সাকিবকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চান মাহমুদউল্লাহ
jugantor
সাকিবকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চান মাহমুদউল্লাহ

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৪ এপ্রিল ২০২০, ১৪:৫২:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় বসার কথা রয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। তবে করোনাভাইরাসের কারণে নির্ধারিত সময়ে তা হওয়া নিয়ে সংশয় রয়েছে। দিন যত গড়াচ্ছে বৈশ্বিক টুর্নামেন্টটি পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তত প্রবল হচ্ছে।

এমনটি হলে বাংলাদেশ ক্রিকেট উপকৃত হবে বলে মনে করেন বর্তমান টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কারণ তা হলে দলে পাওয়া যাবে দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর্দা ওঠার কথা ১৮ অক্টোবর। একদিন পর থেকে অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ। প্রথম রাউন্ডে নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড, নামিবিয়ার মুখোমুখি হবেন টাইগাররা। এ রাউন্ড উতরাতে পারলেই সুপার ১২-এর টিকিট পাবেন তারা।

শক্তিমত্তায় দলগুলো বাংলাদেশের চেয়ে দুর্বল। তবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে কোনো দলকে খর্বশক্তির ভাবা যাবে না। কারণ নিজেদের দিনে যে কোনো অঘটন ঘটাতে পারে তারা। তাই প্রথম রাউন্ডের গণ্ডি অতিক্রম করতে সাকিবকে বড্ড বেশি প্রয়োজন বাংলাদেশের।

কিন্তু নির্ধারিত সময়ে টুর্নামেন্ট গড়ালেই হবে সর্বনাশ। কারণ  জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় এ মুহূর্তে আইসিসি প্রদত্ত এক বছরের নিষেধাজ্ঞা ভোগ করছেন তিনি। সব কিছু ঠিক থাকলে ২৯ অক্টোবর তার সাজার মেয়াদ শেষ হবে।

তাই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে বাংলাদেশের মঙ্গল হবে। সাকিবকে নিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দল গঠন করতে পারবেন লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

এ প্রসঙ্গে মাহমুদউল্লাহ বলেন, যদি শিডিউল পরিবর্তন হয়, তা হলে এটি আমাদের জন্য দারুণ হবে। আমরা সবাই জানি– আমাদের দলে সাকিবের ভূমিকাটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। এ ফরম্যাটে অনেক অভিজ্ঞ সে।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে তিনি বলেন, সাকিবের অন্তর্ভুক্তি দলের চেহারাই পাল্টে দিতে পারে। সে ঢুকলে দল ব্যালান্সড হবে। টিমে তার ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। প্রকৃত ম্যাচ উইনার ও।

সাকিবকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চান মাহমুদউল্লাহ

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৪ এপ্রিল ২০২০, ০২:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় বসার কথা রয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। তবে করোনাভাইরাসের কারণে নির্ধারিত সময়ে তা হওয়া নিয়ে সংশয় রয়েছে। দিন যত গড়াচ্ছে বৈশ্বিক টুর্নামেন্টটি পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তত প্রবল হচ্ছে।

এমনটি হলে বাংলাদেশ ক্রিকেট উপকৃত হবে বলে মনে করেন বর্তমান টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কারণ তা হলে দলে পাওয়া যাবে দেশসেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর্দা ওঠার কথা ১৮ অক্টোবর। একদিন পর থেকে অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ। প্রথম রাউন্ডে নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড, নামিবিয়ার মুখোমুখি হবেন টাইগাররা। এ রাউন্ড উতরাতে পারলেই সুপার ১২-এর টিকিট পাবেন তারা।

শক্তিমত্তায় দলগুলো বাংলাদেশের চেয়ে দুর্বল। তবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে কোনো দলকে খর্বশক্তির ভাবা যাবে না। কারণ নিজেদের দিনে যে কোনো অঘটন ঘটাতে পারে তারা। তাই প্রথম রাউন্ডের গণ্ডি অতিক্রম করতে সাকিবকে বড্ড বেশি প্রয়োজন বাংলাদেশের।

কিন্তু নির্ধারিত সময়ে টুর্নামেন্ট গড়ালেই হবে সর্বনাশ। কারণ জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় এ মুহূর্তে আইসিসি প্রদত্ত এক বছরের নিষেধাজ্ঞা ভোগ করছেন তিনি। সব কিছু ঠিক থাকলে ২৯ অক্টোবর তার সাজার মেয়াদ শেষ হবে।

তাই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে বাংলাদেশের মঙ্গল হবে। সাকিবকে নিয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দল গঠন করতে পারবেন লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

এ প্রসঙ্গে মাহমুদউল্লাহ বলেন, যদি শিডিউল পরিবর্তন হয়, তা হলে এটি আমাদের জন্য দারুণ হবে। আমরা সবাই জানি– আমাদের দলে সাকিবের ভূমিকাটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। এ ফরম্যাটে অনেক অভিজ্ঞ সে।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে তিনি বলেন, সাকিবের অন্তর্ভুক্তি দলের চেহারাই পাল্টে দিতে পারে। সে ঢুকলে দল ব্যালান্সড হবে। টিমে তার ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। প্রকৃত ম্যাচ উইনার ও।

 

ঘটনাপ্রবাহ : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ-২০২০