শচীন নয়, ওয়ানডেতে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন একজন নারী
jugantor
শচীন নয়, ওয়ানডেতে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন একজন নারী

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২২ মে ২০২০, ১৫:৫৪:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান ভারতের ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকার। এটি সর্বজনস্বীকৃত, তা আমরা সবাই জানি। আইসিসিও তা-ই বলছে। তবে রেকর্ড বুক দিচ্ছে ভিন্ন তথ্য। একদিনের ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন একজন নারী। তাও সেটি শচীনের ১৩ বছর আগে। 

তিনি অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক বেলিন্দা ক্লার্ক। ১৯৯৭ সালে এ কীর্তি গড়েন অজি ব্যাটিং মায়েস্ত্রো। তবে ২০১০ সালে শচীন এ কৃতিত্ব দেখালে সবাই তা ভুলে যান। তার বিশ্বরেকর্ড ঢাকা পড়ে যায়!

বিংশ শতাব্দীর আগে ওই দিন ডেনমার্কের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ছড়ি ঘোরান ক্লার্ক। শুরু থেকেই বোলারদের ওপর চড়াও হন তিনি। শেষ পর্যন্ত চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে ১৫৫ বলে ২২৯ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন অজি কাপ্তান। পরে ১৩ বছর ধরে এককভাবে ওডিআই ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডধারী বনে থাকেন ৪৯ বছর বয়সী ক্রিকেটার। 

বিশ্ব শতাব্দীর পর এই এলিট তালিকায় প্রথম যোগ দেন লিটল মাস্টার শচীন। অর্থাৎ প্রথম পুরুষ ক্রিকেটার হিসেবে এ নজির স্থাপন করেন তিনি। এর পর তারই স্বদেশী ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ ও হিটম্যান রোহিত শর্মা সেই উদাহরণ সৃষ্টি করেন। 

তাদের পরে দ্বিশতকের অভিজাত ক্লাবে নাম লেখান নিউজিল্যান্ডের বিধ্বংসী ব্যাটার মার্টিন গাপটিল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল এবং পাকিস্তানের জুম জুম ফখর জামান।

২০১৮ সালের আগ পর্যন্ত ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো তালিকায় একমাত্র নারী ছিলেন ক্লার্ক। ওই বছর সেই বনেদি টেবিলে বসেন নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার এমেলিয়া কের। মাত্র ১৭ বছর বয়সে এ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তিনি। বলা বাহুল্য, এখন তার বয়স ১৯। 

ওই বছর ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪৫ বলে ২৩২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন এমেলিয়া। শুধু তাই নয়, সেই ম্যাচে ম্যাজিক্যাল স্পেলে ৭ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে ২ মেডেন সহকারে ৫ উইকেট লাভ করেন তিনি, যা একদিনের ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি এবং ৫ উইকেট নেয়ার অনন্য বিশ্বরেকর্ড। 

তথ্যসূত্র: টাইমস নাউ

শচীন নয়, ওয়ানডেতে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন একজন নারী

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২২ মে ২০২০, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ান ভারতের ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকার। এটি সর্বজনস্বীকৃত, তা আমরা সবাই জানি। আইসিসিও তা-ই বলছে। তবে রেকর্ড বুক দিচ্ছে ভিন্ন তথ্য। একদিনের ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করেন একজন নারী। তাও সেটি শচীনের ১৩ বছর আগে।

তিনি অস্ট্রেলিয়া নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক বেলিন্দা ক্লার্ক। ১৯৯৭ সালে এ কীর্তি গড়েন অজি ব্যাটিং মায়েস্ত্রো। তবে ২০১০ সালে শচীন এ কৃতিত্ব দেখালে সবাই তা ভুলে যান। তার বিশ্বরেকর্ড ঢাকা পড়ে যায়!

বিংশ শতাব্দীর আগে ওই দিন ডেনমার্কের বিপক্ষে ব্যাট হাতে ছড়ি ঘোরান ক্লার্ক। শুরু থেকেই বোলারদের ওপর চড়াও হন তিনি। শেষ পর্যন্ত চার-ছক্কার ফুলঝুরিতে ১৫৫ বলে ২২৯ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন অজি কাপ্তান। পরে ১৩ বছর ধরে এককভাবে ওডিআই ক্রিকেটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ডধারী বনে থাকেন ৪৯ বছর বয়সী ক্রিকেটার।

বিশ্ব শতাব্দীর পর এই এলিট তালিকায় প্রথম যোগ দেন লিটল মাস্টার শচীন। অর্থাৎ প্রথম পুরুষ ক্রিকেটার হিসেবে এ নজির স্থাপন করেন তিনি। এর পর তারই স্বদেশী ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগ ও হিটম্যান রোহিত শর্মা সেই উদাহরণ সৃষ্টি করেন।

তাদের পরে দ্বিশতকের অভিজাত ক্লাবে নাম লেখান নিউজিল্যান্ডের বিধ্বংসী ব্যাটার মার্টিন গাপটিল, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল এবং পাকিস্তানের জুম জুম ফখর জামান।

২০১৮ সালের আগ পর্যন্ত ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো তালিকায় একমাত্র নারী ছিলেন ক্লার্ক। ওই বছর সেই বনেদি টেবিলে বসেন নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার এমেলিয়া কের। মাত্র ১৭ বছর বয়সে এ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তিনি। বলা বাহুল্য, এখন তার বয়স ১৯।

ওই বছর ডাবলিনে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪৫ বলে ২৩২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন এমেলিয়া। শুধু তাই নয়, সেই ম্যাচে ম্যাজিক্যাল স্পেলে ৭ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে ২ মেডেন সহকারে ৫ উইকেট লাভ করেন তিনি, যা একদিনের ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি এবং ৫ উইকেট নেয়ার অনন্য বিশ্বরেকর্ড।

তথ্যসূত্র: টাইমস নাউ