সমর্থকদের কাছে মুশফিকের দুঃখপ্রকাশ
jugantor
সমর্থকদের কাছে মুশফিকের দুঃখপ্রকাশ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৮ জানুয়ারি ২০২০, ০১:২২:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বিপিএল সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছেন খুলনা টাইগার্সের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। বিপিএল ফাইনালে রাজশাহী রয়েলসের বিপক্ষে ১৭১ রানের টার্গেট তাড়ায় ২১ রানে হেরে ট্রফি হাতছাড়া করেছে খুলনা।

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামেফাইনাল ম্যাচ শেষে মুশফিক বলেছেন, আবারও কখনো ফাইনালে উঠলে আমি অবশ্যই ভালো করা চেষ্টা করব। পুরো আসর জুড়ে অনেক স্মৃতি জড়ো রয়েছে। আশা করি বিপিএল আগামী আসরেএখনকার চেয়ে ভালো দল গঠন করে চ্যাম্পিয়ন হব।

মুশফিক আরও বলেছেন, সতীর্থদের ধন্যবাদ, দেড় মাস সবাই বিপিএলে খেলেছি। ফাইনালে ভালো ম্যাচ প্রত্যাশা ছিল। যদিও আমরা হেরে গেছি। যদিও ওদের ১৫-২০ রান কমেই আটকে রাখতে পারতাম, হয়ত ফল আমাদের পক্ষে আসত। ১৬ ওভার পর্যন্ত আমরা ভালো বল করেছি। এরপর ক্যাচ ড্রপ আর বেশি রান দেয়ার মাশুল গুনতে হয়েছে।

তিনি আরও বলেছেন, একাদশে ৭ জনই দেশি খেলোয়াড়, তাই স্থানীয় ক্রিকেটারদের ভালো করা আবশ্যক। বিদেশি ক্রিকেটাররাও ভালো পারফর্ম করেছে। তবে ফাইনালে আমরা যথেষ্ট ভালো করতে পারিনি। সতীর্থ ও কোচিং স্টাফদের ধন্যবাদ দিতে চাই, টুর্নামেন্টজুড়ে অনেক অবদান রেখেছে সবাই।

মুশফিক আরও বলেন, ফাইনালে যেমন ভালো খেলা উচিত ছিল, ততটা ভালো আমরা খেলতে পারিনি। বোলিংয়ে প্রথম ১৬ ওভার পর্যন্ত আমাদের ভালোই ছিল। কিন্তু শেষ দিকে গিয়ে তা আর ভালো থাকেনি। আমরা ভালো বল করিনি ঐ গুরুত্বপূর্ণ সময়ে।

সমর্থকদের কাছে মুশফিকের দুঃখপ্রকাশ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৮ জানুয়ারি ২০২০, ০১:২২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিপিএল সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছেন খুলনা টাইগার্সের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। বিপিএল ফাইনালে রাজশাহী রয়েলসের বিপক্ষে ১৭১ রানের টার্গেট তাড়ায় ২১ রানে হেরে ট্রফি হাতছাড়া করেছে খুলনা। 

শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচ শেষে মুশফিক বলেছেন, আবারও কখনো ফাইনালে উঠলে আমি অবশ্যই ভালো করা চেষ্টা করব। পুরো আসর জুড়ে অনেক স্মৃতি জড়ো রয়েছে। আশা করি বিপিএল  আগামী আসরে এখনকার চেয়ে ভালো দল গঠন করে চ্যাম্পিয়ন হব।

মুশফিক আরও বলেছেন, সতীর্থদের ধন্যবাদ, দেড় মাস সবাই বিপিএলে খেলেছি। ফাইনালে ভালো ম্যাচ প্রত্যাশা ছিল। যদিও আমরা হেরে গেছি। যদিও ওদের ১৫-২০ রান কমেই আটকে রাখতে পারতাম, হয়ত ফল আমাদের পক্ষে আসত। ১৬ ওভার পর্যন্ত আমরা ভালো বল করেছি। এরপর ক্যাচ ড্রপ আর বেশি রান দেয়ার মাশুল গুনতে হয়েছে।

তিনি আরও বলেছেন, একাদশে ৭ জনই দেশি খেলোয়াড়, তাই স্থানীয় ক্রিকেটারদের ভালো করা আবশ্যক। বিদেশি ক্রিকেটাররাও ভালো পারফর্ম করেছে। তবে ফাইনালে আমরা যথেষ্ট ভালো করতে পারিনি। সতীর্থ ও কোচিং স্টাফদের ধন্যবাদ দিতে চাই, টুর্নামেন্টজুড়ে অনেক অবদান রেখেছে সবাই।

মুশফিক আরও বলেন, ফাইনালে যেমন ভালো খেলা উচিত ছিল, ততটা ভালো আমরা খেলতে পারিনি। বোলিংয়ে প্রথম ১৬ ওভার পর্যন্ত আমাদের ভালোই ছিল। কিন্তু শেষ দিকে গিয়ে তা আর ভালো থাকেনি। আমরা ভালো বল করিনি ঐ গুরুত্বপূর্ণ সময়ে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বঙ্গবন্ধু বিপিএল-২০১৯

১৭ জানুয়ারি, ২০২০