শচীনকে আউট করে হত্যার হুমকি পান ম্যাকগ্রা
jugantor
শচীনকে আউট করে হত্যার হুমকি পান ম্যাকগ্রা

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪:৪৬:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

শচীন টেন্ডুলকারকে আউট করে একবার জীবন শংকায় পড়ে গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া কিংবদন্তি গ্লেন ম্যাকগ্রা। সরাসরি হত্যার হুমকি পেয়েছিলেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে খোদ নিজেই এসব কথা বলেছেন সাবেক অজি পেসার।

১৯৯৯ সালে অ্যাডিলেড টেস্টের ঘটনা। শচীনকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন ম্যাকগ্রা। তবে আম্পায়ারের দেয়া সিদ্ধান্তটা বিতর্কিত ছিল। এর পরের অভিজ্ঞতাই সম্প্রতি ব্যক্ত করেছেন ম্যাকগ্রা।

তিনি বলেন, তখন ডিআরএস ছিল না। এটা অবশ্যই লজ্জাকর। সবে শচীন ক্রিজে এসেছিল। বোধ হয় রানের খাতাও খুলতে পারেনি। শুরুতেই বাউন্সার মেরে ক্রিজে তাকে ভড়কে দিতে চেয়েছিলাম আমি। কিন্তু সেই বল উঁচুতে ওঠেনি। নিচু হয়ে গিয়েছিল। অধিকন্তু লিটল মাস্টারের উচ্চতা বেশি ছিল না।

ম্যাকগ্রা বলেন, শচীন নিচু হয়ে বলটি ডাক করতে গিয়েছিল। পরিপ্রেক্ষিতে সেটি তার কাঁধে আছড়ে পড়ে। আমার কাছে মনে হয়, বল স্ট্যাম্পে লাগছে। এক অ্যাঙ্গেলে ভারতীয় রানমেশিনের মাথার ওপর দিয়ে বেল দেখতে পাচ্ছিলাম। ফলশ্রুতিতে আমি লেগ বিফোরের আবেদন করি। সঙ্গে সঙ্গে আম্পায়ার আউট দিয়ে দেন।

মূলত বিপত্তিটা বাঁধে সেখানেই। তিনি বলেন, এরপর মেলবোর্ন ও সিডনিতে টেস্ট খেলি আমরা। ওই আউটের জের ধরে সফরের মাঝে বেশ কয়েকবার মৃত্যুর হুমকি পাই আমি। তবে আমার নিরাপত্তা বেশ কড়া ছিল। সিডনিতে আমার পরিবারের উপরেও নিরাপত্তা বাড়িয়ে দেয়া হয়। কারণ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকেও (সিএ) হুমকি দেয়া হয়েছিল।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া/ক্রিক ট্র্যাকার।

শচীনকে আউট করে হত্যার হুমকি পান ম্যাকগ্রা

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০২:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শচীন টেন্ডুলকারকে আউট করে একবার জীবন শংকায় পড়ে গিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়া কিংবদন্তি গ্লেন ম্যাকগ্রা। সরাসরি হত্যার হুমকি পেয়েছিলেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে খোদ নিজেই এসব কথা বলেছেন সাবেক অজি পেসার।

১৯৯৯ সালে অ্যাডিলেড টেস্টের ঘটনা। শচীনকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন ম্যাকগ্রা। তবে আম্পায়ারের দেয়া সিদ্ধান্তটা বিতর্কিত ছিল। এর পরের অভিজ্ঞতাই সম্প্রতি ব্যক্ত করেছেন ম্যাকগ্রা।

তিনি বলেন, তখন ডিআরএস ছিল না। এটা অবশ্যই লজ্জাকর। সবে শচীন ক্রিজে এসেছিল। বোধ হয় রানের খাতাও খুলতে পারেনি। শুরুতেই বাউন্সার মেরে ক্রিজে তাকে ভড়কে দিতে চেয়েছিলাম আমি। কিন্তু সেই বল উঁচুতে ওঠেনি। নিচু হয়ে গিয়েছিল। অধিকন্তু লিটল মাস্টারের উচ্চতা বেশি ছিল না।

ম্যাকগ্রা বলেন, শচীন নিচু হয়ে বলটি ডাক করতে গিয়েছিল। পরিপ্রেক্ষিতে সেটি তার কাঁধে আছড়ে পড়ে। আমার কাছে মনে হয়, বল স্ট্যাম্পে লাগছে। এক অ্যাঙ্গেলে ভারতীয় রানমেশিনের মাথার ওপর দিয়ে বেল দেখতে পাচ্ছিলাম। ফলশ্রুতিতে আমি লেগ বিফোরের আবেদন করি। সঙ্গে সঙ্গে আম্পায়ার আউট দিয়ে দেন।

মূলত বিপত্তিটা বাঁধে সেখানেই। তিনি বলেন, এরপর মেলবোর্ন ও সিডনিতে টেস্ট খেলি আমরা। ওই আউটের জের ধরে সফরের মাঝে বেশ কয়েকবার মৃত্যুর হুমকি পাই আমি। তবে আমার নিরাপত্তা বেশ কড়া ছিল। সিডনিতে আমার পরিবারের উপরেও নিরাপত্তা বাড়িয়ে দেয়া হয়। কারণ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকেও (সিএ) হুমকি দেয়া হয়েছিল।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া/ক্রিক ট্র্যাকার।