এমবাপ্পের রোল মডেল জিদান-রোনাল্ডো
jugantor
এমবাপ্পের রোল মডেল জিদান-রোনাল্ডো

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ মে ২০২০, ১০:৪৯:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজের ক্যারিয়ারে দুজনকে রোল মডেল হিসেবে অভিহিত করেছেন পিএসজির ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপ্পে। এর মধ্যে একজন তারই স্বদেশী কিংবদন্তি ও রিয়াল মাদ্রিদের বর্তমান কোচ জিনেদিন জিদান; অন্যজন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।

জিদানের সঙ্গে মধুর সম্পর্ক রয়েছে এমবাপ্পের। তাদের সুসম্পর্কের কথা গণমাধ্যমে প্রায়ই প্রকাশিত হয়। যে কারণে পিএসজি থেকে রিয়ালে এমবাপ্পের যাওয়া নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে।

এমবাপ্পে বলেন, ফ্রান্সের হয়ে সব কিছু জিতেছেন জিদান। এ জন্য প্রথমে তাকে পছন্দ করি আমি। এর পর রোনাল্ডোকে সবচেয়ে ভালো লাগে আমার। ক্যারিয়ারে সবই লাভ করেছেন উনি। তবু সাফল্য-ক্ষুধা মেটেনি তার। আরও অর্জনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তারা দুজনই ফুটবলের ইতিহাসের অংশ হয়ে গেছেন। আমিও তাদের মতো ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম দেখতে চাই।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে মৌসুম শেষ না হতেই ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান বাতিল ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে থাকায় শিরোপা জিতেছে পিএসজি। চ্যাম্পিয়নস লিগেও টিকে রয়েছে দলটি।

যে কোনো খ্যাতিমান ফুটবলারের আরাধ্য স্বপ্ন ব্যালন ডি’অর জেতা। ভবিষ্যতে ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাকর ব্যক্তিগত পুরস্কারটি জিততে চান কিনা? জবাবে পাওয়া গেল পরিপক্বতার ছাপ। বুদ্ধিদ্বীপ্ত উত্তরে এমবাপ্পে বলেন, এ ট্রফি জয় করা অবশ্যই আনন্দের। তবে এ নিয়ে আমি স্বপ্ন দেখি না। আমার মনে হয় না আগামী এক বা দুই মৌসুমে আমি তা শোকেসে ভরতে পারব। আমার কাছে সবসময় ও সবার আগে পিএসজি ও জাতীয় দল; এর পর পেশাদার কোনো অর্জন হলে সেটিকে পারফরম্যান্স বোনাস হিসেবে দেখে থাকি।

তথ্যসূত্র: ডেইলি মিরর

এমবাপ্পের রোল মডেল জিদান-রোনাল্ডো

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ মে ২০২০, ১০:৪৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নিজের ক্যারিয়ারে দুজনকে রোল মডেল হিসেবে অভিহিত করেছেন পিএসজির ফরাসি স্ট্রাইকার কিলিয়ান এমবাপ্পে। এর মধ্যে একজন তারই স্বদেশী কিংবদন্তি ও রিয়াল মাদ্রিদের বর্তমান কোচ জিনেদিন জিদান; অন্যজন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। 

জিদানের সঙ্গে মধুর সম্পর্ক রয়েছে এমবাপ্পের। তাদের সুসম্পর্কের কথা গণমাধ্যমে প্রায়ই প্রকাশিত হয়। যে কারণে পিএসজি থেকে রিয়ালে এমবাপ্পের যাওয়া নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে।

এমবাপ্পে বলেন, ফ্রান্সের হয়ে সব কিছু জিতেছেন জিদান। এ জন্য প্রথমে তাকে পছন্দ করি আমি। এর পর রোনাল্ডোকে সবচেয়ে ভালো লাগে আমার। ক্যারিয়ারে সবই লাভ করেছেন উনি। তবু সাফল্য-ক্ষুধা মেটেনি তার। আরও অর্জনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। তারা দুজনই ফুটবলের ইতিহাসের অংশ হয়ে গেছেন। আমিও তাদের মতো ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম দেখতে চাই।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে মৌসুম শেষ না হতেই ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান বাতিল ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে থাকায় শিরোপা জিতেছে পিএসজি। চ্যাম্পিয়নস লিগেও টিকে রয়েছে দলটি।

যে কোনো খ্যাতিমান ফুটবলারের আরাধ্য স্বপ্ন ব্যালন ডি’অর জেতা।  ভবিষ্যতে ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাকর ব্যক্তিগত পুরস্কারটি জিততে চান কিনা? জবাবে পাওয়া গেল পরিপক্বতার ছাপ। বুদ্ধিদ্বীপ্ত উত্তরে এমবাপ্পে বলেন, এ ট্রফি জয় করা অবশ্যই আনন্দের। তবে এ নিয়ে আমি স্বপ্ন দেখি না। আমার মনে হয় না আগামী এক বা দুই মৌসুমে আমি তা শোকেসে ভরতে পারব। আমার কাছে সবসময় ও সবার আগে পিএসজি ও জাতীয় দল; এর পর পেশাদার কোনো অর্জন হলে সেটিকে পারফরম্যান্স বোনাস হিসেবে দেখে থাকি।

তথ্যসূত্র: ডেইলি মিরর

 
আরও খবর