ক্রিকেট ফেরার ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুর্দান্ত জয়

  স্পোর্টস ডেস্ক ১২ জুলাই ২০২০, ২৩:০২:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ থেকেই বন্ধ ছিল সব ধরনের ক্রিকেট। লম্বা সময় পর ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার টেস্ট সিরিজের মধ্য দিয়ে ফের শুরু হয় ২২ গজের খেলা।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে সাউদাম্পটনে ২০০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ২৭ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে যায় উইন্ডিজ। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে বাড়তি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেন জেরমাইন ব্ল্যাকউড। তার ব্যাটে ভর করেই জয়ের স্বপ্ন দেখে ক্যারিবীয়রা।

কিন্তু জয় থেকে ১১ রান দূরে থাকতেই ৯৫ রানে সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্ল্যাকউড। তবে অধিনায়ক জেসন হোল্ডার দলের ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন।

রোববার দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ২৭ রানেই প্রথম সারির ৩ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জোফরা আর্চারের গতির শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার ক্রেইগ ব্রাথওয়েট, শাসারাহ ব্রুকস ও শাই হোপ। অন্য ওপেনার জন ক্যাম্পবেল ফিরেছেন রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে। বিপর্যয় এড়াতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছেন রোস্টন চেজ ও ব্ল্যাকউড।

তবে রোস্টন চেজ ও জেরমাইন ব্ল্যাকউডের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে খেলায় ফিরে ক্যারিবীয়রা। চতুর্থ উইকেটে ব্ল্যাকউডের সঙ্গে ৭৩ রানের জুটি গড়তেই জোফরা আর্চারের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন রোস্টন চেজ। দলীয় ১০০ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরার আগে ৩৭ রান করার সুযোগ পান চেজ। শেন ডরিচকে নিয়ে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখান ব্ল্যাকউড।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ২০৪ রানে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে অলআউট করে জেসন হোল্ডারের নেতৃত্বাধীন ক্যারিবীয় দল। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩১৮ রান করে সফরকারী উইন্ডিজ। ১১৪ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩১৩ রানে অলআউট হয় বেন স্টোকসের নেতৃত্বাধীন ইংল্যান্ড।

ঘটনাপ্রবাহ : ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ - ২০২০

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত