বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ খেলে শোয়েব মালিকের রেকর্ড
jugantor
বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ খেলে শোয়েব মালিকের রেকর্ড

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ জানুয়ারি ২০২০, ২২:১৯:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

লাহোরে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিয়ে ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লেখালেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তানের এ সাবেক অধিনায়ক টানা চার দশক ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। 

১৯৯৯ সালের অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয় শোয়েব মালিকের। এরপর থেকেই জাতীয় দলে নিয়মিত খেলে আসছেন এ তারকা অলরাউন্ডার। আলাদা আলাদা চারটি দশকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা হয়ে গেল তার। 

আলাদা চারটি দশকে পাকিস্তানের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার ইতিহাস গড়েছেন শোয়েব মালিক। তার আগে বিশ্বের সাতজন ক্রিকেটার এ রেকর্ড গড়েন। তারা হলেন শচীন টেন্ডুলকার, সনাৎ জয়াসুরিয়া, উইলফ্রেড রোডস, ব্রায়ান ক্লোজ, ফ্র্যাঙ্ক উলি, জ্যাক হবস ও জর্জ গান।

১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ে শ্রীলংকার অন্যতম নায়ক ছিলেন সনাৎ জয়াসুরিয়া। শোয়েব মালিক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ফিটনেসের কারণেই শোয়েব মালিক তার ক্যারিয়ারকে এত দূর টেনে আনতে পেরেছে। অবিশ্বাস্যরকম ফিট না হলে এতদিন টেকা সম্ভব নয়।

এই অর্জনকে খুব কঠিন বলতেই হয়। এ রকম লম্বা ক্যারিয়ার খুব কম ক্রিকেটারের আছে। 
১৯৯৯ সালের ১৪ অক্টোবর আরব আমিরাতের শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ওয়ানডে ম্যাচের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয়েছিল শোয়েব মালিকের। অভিষেকে তিনি খেলেছিলেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরামের নেতৃত্বে।

দুই দশক হল পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন শোয়েব মালিক। জাতীয় দলের হয়ে ৩টি টেস্ট, ৪১টি ওয়ানডে আর ২০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেতৃত্ব দেন তিনি। শোয়েব মালিকের নেতৃত্বে ২৫টি ওয়ানডে আর ১৩টি টি-টোয়েন্টিতে জয় পায় পাকিস্তান।

পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি মিলে গত ২০ বছরে ৪৩৩টি ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে ১২টি সেঞ্চুরি আর ৫৯টি ফিফটির সাহায্যে ইতিমধ্যে ১১ হাজার ৬৯৫ রান করেছেন মোয়েব মালিক। আর অফ স্পিনে শিকার করেছেন ২১৮ উইকেট।

৩৭ বছর ৩৫৪ দিন বয়সী এ অলরাউন্ডার এখনও দুর্দান্ত পারফর্ম করে যাচ্ছেন। ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস, মঈন খান, সাঈদ আনোয়ার, আমির সোহেল, রশিদ লতিফ, মোহাম্মদ ইউসুফ, ইউনুস খান, আব্দুল রাজ্জাক, মিসবাহ-উল-হক, শহীদ আফ্রিদি, মোহাম্মদ হাফিজ এবং সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বে খেলেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিক। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৫ বছর বয়সী তরুণ বাবর আজমের নেতৃত্বে খেলবেন তিনি।

সূত্র: ক্রিকেট পাকিস্তান ডটকম

বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ খেলে শোয়েব মালিকের রেকর্ড

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১০:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

লাহোরে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিয়ে ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লেখালেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তানের এ সাবেক অধিনায়ক টানা চার দশক ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন।

১৯৯৯ সালের অক্টোবরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয় শোয়েব মালিকের। এরপর থেকেই জাতীয় দলে নিয়মিত খেলে আসছেন এ তারকা অলরাউন্ডার। আলাদা আলাদা চারটি দশকে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা হয়ে গেল তার।

আলাদা চারটি দশকে পাকিস্তানের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার ইতিহাস গড়েছেন শোয়েব মালিক। তার আগে বিশ্বের সাতজন ক্রিকেটার এ রেকর্ড গড়েন। তারা হলেন শচীন টেন্ডুলকার, সনাৎ জয়াসুরিয়া, উইলফ্রেড রোডস, ব্রায়ান ক্লোজ, ফ্র্যাঙ্ক উলি, জ্যাক হবস ও জর্জ গান।

১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ে শ্রীলংকার অন্যতম নায়ক ছিলেন সনাৎ জয়াসুরিয়া। শোয়েব মালিক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ফিটনেসের কারণেই শোয়েব মালিক তার ক্যারিয়ারকে এত দূর টেনে আনতে পেরেছে। অবিশ্বাস্যরকম ফিট না হলে এতদিন টেকা সম্ভব নয়।

এই অর্জনকে খুব কঠিন বলতেই হয়। এ রকম লম্বা ক্যারিয়ার খুব কম ক্রিকেটারের আছে।
১৯৯৯ সালের ১৪ অক্টোবর আরব আমিরাতের শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজে ওয়ানডে ম্যাচের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিকে অভিষেক হয়েছিল শোয়েব মালিকের। অভিষেকে তিনি খেলেছিলেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরামের নেতৃত্বে।

দুই দশক হল পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন শোয়েব মালিক। জাতীয় দলের হয়ে ৩টি টেস্ট, ৪১টি ওয়ানডে আর ২০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নেতৃত্ব দেন তিনি। শোয়েব মালিকের নেতৃত্বে ২৫টি ওয়ানডে আর ১৩টি টি-টোয়েন্টিতে জয় পায় পাকিস্তান।

পাকিস্তানের হয়ে টেস্ট, ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি মিলে গত ২০ বছরে ৪৩৩টি ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে ১২টি সেঞ্চুরি আর ৫৯টি ফিফটির সাহায্যে ইতিমধ্যে ১১ হাজার ৬৯৫ রান করেছেন মোয়েব মালিক। আর অফ স্পিনে শিকার করেছেন ২১৮ উইকেট।

৩৭ বছর ৩৫৪ দিন বয়সী এ অলরাউন্ডার এখনও দুর্দান্ত পারফর্ম করে যাচ্ছেন। ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস, মঈন খান, সাঈদ আনোয়ার, আমির সোহেল, রশিদ লতিফ, মোহাম্মদ ইউসুফ, ইউনুস খান, আব্দুল রাজ্জাক, মিসবাহ-উল-হক, শহীদ আফ্রিদি, মোহাম্মদ হাফিজ এবং সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বে খেলেছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শোয়েব মালিক। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৫ বছর বয়সী তরুণ বাবর আজমের নেতৃত্বে খেলবেন তিনি।

সূত্র: ক্রিকেট পাকিস্তান ডটকম

 

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর-২০২০