করোনাকে আশীর্বাদ বলছেন জেমস অ্যান্ডারসন

  স্পোর্টস ডেস্ক ০২ জুন ২০২০, ২১:৪৭:৪৩ | অনলাইন সংস্করণ

জেমস অ্যান্ডারসন। ফাইল ছবি

করোনায় সারা বিশ্বই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর্থিক মন্দায় পড়েছে ক্রীড়া ফেডারেশনগুলো। গৃহবন্দি হয়ে পড়া ক্রিকেটাররা অপেক্ষার প্রহর গুনছেন মাঠে ফেরার। করোনায় শঙ্কিত থাকা খেলোয়াড়রা এই কঠিন সময়কে আপদ মনে করলেও টেস্ট ইতিহাসের সফলতম পেসার জেমস অ্যান্ডারসন আশীর্বাদ মানছেন।

শারীরিক ও মানসিকভাবে চাঙ্গা ইংলিশ পেস কিংবদন্তি বলছেন, এই বিশ্রাম আমার ক্যারিয়ারকে দীর্ঘায়িত করবে আরও। ৫৮৪ টেস্ট উইকেট শিকারি পেসার আরও অনেক দিন চালিয়ে যেতে চান তার অভিযান।

৩৮ বছর বয়সী ইংলিশ তারকা পেসার বলেন, আমার টেস্ট ক্যারিয়ারের শেষ দিকে বাড়তি আরও দু-এক বছর যোগ করবে এই বিরতি। অনুশীলনে ফিরতে পেরে খুবই ভালো লাগছে। যদিও নেটে খুব বেশি মানুষকে না পাওয়া একটু অদ্ভূত। তার পরও মাঠে ফিরতে পারা, ক্রিকেট খেলতে পারা দারুণ ব্যাপার।

এই মৌসুমে দর্শকশূন্য মাঠে আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজনের লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে ইংল্যান্ডের বোর্ড। অ্যান্ডারসনের সতীর্থ ফাস্ট বোলার জফরা আর্চার বলেছেন, মাঠে দর্শকের কৃত্রিম আওয়াজের ব্যবস্থা রাখতে। অন্যান্য খেলায় এটির ব্যবহার শুরু হয়েছে এরই মধ্যে।

অ্যান্ডারসনও মনে করেন, কৃত্রিম আওয়াজ হতে পারে ভালো বিকল্প। তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়ার রাগবি লিগ দেখছিলাম, আমি শুরুতে ভেবেছিলাম মাঠে বুঝি দর্শক চিৎকার করছে! কিন্তু পরে দেখলাম না সাউন্ড বক্সে আওয়াজ আসছে। আমার মনে হয়েছে, এটি কার্যকর। গ্যালারিতে কেউ না থাকলেও দর্শকের একটি আবহ সৃষ্টি করা খারাপ নয়।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত