ইএসপিএন ক্রিকইনফোর স্বপ্নের একাদশে সাকিব
jugantor
ইএসপিএন ক্রিকইনফোর স্বপ্নের একাদশে সাকিব

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০১ জুন ২০২০, ১৬:০৮:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আপাতত সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দূরে আছেন সাকিব আল হাসান। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী অক্টোবরে খেলায় ফিরবেন তিনি। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় গেল বছরের ঠিক এই সময়ে তাকে দুই বছর নিষিদ্ধ করে আইসিসি। তবে দোষ স্বীকার করায় বাংলাদেশ সেরা ক্রিকেটারের সাজা এক বছর স্থগিত হয়। 

বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার সেই নিষেধাজ্ঞার ২১৬তম দিনে এসে সুসংবাদ পেলেন সাকিব। ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোর স্বপ্নের একাদশে জায়গা পেয়েছেন তিনি। 

সোমবার সোশ্যাল মিডিয়া টু্ইটারে এক পোস্টে স্বপ্নের একাদশ সাজিয়েছেন তারা। এটি সাম্প্রতিক সময়ের ওয়ানডে ড্রিম টিম।  অনুমিতভাবেই এ দলে রয়েছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তা সত্ত্বেও সাকিবদের দায়িত্ব তুলে দেয়া হয়েছে নিউজিল্যান্ড কাপ্তান কেন উইলিয়ামসনের কাঁধে।  

একাদশে বাংলাদেশ থেকে স্থান পেয়েছেন কেবল সাকিবই। মূলত ২০১৯ বিশ্বকাপে চোখধাঁধানো পারফরম করায় এ দলে ঠাঁই পেয়েছেন তিনি। ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে ব্যাট হাতে ৬০৬ রানের পাশাপাশি বোলিংয়ে ১১ উইকেট শিকার করেন অন্যতম বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এতে বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ড দলের রয়েছেন চার খেলোয়াড়।  ভারত থেকেও আছেন সমসংখ্যক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার পেয়েছেন একজন করে।

তবে পাকিস্তান, শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং সদ্য টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানিস্তানের কেউই জায়গা পাননি ইএসপিএনের এ টিমে। দলটির হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করবেন রোহিত শর্মা ও জেসন রয়। য়ানডাউনে নামবেন বিরাট। 

এর র ব্যাট করবেন দলনায়ক উইলিয়ামসন। পাঁচে খেলবেন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান জস বাটলার। য় ও সাতে রয়েছেন যথাক্রমে দুই বিশেষজ্ঞ অলরাউন্ডার। বিশ্বসেরা বেন স্টোকসের পরই নামবেন সাকিব। 

ইংলিশদের প্রথমবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন করার নায়ক বিগ বেন। তার সঙ্গে পেস বিভাগ সামলাবেন ক্রিস ওকস, মিচেল স্টার্ক ও জাসপ্রিত বুমরাহ। আর সাকিবের সঙ্গে স্পিন ডিপার্টমেন্টের দায়িত্ব পালন করবেন কুলদ্বীপ জাদব। 

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর ওয়ানডে ড্রিম টিম-

রোহিত শর্মা (ভারত), জেসন রয় (ইংল্যান্ড), বিরাট কোহলি (ভারত), কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক, নিউজিল্যান্ড), জস বাটলার (উইকেটরক্ষক, ইংল্যান্ড), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), ক্রিস ওকস (ইংল্যান্ড) , মিচেল স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া), কুলদ্বীপ জাদব (ভারত) ও জসপ্রিত বুমরাহ (ভারত)।

দ্বাদশ খেলোয়াড়-জোফরা আর্চার (ইংল্যান্ড)।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর স্বপ্নের একাদশে সাকিব

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০১ জুন ২০২০, ০৪:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আপাতত সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দূরে আছেন সাকিব আল হাসান। সব কিছু ঠিক থাকলে আগামী অক্টোবরে খেলায় ফিরবেন তিনি। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় গেল বছরের ঠিক এই সময়ে তাকে দুই বছর নিষিদ্ধ করে আইসিসি। তবে দোষ স্বীকার করায় বাংলাদেশ সেরা ক্রিকেটারের সাজা এক বছর স্থগিত হয়।

বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার সেই নিষেধাজ্ঞার ২১৬তম দিনে এসে সুসংবাদ পেলেন সাকিব। ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোর স্বপ্নের একাদশে জায়গা পেয়েছেন তিনি।

সোমবার সোশ্যাল মিডিয়া টু্ইটারে এক পোস্টে স্বপ্নের একাদশ সাজিয়েছেন তারা। এটি সাম্প্রতিক সময়ের ওয়ানডে ড্রিম টিম। অনুমিতভাবেই এ দলে রয়েছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তা সত্ত্বেও সাকিবদের দায়িত্ব তুলে দেয়া হয়েছে নিউজিল্যান্ড কাপ্তান কেন উইলিয়ামসনের কাঁধে।

একাদশে বাংলাদেশ থেকে স্থান পেয়েছেন কেবল সাকিবই। মূলত ২০১৯ বিশ্বকাপে চোখধাঁধানো পারফরম করায় এ দলে ঠাঁই পেয়েছেন তিনি। ক্রিকেটের বিশ্বমঞ্চে ব্যাট হাতে ৬০৬ রানের পাশাপাশি বোলিংয়ে ১১ উইকেট শিকার করেন অন্যতম বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এতে বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ড দলের রয়েছেন চার খেলোয়াড়। ভারত থেকেও আছেন সমসংখ্যক ক্রিকেটার। নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার পেয়েছেন একজন করে।

তবে পাকিস্তান, শ্রীলংকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং সদ্য টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানিস্তানের কেউই জায়গা পাননি ইএসপিএনের এ টিমে। দলটির হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করবেন রোহিত শর্মা ও জেসন রয়। য়ানডাউনে নামবেন বিরাট।

এর র ব্যাট করবেন দলনায়ক উইলিয়ামসন। পাঁচে খেলবেন উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান জস বাটলার। য় ও সাতে রয়েছেন যথাক্রমে দুই বিশেষজ্ঞ অলরাউন্ডার। বিশ্বসেরা বেন স্টোকসের পরই নামবেন সাকিব।

ইংলিশদের প্রথমবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন করার নায়ক বিগ বেন। তার সঙ্গে পেস বিভাগ সামলাবেন ক্রিস ওকস, মিচেল স্টার্ক ও জাসপ্রিত বুমরাহ। আর সাকিবের সঙ্গে স্পিন ডিপার্টমেন্টের দায়িত্ব পালন করবেন কুলদ্বীপ জাদব।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর ওয়ানডে ড্রিম টিম-

রোহিত শর্মা (ভারত), জেসন রয় (ইংল্যান্ড), বিরাট কোহলি (ভারত), কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক, নিউজিল্যান্ড), জস বাটলার (উইকেটরক্ষক, ইংল্যান্ড), বেন স্টোকস (ইংল্যান্ড), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), ক্রিস ওকস (ইংল্যান্ড) , মিচেল স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া), কুলদ্বীপ জাদব (ভারত) ও জসপ্রিত বুমরাহ (ভারত)।

দ্বাদশ খেলোয়াড়-জোফরা আর্চার (ইংল্যান্ড)।