জয়ের আশা জাগিয়ে ছিলেন মুস্তাফিজ

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ মার্চ ২০১৮, ০১:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

মুস্তাফিজ

ত্রিদেশীয় সিরিজের রুদ্ধশ্বাস ফাইনাল ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের আশা জাগিয়ে ছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। রান খরচায় তিনি সবার ওপরে থাকলেও ১৮তম ওভারে তার ওপরই ভরসা রাখলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এ ওভারে দুর্দান্ত বোলিং করে সারাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মাঝে জয়ের সুবাতাস বইয়ে দেন ফিজ। ভারতের তখন ১৮ বলে ৩৫ রান দরকার ছিল। টানাটান উত্তেজনার ওই মুহুর্তে গুরুত্বপূর্ণ ওই ওভারটি মাত্র রানে আটকে রেখে মুস্তাফিজ কী দারুণভাবেই না অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিলেন!

১৮তম ওভার শেষ হওয়ার পর ধারাভাষ্যকক্ষে সুনীল গাভাস্কারও বললেন, দ্য ফিজ ইজ ব্যাক! যে একটা রান এসেছিল তা লেগবাই থেকে যা বোলারের খাতায় যোগ হয় না।

শেষ দুই ওভারে অর্থাৎ ১২ বলে ৩৪-এর এক জটিল সমিকরণের সামনে ভারকে দাঁড় করিয়ে দেন মোস্তাফিজ। টাইগার ভক্তরা তখন জয় উদযাপনের প্রহর গুনছিলেন। তখন 'খলনায়ক' হিসেবে আবির্ভূত হন রুবেল। ১৯তম ওভারে বল করতে এসে তিনি ২২ রান দিয়ে দলের নিশ্চিত প্রায় জয়কে ঠেলে দিলেন পরাজয়ের দিকে।

প্রথম তিন বলে দুই ছক্কা এক চার! ডট, দুই, শেষ বলে আবার চার। বৃথা গেল মোস্তাফিজের সব শ্রম আর চেষ্টা। বৃথা হয়েছিল রুবেলের আগের ৩ ওভারের পরিশ্রমও, মাত্র ১৩ রান দিয়ে ২ উইকেট পেয়ে বাংলাদেশের আশা তো বাঁচিয়ে রেখেছিলেন রুবেলই। শেষ ওভারে ১২ রান দরকার, এমন অবস্থায় অনিয়মিত বোলার সৌম্য তবু চেষ্টা করেছিলেন। শেষ বলে ৫ রান দরকার। চার হলেও ম্যাচ টাই। তখন আরেক নাটক হয়তো হতো। সৌম্য বলটা যে খারাপ করেছিলেন তা নয়। শিরোপা তাই অধরাই রয়ে গেল টাইগারদের।

ঘটনাপ্রবাহ : ত্রিদেশীয় সিরিজ শ্রীলংকা ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter