আবাহনীর নেতৃত্ব পেয়ে যা বললেন মুশফিক

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৩ মার্চ ২০২০, ১৯:১৫:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

মুশফিকুর রহিম। ছবি: বিসিবি

ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় আসর ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেটলিগ (ডিপএল)। দেশের যেসব ক্রিকেটার জাতীয় দল এবং বিপিএলের মতো টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ পান না তাদের জন্য রুটি-রুজির অন্যতম মাধ্যম হিসেবেই বেশ পরিচিত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ তথা ঢাকা লিগ।

১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে ঢাকা মেট্রোপলিস প্রথম বিভাগ ক্রিকেট নামে শুরু হয় ঢাকার শীর্ষ এই ক্লাবের লড়াই। প্রথম মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন হয় আবাহনী লিমিটেড। ১৯৮৭-৮৮ মৌসুম থেকে প্রথম বিভাগ হয়ে যায় প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ।

২০০৩-০৪ ও ২০১২-১৩ মৌসুমে খেলা হয়নি। ঢাকার শীর্ষ ক্লাব টুর্নামেন্টে অতীতে ২০ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আবাহনী। সবশেষ দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন আবাহনী এবার হ্যাটট্রিক শিরোপা ঘরে তুলতে মুশফিক, লিটনসহ জাতীয় দলের নিয়মিত পারফর্মারদের দলে নিয়েছে।

ঢাকা লিগের এবারের আসরে আবাহনীর নেতৃত্বের গুরুদায়িত্ব দেয়া হয়েছে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে।

শুক্রবার বিকেএসপিতেসংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে আলাপে জাতীয় দলের নিয়মিত পারফর্মার মুশফিক বলেন, আবাহনীর মতো চ্যাম্পিয়ন একটা দলেখেলা বিশেষ সম্মানের। আবাহনী বেশ কয়েকবার ঢাকা গিলেচ্যাম্পিয়ন হয়েছে। এটা চ্যালেঞ্জও, কারণ এখানে অন্যরকম চাপ থাকে। আমি সত্যিই খুশি যে একটা চ্যাম্পিয়ন দলে খেলার সৌভাগ্যহয়েছে।

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেন, অধিনায়কত্ব যেহেতু করতে হবে, সামনে থেকে যেন নেতৃত্ব দিতে পারি সেই চেষ্টা করব। গত বছরও (আবাহনী) চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, এবছর যেন সেটা ধরে রাখতে পারি।

হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদীমুশফিক বলেন, এবারের প্রিমিয়ার লিগে ৬ থেকে ৭টা দল খুব ভারসাম্যপূর্ণ। নির্দিষ্ট একটা বা দুইটা দলকে এগিয়ে রাখতে পারবেন না। শীর্ষ ছয়ে কোন দলগুলো থাকবে এটা বলা কঠিন। তাছাড়া আবাহনী কখনও দুই বা তিন নম্বর হওয়ার জন্য দল গড়ে না। সবসময় চ্যাম্পিয়নশিপের জন্যই দল করে। এবারও ব্যক্তিক্রম হয়নি। চেষ্টা থাকবে প্রথমে শীর্ষ ছয়ে ঢোকার,এরপর চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ-২০২০

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত