রোহিতকে হিটম্যান বানিয়েছে ধোনি: গম্ভীর
jugantor
রোহিতকে হিটম্যান বানিয়েছে ধোনি: গম্ভীর

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৪ মে ২০২০, ১৪:২৭:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

শুরুতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেভাবে আলোর বিচ্ছুরণ ঘটাতে পারেননি রোহিত শর্মা। হিটম্যান বোমার বিস্ফোরণ ঘটে বেশ দেরিতে। এর নেপথ্যে বড় অবদান ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির। অকপটে সে কথাই জানালেন দেশটির সাবেক বাঁহাতি ওপেনার এবং বর্তমান বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর।

ধোনির কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত গৌতম। তবে এবার ধোনিকে অসাধারণ প্রশংসাপত্র দিলেন তিনি। যাতে মাহিকে সরাসরি প্রশংসায় ভাসিয়ে দিয়েছেন এ ক্রিকেটার কাম রাজনীতিবিদ।

গম্ভীর বলেন, একজন ক্রিকেটারের সাফল্যের পেছনে অনেকে টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকমণ্ডলীর কথা বলেন। তবে কেউ যদি ক্যাপ্টেনের সহায়তা না পায়, তা হলে সব অর্থহীন। কারণ সবকিছু তার হাতে থাকে। দীর্ঘদিন রোহিতকে ব্যাকিং করেছে ধোনি। আমার মনে হয় না, অন্য কেউ সেটি এভাবে করত। আজকে তার হিটম্যান হওয়ার পেছনে অনেকটাই অবদান ক্যাপ্টেনকুলের।

২০১১ বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন গম্ভীর। তিনি বলেন, দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের আস্থা পেলে একজন ক্রিকেটার কোথায় গিয়ে পৌঁছতে পারে, সেটির আদর্শ উদাহরণ রোহিত।

টিম ইন্ডিয়ার সাবেক বাঁহাতি ব্যাটার বলেন, ধোনি যেটা করত, সেটি হলো– সে রোহিতকে সবসময়ই আলোচনায় রাখত। এমনকি যখন দলে থাকত না, তখনও রোহিতকে নিয়ে কথাবার্তা হতো। দলে না থাকলেও তাকে এভাবে স্কোয়াডে রাখত মাহি। কখনই ওকে সাইডলাইনে সরিয়ে দিত না ও।

সেই কথা স্মরণ করিয়ে বর্তমান ভারত জাতীয় দলের সিনিয়রদের প্রতি গম্ভীরের বার্তা– আশা করি এ প্রজন্মের উঠতি ক্রিকেটার-সে শুভমান গিল হোক কিংবা সঞ্জু স্যামসন- যেন একইভাবে সমর্থন পায়। এখন রোহিত নিজেই সিনিয়র ক্রিকেটার। ধোনি যেভাবে তরুণদের সাপোর্ট করত, কোহলিরা যেন সেভাবেই তাদের সাহায্য করে।

২০০৭ সালে মেন ইন ব্লুদের জার্সিতে অভিষেক ঘটে রোহিতের। শুরুতে তাদের হয়ে একদমই ছাপ ফেলতে পারেননি প্রতিভাবান এ ব্যাটসম্যান। ২০১৩ সালে তাকে ওপেনিংয়ে পাঠান ধোনি। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি বর্তমান সহ-অধিনায়ককে।

এর আগে বর্তমান সময়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে রোহিতকে সেরা ব্যাটসম্যান বলে অ্যাখ্যা দেন গম্ভীর। বিশ্বের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন হিটম্যান। বিশ্বকাপের এক আসরে পাঁচটি সেঞ্চুরির বিরল মালিকও তিনি।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

রোহিতকে হিটম্যান বানিয়েছে ধোনি: গম্ভীর

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৪ মে ২০২০, ০২:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শুরুতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেভাবে আলোর বিচ্ছুরণ ঘটাতে পারেননি রোহিত শর্মা। হিটম্যান বোমার বিস্ফোরণ ঘটে বেশ দেরিতে। এর নেপথ্যে বড় অবদান ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির। অকপটে সে কথাই জানালেন দেশটির সাবেক বাঁহাতি ওপেনার এবং বর্তমান বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর।

ধোনির কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত গৌতম। তবে এবার ধোনিকে অসাধারণ প্রশংসাপত্র দিলেন তিনি। যাতে মাহিকে সরাসরি প্রশংসায় ভাসিয়ে দিয়েছেন এ ক্রিকেটার কাম রাজনীতিবিদ।

গম্ভীর বলেন, একজন ক্রিকেটারের সাফল্যের পেছনে অনেকে টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকমণ্ডলীর কথা বলেন। তবে কেউ যদি ক্যাপ্টেনের সহায়তা না পায়, তা হলে সব অর্থহীন। কারণ সবকিছু তার হাতে থাকে। দীর্ঘদিন রোহিতকে ব্যাকিং করেছে ধোনি। আমার মনে হয় না, অন্য কেউ সেটি এভাবে করত। আজকে তার হিটম্যান হওয়ার পেছনে অনেকটাই অবদান ক্যাপ্টেনকুলের।

২০১১ বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন গম্ভীর। তিনি বলেন, দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের আস্থা পেলে একজন ক্রিকেটার কোথায় গিয়ে পৌঁছতে পারে, সেটির আদর্শ উদাহরণ রোহিত।

টিম ইন্ডিয়ার সাবেক বাঁহাতি ব্যাটার বলেন, ধোনি যেটা করত, সেটি হলো– সে রোহিতকে সবসময়ই আলোচনায় রাখত। এমনকি যখন দলে থাকত না, তখনও রোহিতকে নিয়ে কথাবার্তা হতো। দলে না থাকলেও তাকে এভাবে স্কোয়াডে রাখত মাহি। কখনই ওকে সাইডলাইনে সরিয়ে দিত না ও।

সেই কথা স্মরণ করিয়ে বর্তমান ভারত জাতীয় দলের সিনিয়রদের প্রতি গম্ভীরের বার্তা– আশা করি এ প্রজন্মের উঠতি ক্রিকেটার-সে শুভমান গিল হোক কিংবা সঞ্জু স্যামসন- যেন একইভাবে সমর্থন পায়। এখন রোহিত নিজেই সিনিয়র ক্রিকেটার। ধোনি যেভাবে তরুণদের সাপোর্ট করত, কোহলিরা যেন সেভাবেই তাদের সাহায্য করে।

২০০৭ সালে মেন ইন ব্লুদের জার্সিতে অভিষেক ঘটে রোহিতের। শুরুতে তাদের হয়ে একদমই ছাপ ফেলতে পারেননি প্রতিভাবান এ ব্যাটসম্যান। ২০১৩ সালে তাকে ওপেনিংয়ে পাঠান ধোনি। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি বর্তমান সহ-অধিনায়ককে।

এর আগে বর্তমান সময়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে রোহিতকে সেরা ব্যাটসম্যান বলে অ্যাখ্যা দেন গম্ভীর। বিশ্বের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডে ক্রিকেটে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন হিটম্যান। বিশ্বকাপের এক আসরে পাঁচটি সেঞ্চুরির বিরল মালিকও তিনি।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস