‘আমার অনেক ভারতীয় বন্ধু আছে’
jugantor
‘আমার অনেক ভারতীয় বন্ধু আছে’

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২১ জুন ২০২০, ২০:৫৪:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জা
শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জা। ফাইল ছবি

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক আদায় কাঁচকলায়। সীমান্ত সমস্যা নিয়ে প্রায়ই দু’দেশের মধ্যে রেষারেষি দেখা যায়। তবে ভারত-পাকিস্তানের রাজনীনৈতিক এই বৈরিতা কোনো সমস্যা হয়নি সানিয়া মীর্জা ও শোয়েব মালিকের দাম্পত্য জীবনে। 

সম্প্রতি পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও দলটির বর্তমান তারকা অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক বলেছেন, সানিয়াকে বিয়ে করার পর থেকে কোনো দিন দুই দেশের সম্পর্ক নিয়ে একেবারেই চিন্তিত ছিলাম না। বিয়ের ক্ষেত্রে সঙ্গী কোন্ দেশের, দুই দেশের সম্পর্ক কেমন বা রাজনীতির কথা মাথায় আসেনি। কাউকে ভালোবাসলে তাকে বিয়ে করাই আসল। এর বাইরে সে কোন্ দেশের তা একেবারেই গুরুত্বপূর্ণ নয়। 

পাকিস্তানের হয়ে ১৯৯৯ সালের অক্টোবর থেকে ৩৫টি টেস্ট, ২৮৭টি ওয়ানডে আর ১১৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ১২টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ১১ হাজার ৭৫৩ রান সংগ্রহের পাশাপাশি ২১৮ উইকেট শিকার করা শোয়েব আরও বলেন, আমি ক্রিকেটার, রাজনীতিবিদ নই যে, ভারতীয়দেয় সঙ্গে আমার কোনো ঝামেলা হবে। তাছাড়া আমার অনেক ভারতীয় বন্ধু রয়েছে। তাদের সঙ্গে মাঝে মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ হয়।

২০১০ সালের ১২ এপ্রিল ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মীর্জার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন শোয়েব মালিক। তাদের এক বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তানও আছে। করোনায় লকডাউনের সময় শোয়েব ছিলেন পাকিস্তানে। সানিয়া ছিলেন ভারতে। পাঁচ মাস স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গে দেখা হয়নি শোয়েবের। আগামী জুলাই মাসের ইংল্যান্ড সফরে যাবে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। সেই সফরে পরিবারকে সঙ্গে নেয়ার অনুমতি না থাকায় তার আগেই পরিবারের সঙ্গে মিলিত হওয়ার অনুমতি পেয়েছেন শোয়েব মালিক।

আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে ইংল্যান্ড সফরে যাবে পাকিস্তান। ২৪ জুলাই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন শোয়েব মালিক। সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও তিনটি টেস্ট খেলবে ক্রিকেট পাকিস্তান।

‘আমার অনেক ভারতীয় বন্ধু আছে’

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২১ জুন ২০২০, ০৮:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জা
শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জা। ফাইল ছবি

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক আদায় কাঁচকলায়। সীমান্ত সমস্যা নিয়ে প্রায়ই দু’দেশের মধ্যে রেষারেষি দেখা যায়। তবে ভারত-পাকিস্তানের রাজনীনৈতিক এই বৈরিতা কোনো সমস্যা হয়নি সানিয়া মীর্জা ও শোয়েব মালিকের দাম্পত্য জীবনে।

সম্প্রতি পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও দলটির বর্তমান তারকা অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক বলেছেন, সানিয়াকে বিয়ে করার পর থেকে কোনো দিন দুই দেশের সম্পর্ক নিয়ে একেবারেই চিন্তিত ছিলাম না। বিয়ের ক্ষেত্রে সঙ্গী কোন্ দেশের, দুই দেশের সম্পর্ক কেমন বা রাজনীতির কথা মাথায় আসেনি। কাউকে ভালোবাসলে তাকে বিয়ে করাই আসল। এর বাইরে সে কোন্ দেশের তা একেবারেই গুরুত্বপূর্ণ নয়।

পাকিস্তানের হয়ে ১৯৯৯ সালের অক্টোবর থেকে ৩৫টি টেস্ট, ২৮৭টি ওয়ানডে আর ১১৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে ১২টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ১১ হাজার ৭৫৩ রান সংগ্রহের পাশাপাশি ২১৮ উইকেট শিকার করা শোয়েব আরও বলেন, আমি ক্রিকেটার, রাজনীতিবিদ নই যে, ভারতীয়দেয় সঙ্গে আমার কোনো ঝামেলা হবে। তাছাড়া আমার অনেক ভারতীয় বন্ধু রয়েছে। তাদের সঙ্গে মাঝে মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যোগাযোগ হয়।

২০১০ সালের ১২ এপ্রিল ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মীর্জার সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন শোয়েব মালিক। তাদের এক বছর বয়সীএকটি পুত্র সন্তানও আছে। করোনায় লকডাউনের সময় শোয়েব ছিলেন পাকিস্তানে। সানিয়া ছিলেন ভারতে। পাঁচ মাস স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গে দেখা হয়নি শোয়েবের। আগামী জুলাই মাসের ইংল্যান্ড সফরে যাবে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। সেই সফরে পরিবারকে সঙ্গে নেয়ার অনুমতি না থাকায় তার আগেই পরিবারের সঙ্গে মিলিত হওয়ার অনুমতি পেয়েছেন শোয়েব মালিক।

আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে ইংল্যান্ড সফরে যাবে পাকিস্তান। ২৪ জুলাই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন শোয়েব মালিক। সফরে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও তিনটি টেস্ট খেলবে ক্রিকেট পাকিস্তান।