ব্যাটিং স্বর্গে ব্যর্থ মিঠুন

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

মিঠুন

উইকেট পরিণত হয়েছে ব্যাটিং স্বর্গে। বল সোজা ব্যাটে আসছে। স্বভাবতই দারুণ ব্যাটিং করছেন মুশফিকুর রহিম। ব্যাটকে তলোয়ার বানিয়ে জিম্বাবুয়ে বোলারদের কচুকাটা করছেন তিনি। তাদের খড়কুটোর মতো উড়িয়ে দিচ্ছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

সেখানে ব্যর্থ হলেন মোহাম্মদ মিঠুন। মুশফিককে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারলেন না তিনি। যদিও শুরুটা করেন ঝলক দেখিয়ে। তবে ব্যক্তিগত ১৭ রানে থেমে গেলেন মিডলঅর্ডার ব্যাটার। শিকারী সেই এনদিলোভু।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪৩০ রান। ইতিমধ্যে ১৬৫ রানের লিড নিয়েছেন টাইগাররা। স্বভাবতই বড় লিডের পথে স্বাগতিকরা। মুশফিক আছেন দেড়শত রানের দোরগোড়ায়। ১৪৩ রান নিয়ে ক্রিজে রয়েছেন তিনি। তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে এসেছেন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান লিটন দাস।

আগের দিনের ৩ উইকেটে ২৪০ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে বাংলাদেশ। সোমবার মুমিনুল হক ৭৯ এবং মুশফিক ৩২ রান নিয়ে খেলার গোড়াপত্তন করেন। নেমে স্বচ্ছন্দে খেলতে থাকেন তারা। শক্তভাবে ক্রিজে সেট হয়ে যান এ জুটি। স্বভাবতই ছন্দময় ব্যাটিং উপহার দেন মুমিনুল-মুশফিক।

জিম্বাবুয়ে বোলারদের রীতিমতো তোপ দাগান তারা। ব্যাটে স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটিয়ে পথিমধ্যে টেস্ট ক্যারিয়ারে নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন মুমিনুল। তবে অধিনায়ক হিসেবে এটি তার প্রথম তিন অংক ছোঁয়া ইনিংস। ডোনাল্ড তিরিপানোকে বাউন্ডারি মেরে এ শতক হাঁকান তিনি।

ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৯ সেঞ্চুরির মালিক তামিম ইকবাল। এদিন দুর্দান্ত শতক দিয়ে সেই রেকর্ডে ভাগ বসান মুমিনুল। এর সুবাদে ক্রিকেটের লংগার ভার্সনে পয়েট অব ডায়নামোর সেঞ্চুরি সংখ্যাও দাঁড়ায় ৯টি।

এরপর ধীরে ধীরে সেঞ্চুরির পথে এগিয়ে যান মুশফিক। দোর্দণ্ড প্রতাপে তা হাঁকান তিনি। লাঞ্চের পর এন্সলে এনদিলোভুকে গালি দিয়ে চার মেরে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। এটি তার টেস্ট ক্যারিয়ারে সপ্তম সেঞ্চুরি। মুশির সবশেষ সেঞ্চুরিও জিম্বাবুইয়ানদের বিপক্ষে। গেল নভেম্বরে ঘরের মাঠে ডাবল সেঞ্চুরি করেন তিনি।

দারুণ ব্যাটিং করেন মুমিনুল-মুশফিক। জিম্বাবুয়ে বোলারদের নিয়ে রীতিমতো ছিনিমিনি খেলেন তারা। জমাট বেঁধে গিয়েছিল তাদের জুটি।

কিন্তু হঠাৎ ছন্দপতন। এন্সলে এনদিলোভুর কট অ্যান্ড বোল্ড হয়ে ফেরেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। ফেরার আগে ১৪ চারে ১৩২ রানের অনিন্দ্যসুন্দর ইনিংস খেলেন তিনি। তাতে মুশির সঙ্গে ভাঙে তার ২২২ রানের জুটি। এ পথে অনন্য রেকর্ড গড়েন মুমিনুল-মুশফিক। এতদিন টেস্টে দুটি করে দুইশ রানের জুটি ছিল তামিম ইকবাল-ইমরুল কায়েসের। দুই মিডলঅর্ডারেরও ছিল তাই। এবার দুই ওপেনারকে ছাড়িয়ে গেলেন পয়েট অব ডায়নামো ও মিস্টার ডিপেন্ডেবল। তাদের দুইশ রানের জুটি হলো তিনটি।

দলীয় এ সংগ্রহে তামিম ইকবালের অবদান ৪১ রান। আর ৭১ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

জিম্বাবুয়ে ১ম ইনিংস: ১০৬.৩ ওভারে ২৬৫ (আগের দিন ২২৮/৬) (মাসভাউরে ৬৪, কাসুজা ২, আরভিন ১০৭, টেইলর ১০, রাজা ১৮, মারুমা ৭, চাকাভা ৩০, তিরিপানো ৮, এনদিলোভু ০, টিসুমা ০, নিয়াউচি ৬*; এবাদত ১৭-৮-২৬-০, আবু জায়েদ ২৪-৬-৭১-৪, নাঈম ৩৮-৯-৭০-৪, তাইজুল ২৭.৩-১-৯০-২)।

ঘটনাপ্রবাহ : জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফর -২০২০

আরও
আরও পড়ুন

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৪৮ ১৫
বিশ্ব ৬,৫০,৫৬৭১,৩৯,৫৫২৩০,২৯৯
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×