‘রশিদকে চিনতে মাত্র ২০ মিনিট লেগেছিল আমার’

  স্পোর্টস ডেস্ক ০৯ জুলাই ২০২০, ১৫:০১:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

ভারতের জনপ্রিয় ফ্রাঞ্চাইজি লিগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) সানরাইজার্স হায়দরাবাদের আইকন প্লেয়ার আফগান লেগস্পিনার রশিদ খান।

২০১৭ সালের আসর থেকে হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএল মাতিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

রশিদ খানকে কেন দলে ভেড়াল ক্লাবটি তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন হায়দরাবাদের সাবেক হেড কোচ টম মুডি।

নেট সেশনে রশিদ খানের মাত্র ২০ মিনিট বোলিং দেখেই নাকি মনে ধরে যায় টম মুডির। দলে এমনই একজন স্পিনারের দরকার বলে প্রয়োজন অনুভব করেন।


সম্প্রতি ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের সঙ্গে আলাপে এমন কথাই জানালেন হায়দরাবাদের সাবেক হেড কোচ।

স্মৃতিচারণ করে টম মুডি বলেন, ‘আমি দলে একজন লেগস্পিনার চাইছিলাম। আমি জানি ম্যাচের যে কোনো সময় চিত্রপট বদলে দিতে লেগস্পিনাররা। সেট ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ব্রেক থ্রু আনতে পারে স্পিনাররা। এমন ভাবনা থেকে হায়দরাবাদের অ্যানালিস্টের সঙ্গে কথা বলে একজন লেগস্পিনারের খোঁজে ছিলাম। সে লক্ষ্যে অনেক অনেক ভিডিও দেখার পর রশিদ খানের বোলিং দেখলাম। তার বোলিং দেখে মুগ্ধ হলাম। আরও পর্যবেক্ষণের উদ্দেশে অ্যানালিস্টকে রশিদের ভিডিও সরবরাহ করতে বললাম। মূলত আমি রশিদের বোলিং বোঝার চেষ্টা করছিলাম। এর পর সিদ্ধান্ত নিই ওকে দলে নেব।

অসি কোচ যোগ করেন, এর পরও চিন্তা ছিল যে, হুট করে রশিদকে আইপিএলের মতো এত বড় মঞ্চে সুযোগ দেয়া ঠিক হলো কিনা। আর সেই চিন্তা থেকেই রশিদকে দিয়ে নেট সেশনে ডেভিড ওয়ার্নারসহ বেশ কয়েকজন সিনিয়র খেলোয়াড়ের বিপক্ষে বোলিং করাই। মাত্র ২০ মিনিট দেখেই আমি চিনে ফেলেছিলাম, আমরা একটা খাঁটি রত্নই নিয়েছি। মাত্র ২০ মিনিটেই সব সংশয় দূর করে দিয়েছিল রশিদ।

তথ্যসূত্র: উইজডেন, ক্রিকবাজ

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত