‌্যাংকিংয়ে ৮৩ ধাপ এগিয়ে থাকা ভারতের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে বাংলাদেশ। পয়েন্ট ভাগাভাগিতে বাংলাদেশেরই বেশি হতাশ হওয়ার কথা। কলকাতার মাঠে ফেভারিট ভারতকে কাঁপিয়ে দিয়ে অসাধারণ ফুটবল খেলেছে জেমি ডে’র দল।

এই ম্যাচে মাঠে নামা হয়নি মামুনুলের। সাবেক এ অধিনায়ক জাতীয় দলের খেলায় মুগ্ধ। তিনি বলেন, আমরা ভারতের বিপক্ষে ভালো খেলেছি। সুযোগ নষ্ট না করলে আমরা জিততেও পারতাম। তবে এই এক পয়ে‌ন্ট আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে।

বাংলাদেশ ফুটবল দল নিয়ে মামুনুল বলেন, বাংলাদেশের ফুটবলও উন্নতি হয়েছে। বিশেষ করে ক্লাব পর্যায়ে। এএফসি ক্লাব কাপে আবাহনী সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল বড় ক্লাবকে হারিয়েই। যেখানে ভারতীয় ফুটবলে ক্লাবগুলোর রমরমা সবার জানা, আমরা তাদের হারিয়েছিলাম। তারপর থেকে এশিয়ার সেরা দলগুলোর মধ্যে আমাদের নাম ঢুকে পড়ে। কাতারের সঙ্গে ১-০ গোলে হারছিলাম, শেষে গোল হজম করতে হল। কিন্তু সেই ম্যাচটা আমরা ভালো খেলেছিলাম। এটাই প্রমাণ, আমরা উন্নতি করছি।

ভারতের সঙ্গে ড্র করা নিয়ে মামুনুল বলেছেন, আগাম বলা খুব মুশকিল, কে সেরা! র‍্যাঙ্কিং খুব একটা এ ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলে না। তবে ভারত-বাংলাদেশ সব সময়ই হাইভোল্টেজ ম্যাচ। ওই ৯০ মিনিট যে সেরাটা দেবে, সেই জিতবে।

মামুনুল আরও বলেন, ভারত আমাদের থেকে এগিয়ে পরিকাঠামোতে। ভারতের ফুটবলের পরিবেশ বদলেছে। সেরা সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে ভারতীয় ফুটবল দলকে। প্লেয়ারদের ক্ষেত্রে কিন্তু সুনীল ছেত্রী ছাড়া কোয়ালিটির দিক থেকে আমাদের আর ভারতীয় ফুটবলারদের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই।

তিনি বলেন, যদি ভালো করে লক্ষ্য করেন, তাহলে দেখবেন, ভারতের পজিটিভ আক্রমণগুলো কিন্তু সুনীলের ভূমিকাতেই এসেছে। ওই আক্রমণ তৈরি করেছে। আগে অনেক কম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতাম। এখন চেষ্টা করা হচ্ছে, বেশি করে খেলতে। ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে আসার আগে আমরা প্র্যাকটিস ম্যাচও খেলেছি; যেটা আগে হত না।

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেন, বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন না করলেও এই খেলা থেকেও তো আমরা উন্নতি করতে পারি। গতবার কোয়ালিফায়ার থেকে যদি এক পয়েন্ট পেয়ে থাকি আর এবার যদি তিন পয়েন্টে শেষ করি, তাহলে সেটাই আমাদের উন্নতি।

তিনি বলেন, আমি যখন অধিনায়ক ছিলাম তখন আমরা ‘অ্যাটাকিং ফুটবল' খেলতাম। বেশ কিছু ভালো ম্যাচ খেলেছি। এখন আমরা ‘কাউন্টার অ্যাটাক' নির্ভর ফুটবল খেলি। সেখানে বড় বড় ম্যাচে ফল পাচ্ছি। পার্থক্য এটাই। আসল তো রেজাল্ট।

জাতীয় দলের এ তরকা ফুটবলার আরও বলেন, কলকাতার ফুটবল নিয়ে পাগলামির কথা গোটা বিশ্ব জানে। সেটা বদলায়নি। একই আছে। আর ওরা যখন গ্যালারি থেকে চিৎকার করেন, তখন মনে হয় আমার জন্য করছে। আর এটাই উৎসাহ যোগায়।

ভারতের বিপক্ষে দাপুটে ফুটবল খেলা নিয়ে বলেন, আমরা কোনও সুযোগ দিইনি ভারতকে। সুযোগ কাজে লাগিয়েছি। আবার অনেক সুযোগ কাজেও লাগাতে পারিনি। ভারত তেমন ভাবে সুযোগ পায়নি। ছেত্রীর নিশ্চিত গোল দুটো সেভ হয়ে যাওয়াটাই আমাদের খেলায় ভীষণ ভাবে রেখে দিয়েছিল। আমার মনে হয় আমাদের ৯০ মিনিটের ফুটবল দেখে তারা খুশি। কলকাতার ৫০ শতাংশ মানুষই তো বাংলাদেশের। সামনাসামনি সমর্থন করতে না পারলেও মনে মনে নিশ্চয়ই করে (হাসি)।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×