বিশ্বকাপের পরিবর্তে আইপিএল চায় ভারত!
jugantor
বিশ্বকাপের পরিবর্তে আইপিএল চায় ভারত!

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৮ মে ২০২০, ১৯:৪৬:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের লোগো
ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের লোগো। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের কারণে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব খেলাই বন্ধ। স্থগিত হয়েছে আইপিএল। অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কিন্তু পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে বিশ্বকাপ দুই বছর পিছিয়ে যেতে পারে। আর বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে লাভ হবে ভারতের।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) চায় বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে যেন আইপিএল আয়োজন করা যায়। কারণ আইপিএল না হলে ভারতের ক্ষতি হবে ৫৩০ মিলিয়ন ডলার।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমাল বলেছেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি যদি না হয় তাহলে অন্তত একটি উইন্ডো পাওয়া গেলেও আমরা আইপিএল আয়োজনের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। ৩০ থেকে ৪০ দিনের মধ্যেই আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব।

টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী বলেছেন, আমি এই মুহূর্তে বিশ্বকাপ আয়োজনে বেশি জোর দিতে চাই না। এখন বাড়িতে থাকুন, ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির সব স্তরের ক্রিকেট শুরু করা যেতে পারে। এছাড়া দ্বিপক্ষীয় ক্রিকেট সিরিজগুলো শুরু করা যেতে পারে।

ভারতীয় সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেন, ক্রিকেট আবার শুরু হলে আমরা আইপিএলকে অগ্রাধিকার দিতে পারতাম। একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট (বিশ্বকাপ) এবং আইপিএলের মধ্যে পার্থক্য হলো আইপিএল এক বা দুটি শহরের মধ্যে আয়োজন করা যায় এবং লজিস্টিক সাপোর্টও পাওয়া সহজ হয়, যা বিশ্বকাপে সম্ভব না।

প্রসঙ্গত, এবারের আইপিএল শুরু হওয়ার কথা ছিল ২৯ মার্চ। কিন্তু মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। এপ্রিল পার হয়ে এখন মে মাসের ১৮ তারিখ। করোনা পরিস্থিতি এখনও নাগালের বাইরে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই আইপিএল আয়োজন করতে চায় ভারত।

সূত্র: দ্য ডন

 

 

 

বিশ্বকাপের পরিবর্তে আইপিএল চায় ভারত!

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৮ মে ২০২০, ০৭:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের লোগো
ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের লোগো। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসের কারণে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক সব খেলাই বন্ধ। স্থগিত হয়েছে আইপিএল। অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কিন্তু পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে বিশ্বকাপ দুই বছর পিছিয়ে যেতে পারে। আর বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে লাভ হবে ভারতের।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) চায় বিশ্বকাপ পিছিয়ে গেলে যেন আইপিএল আয়োজন করা যায়। কারণ আইপিএল না হলে ভারতের ক্ষতি হবে ৫৩০ মিলিয়ন ডলার।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমাল বলেছেন, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি যদি না হয় তাহলে অন্তত একটি উইন্ডো পাওয়া গেলেও আমরা আইপিএল আয়োজনের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। ৩০ থেকে ৪০ দিনের মধ্যেই আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব।

টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী বলেছেন, আমি এই মুহূর্তে বিশ্বকাপ আয়োজনে বেশি জোর দিতে চাই না। এখন বাড়িতে থাকুন, ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির সব স্তরের ক্রিকেট শুরু করা যেতে পারে। এছাড়া দ্বিপক্ষীয় ক্রিকেট সিরিজগুলো শুরু করা যেতে পারে।

ভারতীয় সাবেক এ তারকা ক্রিকেটার আরও বলেন, ক্রিকেট আবার শুরু হলে আমরা আইপিএলকে অগ্রাধিকার দিতে পারতাম। একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট (বিশ্বকাপ) এবং আইপিএলের মধ্যে পার্থক্য হলো আইপিএল এক বা দুটি শহরের মধ্যে আয়োজন করা যায় এবং লজিস্টিক সাপোর্টও পাওয়া সহজ হয়, যা বিশ্বকাপে সম্ভব না।

প্রসঙ্গত, এবারের আইপিএল শুরু হওয়ার কথা ছিল ২৯ মার্চ। কিন্তু মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। এপ্রিল পার হয়ে এখন মে মাসের ১৮ তারিখ। করোনা পরিস্থিতি এখনও নাগালের বাইরে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই আইপিএল আয়োজন করতে চায় ভারত।

সূত্র: দ্য ডন

 

ঘটনাপ্রবাহ : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ-২০২০