শোয়েবের অভিষেক ম্যাচে বাবর আজম ৪ বছরের শিশু

  আল-মামুন ২১ জানুয়ারি ২০২০, ২০:৫৪:২০ | অনলাইন সংস্করণ

শোয়েব মালিক-বাবর আজম। ফাইল ছবি

পাকিস্তানের বর্তমান দলে সুযোগ পাওয়া শোয়েব মালিক এবার খেলবেন বাবর আজমের নেতৃত্বে।
পাকিস্তান ক্রিকেটের বর্তমান সময়ের সিনিয়র ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের যখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তখন বাবর আজমের বয়স ছিল মাত্র ৪ বছর। অথচ সেই বাবরই এখন পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক।

বাবর আজমের নেতৃত্বে ২৪ জানুয়ারি লাহোরে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে রয়েছেন ৩৮ বছর ছুঁই ছুঁই শোয়েব মালিক।

১৯৯৯ সালের ১৪ অক্টোবর আরব আমিরাতের শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ওয়ানডে ম্যাচের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয়েছিল শোয়েব মালিকের। অভিষেকে তিনি খেলেছিলেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরামের নেতৃত্বে।

দুই দশক হল পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন শোয়েব মালিক। জাতীয় দলের হয়ে ৩টি টেস্ট, ৪১টি ওয়ানডে আর ২০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেতৃত্ব দেন তিনি। শোয়েব মালিকের নেতৃত্বে ২৫টি ওয়ানডে আর ১৩টি টি-টোয়েন্টিতে জয় পায় পাকিস্তান।

পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি মিলে গত ২০ বছরে ৪৩৩টি ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে ১২টি সেঞ্চুরি আর ৫৯টি ফিফটির সাহায্যে ইতিমধ্যে ১১ হাজার ৬৯৫ রান করেছেন মোয়েব মালিক। আর অফ স্পিনে শিকার করেছেন ২১৮ উইকেট।

৩৭ বছর ৩৫৪ দিন বয়সী এ অলরাউন্ডার এখনও দুর্দান্ত পারফর্ম করে যাচ্ছেন। ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস, মঈন খান, সাঈদ আনোয়ার, আমির সোহেল, রশিদ লতিফ, মোহাম্মদ ইউসুফ, ইউনুস খান, আব্দুল রাজ্জাক, মিসবাহ-উল-হক, শহীদ আফ্রিদি, মোহাম্মদ হাফিজ এবং সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বে খেলেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিক। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৫ বছর বয়সী তরুণ বাবর আজমের নেতৃত্বে খেলবেন তিনি।

অবশ্য সেই চার বছর বয়স থেকেই ক্রিকেট খেলছেন বাবর আজম। ২০১২ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ২০১৫ সালের মে মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় বাবর আজমের। জাতীয় দলে অভিষেকের পর থেকেই ধারবাহিক পারফর্ম করে যাচ্ছেন তিনি।

ইতিমধ্যে জাতীয় দলের হয়ে ২৫টি টেস্ট, ৭৪টি ওয়ানডে আর ৩৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন বাবর আজম। জাতীয় দলের হয়ে তিন ফরম্যাটে ১৩৫ ম্যাচে ১৫টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ইতিমধ্যে ৬ হাজার ৪৭১ রান করেছেন। তার দুই চাচাতো ভাই কামরান আকমল ও উমর আকমল জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন।

সাম্প্রতিক সময়ে ধারাবাহিক পারফর্ম করে যাচ্ছেন বাবর আজম। পাকিস্তানের এ তারকা ব্যাটসম্যান ২০১৯ সালে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলির চেয়েও বেশি রান সংগ্রহ করেছেন। ৬টি টেস্ট ম্যাচে অংশ নিয়ে ৩ সেঞ্চুরি ও তিন ফিফটির সাহায্যে ৬১৬ রান করেছেন বাবর আজম।

অন্যদিকে ভারতীয় তারকা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি গত বছরে ৮টি টেস্ট খেলে দুই সেঞ্চুরি ও সমান ফিফটিতে ৬১২ রান করেছেন। কোহলির চেয়ে দুই টেস্ট কম খেলে ৪ রান বেশি করেন বাবর।

ক্রিকেট বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন বিরাটের মতো পর্যাপ্ত ম্যাচ খেলার সুযোগ পেলে কোহলিকেও ছাড়িয়ে যাবেন বাবর আজম।

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর-২০২০

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত