বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গের যত গল্প

  স্পোর্টস ডেস্ক, ১৯ মার্চ ২০১৮, ১১:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ,

শেষ বলে ভারতের দরকার ৫ রান। ছক্কা মেরে সেই সমীকরণ মিলিয়ে দিলেন দীনেশ কার্তিক! ছক্কা খেয়ে হতাশায় মুষড়ে পড়লেন সৌম্য, সাইডলাইনে চোখ মুছছেন তাসকিন-রনিরা। কে কাকে দেবেন সান্ত্বনা?

ঠিক যেন ২০১২ সালের এশিয়া কাপ ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে হারের পর সেই চিত্রনাট্য। সেবার কেঁদেছিলেন নাসির, মুশফিকরা। হৃদয়ভাঙা ঢেউ তুলে কেঁদেছিলেন গ্যালারির হাজার সমর্থক, দেশের ১৬ কোটি মানুষ ও প্রবাসীরা। সেবার সাকিবের বুকে মাথা গুঁজেছিলেন মুশফিক।

ফের একই দৃশ্য। আবারও স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের। টাইগারদের যত স্বপ্নভঙ্গ সেসব নিয়েই আমাদের গল্প।

বেশ কয়েকবার দ্বিপক্ষীয় সিরিজ জিতেছে টাইগাররা। তবে একাধিক দল নিয়ে গড়া সিরিজ একবারও জেতেনি তারা। প্রতিবারই কত কাছে, তবু কতদূরের জ্বালায় পুড়তে হয়েছে তাদের।

এ নিয়ে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে ৫টি টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলল বাংলাদেশ। বারবারই লিখতে হয়েছে ব্যর্থতার গল্প।

প্রথমবার লিখতে হয় ২০০৯ সালে। ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের ফাইনালে শেষের নাটকীয়তায় শ্রীলংকার কাছে ২ উইকেটে হারে বাংলাদেশ। সেই শিরোপার লড়াইয়েও ১ ওভারে সব এলেমেলো করে দিয়েছিলেন রুবেল। সেদিন ভালোভাবে ব্যাট ধরতে না জানা মুত্তিয়া মুরালিধরন হয়ে উঠেছিলেন ‘ক্রিস গেইল’। তার ব্যাটিং তাণ্ডবে শেষ পর্যন্ত হার মানতে হয় বাংলাদেশকে।

এর পর ২০১২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনাল। সেই মিরপুরেই পাকিস্তানের কাছে ২ রানে হেরেছিল বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে হওয়ায় তাতে বেশি পুড়েছিলেন দেশের ক্রিকেটপাগলরা।

২০১৬ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালে সেই দুঃখ মোছার সুযোগ এসেছিল টাইগারদের। সেবার এশিয়া কাপ হয় টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। এবার ভারতের কাছে স্রেফ উড়ে গিয়েছিল তারা। ৮ উইকেটে হেরেছিল স্বাগতিকরা।

২০১৮ সালের শুরুতে রকেট ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের ফাইনালের হার এখনও দেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে দগদগে। দুর্দান্তভাবে সিরিজ শুরু করা বাংলাদেশ লংকানদের কাছে হেরে যায় ৭৯ রানে।

এবারের ফাইনালটির দুঃখ কী আগেরগুলোর চেয়ে বেশি? হয়তো হ্যাঁ, হয়তো না।

ঘটনাপ্রবাহ : ত্রিদেশীয় সিরিজ শ্রীলংকা ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter