ঈদুল আজহার পরই ক্যাম্প শুরু করতে চায় বিসিবি
jugantor
ঈদুল আজহার পরই ক্যাম্প শুরু করতে চায় বিসিবি

  স্পোর্টস ডেস্ক  

১৪ জুলাই ২০২০, ১৮:১২:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চের মাঝামাঝি সময় থেকেই স্থগিত দেশের সব ধরনের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম। আগামী আগস্ট মাস তথা ঈদুল আজহার পর থেকেই টাইগারদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরুর চিন্তা-ভাবনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।


জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু সোমবার বলেছেন, আগে আমাদের লক্ষ্য ছিল এই মাসে ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর। এ জন্য বিসিবি সব সুযোগ-সুবিধাগুলো প্রস্তুত করে রেখেছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি সম্ভব হয়নি। এখন আমরা আগস্ট তথা ঈদুল আজহার ছুটির পর থেকে ক্যাম্প শুরু করতে চাই। তার আগে সরকারের অনুমোদন লাগবে। 

প্রধান নির্বাচক আরও বলেছেন, সর্বমোট ৩৮ জন খেলোয়াড় তিন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে এই কন্ডিশনিং ক্যাম্পে অংশ নিবে। যেখানে বজায় রাখা হবে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যনীতি। 

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেছেন, আমরা ইতিমধ্যে ৩৮ জনের একটি দল বাছাই করেছি। টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি তিন ফর্মেটের ক্রিকেটের জন্যই এদের বাছাই করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে তাদের জন্য শুরু করা হবে হাই পারফর্মেন্স ক্যাম্প।

ঈদুল আজহার পর ফিটনেস ট্রেনিং দিয়েই শুরু হবে তামিম-মুমিনুলদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। এরপর ক্রিকেটাররা স্কিল সেশন শুরু করবে। 

ঈদুল আজহার পরই ক্যাম্প শুরু করতে চায় বিসিবি

 স্পোর্টস ডেস্ক 
১৪ জুলাই ২০২০, ০৬:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চের মাঝামাঝি সময় থেকেই স্থগিত দেশের সব ধরনের ক্রিকেটীয় কার্যক্রম। আগামী আগস্ট মাস তথা ঈদুল আজহার পর থেকেই টাইগারদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরুর চিন্তা-ভাবনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।


জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু সোমবার বলেছেন, আগে আমাদের লক্ষ্য ছিল এই মাসে ক্রিকেট মাঠে ফেরানোর। এ জন্য বিসিবি সব সুযোগ-সুবিধাগুলো প্রস্তুত করে রেখেছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি সম্ভব হয়নি। এখন আমরা আগস্ট তথা ঈদুল আজহার ছুটির পর থেকে ক্যাম্প শুরু করতে চাই। তার আগে সরকারের অনুমোদন লাগবে।

প্রধান নির্বাচক আরও বলেছেন, সর্বমোট ৩৮ জন খেলোয়াড় তিন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে এই কন্ডিশনিং ক্যাম্পে অংশ নিবে। যেখানে বজায় রাখা হবে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যনীতি।

জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক আরও বলেছেন, আমরা ইতিমধ্যে ৩৮ জনের একটি দল বাছাই করেছি। টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি তিন ফর্মেটের ক্রিকেটের জন্যই এদের বাছাই করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে তাদের জন্য শুরু করা হবে হাই পারফর্মেন্স ক্যাম্প।

ঈদুল আজহার পর ফিটনেস ট্রেনিং দিয়েই শুরু হবে তামিম-মুমিনুলদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। এরপর ক্রিকেটাররা স্কিল সেশন শুরু করবে।