ভারতকে হারানোই বড়, মাঞ্জরেকারকে তামিম

  স্পোর্টস ডেস্ক ০৩ জুন ২০২০, ১১:৪৭:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

এখন বাংলাদেশ-ভারত লড়াই মানেই তুমুল উন্মাদনা। এ উত্তেজনা কখনও ক্রিকেটের সীমানা ছাড়িয়ে যায়। মাঠ থেকে এ দ্বৈরথের ঝাঁজ আছড়ে পড়ে দুই দেশেই। পান থেকে একটু চুন খসলেই হলো। আলোচনার ঝড় ওঠে চায়ের দোকান থেকে অফিস-আদালত, অলিগলি সর্বত্রই।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার এবং বর্তমান জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জরেকারকে সে কথাই স্মরণ করিয়ে দিলেন তামিম ইকবাল। তিনি বললেন, ভারতের বিপক্ষে জয় মানেই অন্য কিছু।

অবশ্য তার এ ভাবনা পুরোপুরিই ক্রিকেটীয়। যেখানে আছে শীর্ষ দলকে হারানোর পরিতৃপ্তি।

সম্প্রতি ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোর লাইভ কাস্টে অতিথি ছিলেন তামিম। সঞ্চালকের ভূমিকায় ছিলেন মাঞ্জরেকার। তার এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন হালের টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক।

একসময় ভারত-পাকিস্তান মহারণ ছিল ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত। দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর লড়াইয়ের উত্তেজনার পারদ চড়ে যেত পাহাড়ে। অনেকের মতে, ধীরে ধীরে সেই স্থান দখল করছে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ।

অনুষ্ঠানে নিজের খেলোয়াড়ি দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করেন মাঞ্জরেকার। তিনি মনে করেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে কতটা চাপে থাকতেন তারা। প্রসঙ্গক্রমে তামিমের কাছে জানতে চান, কোন দলকে হারানোর তাড়না বেশি– ভারত না পাকিস্তান। জবাবে বাংলাদেশ ড্যাশিং ওপেনার বলেন, ভারতকে হারানোই সবচেয়ে বড়।

তামিম বলেন, ভারত খুবই শক্তিশালী দল। তারা অনেক বড় টিম। তাদের বিপক্ষে জয় মানেই অন্য কিছু। টিম ইন্ডিয়াকে পরাজিত করতে সর্বোচ্চটা উজাড় করে দিই আমরা। তবে এটি কোনো প্রতিহিংসা থেকে নয়। এমনকি ওদের হারাতেই হবে তাও নয়। বিষয়টা হলো– সেরা দলকে পরাভূত করার সন্তুষ্টি।

সেই সঙ্গে তিনি এও বলেন, পাকিস্তানকে হারানোও বিশাল ব্যাপার। আসলে ভারত-পাকিস্তান দুদলই বড়। উভয়ের রয়েছে দীর্ঘ ক্রিকেট ঐতিহ্য। দুদলের বিপক্ষে যে কোনো জয়ই পরিতৃপ্তির।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত