ভারতের আগে পাকিস্তানের হয়ে খেলেন শচীন!

  স্পোর্টস ডেস্ক ১২ মে ২০২০, ১৭:১১:১৩ | অনলাইন সংস্করণ

১৯৮৯ সালের ১৫ নভেম্বর। করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ভারতের হয়ে প্রথমবার খেলতে নামেন শচীন টেন্ডুলকার। সেটা ছিল সেই সিরিজের প্রথম টেস্ট। ১৬ বছরের এক কিশোরকে দেখে সেদিন অবাক হয় ক্রিকেট বিশ্ব। যে কি না ইমরান খান, ওয়াসিম আকরাম ও ওয়াকার ইউনিস পেস ত্রয়ীকে খেলল।

বাকিটা ইতিহাস। এরপর ২৪ বছর ধরে ভারতীয় ক্রিকেটের ভার নিজ কাঁধে টানেন তিনি। নিজের ব্যাটিং ও ব্যক্তিত্ব দিয়ে সারাবিশ্ব মোহিত করেন লিটল মাস্টার।

তবে জানেন কি, ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার ২ বছর আগে পাকিস্তানের পক্ষে মাঠে নামেন শচীন? হ্যাঁ, বাস্তবেও এমনটাই হয়। ঘটনাটিকে মনে করিয়েছেন খোদ তিনি নিজেই। নিজের আত্মজীবনী ‘প্লেয়িং ইট মাই ওয়ে’তে সেই দিনের কথা জানিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার।

১৯৮৭ সালে ভারতে খেলতে আসে পাকিস্তান। তখন শচীনের বয়স ছিল মাত্র ১৪ বছর। মুম্বাইয়ে টিম ইন্ডিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে পাক ব্রিগেড। সেই ম্যাচেই তাদের হয়ে ফিল্ডিং করতে নামেন ভারতীয় ক্রিকেট ঈশ্বর।

নিজের আত্মজীবনীতে শচীন বলেন, আমি জানি না ইমরান খানের এ কথা স্মরণে রয়েছে কি না। তবে আমি পাকিস্তানের হয়ে ফিল্ডিং করেছি। জাভেদ মিয়াঁদাদ ও আব্দুল কাদির মধ্যাহ্নভোজনের বিরতির পর পর মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যান। ফলে অতিরিক্ত ফিল্ডার হিসেবে আমি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের হয়ে ফিল্ডিং করতে নামি।

তিনি বলেন, ওই দিন পাকিস্তানের এ দুই ক্রিকেটার মাঠ থেকে বেরিয়ে গেলে স্থানীয় দুই ক্রিকেটারকে ফিল্ডিংয়ের জন্য বাছাই করা হয়। তাদেরই একজন ছিলাম আমি।

সেদিন কীভাবে অল্পের জন্য কিংবদন্তি কপিল দেবের ক্যাচ মিস করেন শচীন, তাও জানিয়েছেন সেঞ্চুরির সেঞ্চুরিয়ান। তিনি বলেন, ওই দিন ইমরান খান আমাকে লং অনে ফিল্ডিং করতে পাঠান। সেই ম্যাচে অনেকটা ছুটে গিয়েও আমি কপিলের ক্যাচ ধরতে পারিনি। আমাকে মিড অনে দাঁড় করালে সহজেই তা নিতে পারতাম। তবে দূরে ফিল্ডিং করায় ক্যাচ তালুবন্দি করা সম্ভব হয়নি।

তথ্যসূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত