মেহেদীর প্রথম সাফল্য
jugantor
মেহেদীর প্রথম সাফল্য

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১১ মার্চ ২০২০, ১৯:০০:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারে নিজের চতুর্থ ম্যাচে প্রথম সাফল্য পেলেন মেহেদী হাসান। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতি ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল অলরাউন্ডার মেহেদী হাসানের। 

বুধবার ক্যারিয়ারের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে নেমে ইনিংসের অষ্টম ও দশম ওভারে বোলিং করে ১১ রান খরচ করেন মেহেদী। এরপর ১৪তম ওভারে নিজের দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে এসে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক শেন উইলিয়ামসের উইকেট তুলে নেন লেগ স্পিনার মেহেদী হাসান।

তার শিকারে পরিনত হওয়ার আগে মাত্র ৩ রান করার সুযোগ পান জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক। অবশ্য ওই ওভারে মেহেদীর বলে ক্যাচ তুলে দেন নতুন ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজা। কিন্তু সৌম্য সরকার ক্যাচটি তালুবন্দি করতে পারেননি।  

এর আগে দলীয় ১২ রানে জিম্বাবুয়ের ওপেনার টিনাশে কামুনহুকামুয়ের উইকেট তুলে নেন আল আমিন হোসেন। এরপর ক্রেগ আরভিনকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ৫৭ রানের জুটি গড়েন ওপেনার ব্রেন্ডন টেলর। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা তাদের মধ্যকার এ জুটি ভাঙেন আফিফ হোসেন। ৩৩ বলে ৩টি চারে ২৯ রান করা আরভিনকে আউট করেন আফিফ।

আগের ম্যাচে ১০ রান করা সিকান্দার রাজাকে এদিন ১২ রানে বেশি করতে দেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার বলে ফাইন লেগে আল-আমিনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন রাজা। রিচমন্ড মুতুম্বামিকে মাত্র ১ রানে আউট করে দেন আল-আমিন হোসেন। দলীয় ১০৮ রানে টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজিকে ক্যাচ তুলতে বাধ্য করেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। 

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের শেষে টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

মেহেদীর প্রথম সাফল্য

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১১ মার্চ ২০২০, ০৭:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ারে নিজের চতুর্থ ম্যাচে প্রথম সাফল্য পেলেন মেহেদী হাসান। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতি ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল অলরাউন্ডার মেহেদী হাসানের।

বুধবার ক্যারিয়ারের চতুর্থ ম্যাচ খেলতে নেমে ইনিংসের অষ্টম ও দশম ওভারে বোলিং করে ১১ রান খরচ করেন মেহেদী। এরপর ১৪তম ওভারে নিজের দ্বিতীয় স্পেলে বোলিংয়ে এসে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক শেন উইলিয়ামসের উইকেট তুলে নেন লেগ স্পিনার মেহেদী হাসান।

তার শিকারে পরিনত হওয়ার আগে মাত্র ৩ রান করার সুযোগ পান জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক। অবশ্য ওই ওভারে মেহেদীর বলে ক্যাচ তুলে দেন নতুন ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজা। কিন্তু সৌম্য সরকার ক্যাচটি তালুবন্দি করতে পারেননি।

এর আগে দলীয় ১২ রানে জিম্বাবুয়ের ওপেনার টিনাশে কামুনহুকামুয়ের উইকেট তুলে নেন আল আমিন হোসেন। এরপর ক্রেগ আরভিনকে সঙ্গে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে ৫৭ রানের জুটি গড়েন ওপেনার ব্রেন্ডন টেলর। ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা তাদের মধ্যকার এ জুটি ভাঙেন আফিফ হোসেন। ৩৩ বলে ৩টি চারে ২৯ রান করা আরভিনকে আউট করেন আফিফ।

আগের ম্যাচে ১০ রান করা সিকান্দার রাজাকে এদিন ১২ রানে বেশি করতে দেননি মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তার বলে ফাইন লেগে আল-আমিনের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন রাজা। রিচমন্ড মুতুম্বামিকে মাত্র ১ রানে আউট করে দেন আল-আমিন হোসেন। দলীয় ১০৮ রানেটিনোটেন্ডা মুতোম্বোজিকে ক্যাচ তুলতে বাধ্য করেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের শেষে টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

 

ঘটনাপ্রবাহ : জিম্বাবুয়ের বাংলাদেশ সফর -২০২০