শ্রীলংকাকে ধন্যবাদ আফ্রিদির
jugantor
শ্রীলংকাকে ধন্যবাদ আফ্রিদির

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ১৬:৩৩:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে পাকিস্তানে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। ১০ বছর আগে শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর সেখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সেই লংকানদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই দেশটিতে ফিরছে ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণ। তাই তাদের কাছে সাবেক তারকা পাক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

২০০৯ সালের মার্চে লাহোরে টিম শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তান থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নির্বাসনে যায়। তবে দেশের মাটিতে ক্রিকেট ফেরাতে চেষ্টার কমতি ছিল পাক বোর্ডের (পিসিবি)।বিভিন্ন সময়ে বিদেশি দল এনে ঘরের মাঠে সীমিত ওভারের ম্যাচ আয়োজন করেছে তারা।

এসময়ে পাকিস্তান সফর করে গেছে জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলংকা। বিশ্ব একাদশও খেলে গেছে সেখানে। তবে এই ১০ বছরে দেশটিতে টেস্ট ক্রিকেট হয়নি, কেউ খেলেওনি।

অবশেষে অনেক নাটকের পর ২ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তানে পৌঁছেছে শ্রীলংকা। আগামী ১১ ডিসেম্বর রাওয়ালপিন্ডিতে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্ট গড়াবে করাচিতে,১৯ ডিসেম্বর।

এতদিন পর আবারো ঘরের মাঠে বসে টেস্ট ম্যাচ দেখতে পারবেন পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমীরা। স্বাভাবিকভাবেই আবেগাপ্লুত আফ্রিদি। পিসিবির ওয়েবসাইটে তিনি বলেন, আমি শ্রীলংকাকে ধন্যবাদ দিতে চাই। একই সঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকেও ধন্যবাদ জানাই। দেশে টেস্ট ক্রিকেট ফেরাতে  নিরলস প্রচেষ্টা চালাচ্ছে তারা।

লংকার মতো এভাবে অন্য দেশগুলোকেও পাকিস্তানের সাহায্যে এগিয়ে আসতে অনুরোধ করেছেন আফ্রিদি। বুমবুমখ্যাত ক্রিকেটার বলেন,প্রতি দেশের উচিত এভাবে একে অন্যকে সহায়তা করা। অতীতে আমরা শ্রীলংকাকে সাহায্য করেছি। এবার প্রতিদান দিচ্ছে তারা।

শ্রীলংকাকে ধন্যবাদ আফ্রিদির

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে পাকিস্তানে ফিরছে টেস্ট ক্রিকেট। ১০ বছর আগে শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর সেখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সেই লংকানদের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই দেশটিতে ফিরছে ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণ। তাই তাদের কাছে সাবেক তারকা পাক অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

২০০৯ সালের মার্চে লাহোরে টিম শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তান থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নির্বাসনে যায়। তবে দেশের মাটিতে ক্রিকেট ফেরাতে চেষ্টার কমতি ছিল পাক বোর্ডের (পিসিবি)।বিভিন্ন সময়ে বিদেশি দল এনে ঘরের মাঠে সীমিত ওভারের ম্যাচ আয়োজন করেছে তারা।

এসময়ে পাকিস্তান সফর করে গেছে জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলংকা। বিশ্ব একাদশও খেলে গেছে সেখানে। তবে এই ১০ বছরে দেশটিতে টেস্ট ক্রিকেট হয়নি, কেউ খেলেওনি।

অবশেষে অনেক নাটকের পর ২ ম্যাচ টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তানে পৌঁছেছে শ্রীলংকা। আগামী ১১ ডিসেম্বর রাওয়ালপিন্ডিতে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট। দ্বিতীয় টেস্ট গড়াবে করাচিতে,১৯ ডিসেম্বর।

এতদিন পর আবারো ঘরের মাঠে বসে টেস্ট ম্যাচ দেখতে পারবেন পাকিস্তানের ক্রিকেটপ্রেমীরা। স্বাভাবিকভাবেই আবেগাপ্লুত আফ্রিদি। পিসিবির ওয়েবসাইটে তিনি বলেন, আমি শ্রীলংকাকে ধন্যবাদ দিতে চাই। একই সঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকেও ধন্যবাদ জানাই। দেশে টেস্ট ক্রিকেট ফেরাতে নিরলস প্রচেষ্টা চালাচ্ছে তারা।

লংকার মতো এভাবে অন্য দেশগুলোকেও পাকিস্তানের সাহায্যে এগিয়ে আসতে অনুরোধ করেছেন আফ্রিদি। বুমবুমখ্যাত ক্রিকেটার বলেন,প্রতি দেশের উচিত এভাবে একে অন্যকে সহায়তা করা। অতীতে আমরা শ্রীলংকাকে সাহায্য করেছি। এবার প্রতিদান দিচ্ছে তারা।