লন্ডন থেকে ফিরে নিজের রোগ নিয়ে যা বললেন তামিম
jugantor
লন্ডন থেকে ফিরে নিজের রোগ নিয়ে যা বললেন তামিম

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ আগস্ট ২০২০, ১৫:১৭:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

লন্ডন থেকে ফিরে নিজের অসুস্থতা নিয়ে যা বললেন তামিম

করোনাকালে স্বাস্থ্য বিধি মেনে মুশফিক-রিয়াদরা অনুশীলনে ফিরলেও মাঠে দেখা যায়নি জাতীয় ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

পেটের পীড়ার কারণ জানতে গত ২৫ জুলাই লন্ডনে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে চিকিৎসা শেষে শনিবার সকালে দেশে ফিরেছেন এই দেশসেরা ড্যাশিং ওপেনার।

নিজের অসুস্থতা ও চিকিৎসা বিষয়ে তামিম জানালেন, লন্ডনে অনেকগুলো পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে তাকে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এসব পরীক্ষার রিপোর্ট আসবে। তখনই জানা যাবে, অন্ত্রে তার কি সমস্যা চলছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর বোঝা যাবে তার রোগ কতটা গুরুতর।

দেশে ফিরে দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান গণমাধ্যমকে বলেন, লন্ডনে আমার অনেকগুলো টেস্ট করিয়েছেন ডাক্তাররা। তারা অনেক সময় নিয়ে টেস্টগুলো করেছেন। আমাকে পর্যবেক্ষণ করেছেন। সবগুলো টেস্টের রিপোর্ট আসতে আরও ৭ থেকে ১০ দিন লাগবে। তাই ডাক্তার বললেন, লন্ডনে এই সময়টুকু অপেক্ষা না করে চাইলে দেশে ফিরতে পারি। রিপোর্ট দেখে অবস্থা বুঝে তারা অনলাইনেই পরামর্শ দেবেন। ওষুধ দেবেন। আর সার্জারির প্রয়োজন হলে আমাকে ফের লন্ডনে যেতে হবে। তাই চলে এসেছি। এখন শুধু ভালো রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া আর উপায় নেই।

তামিম বলেন, এখনও অনুশীলন শুরু করা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেইনি। রোগ কতটা গুরুতর সে বিষয়ে জানার পর চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েই মাঠে ফেরার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।

কয়েক দিন আগে গণমাধ্যমে তামিম জানিয়েছিলেন, হুট করেই প্রচণ্ড পেটের ব্যথায় ভোগেন তার। এ ব্যথা মাঝেমধ্যে এতটাই বাড়ে যে সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেন না। একপ্রকার শয্যাশায়ী করে ফেলে তাকে। বসে থাকলেও এ ব্যথা কমে না। দেশের কোনো চিকিৎসক এমন ব্যথার কোনো কারণ খুঁজে বের করতে পারেননি।

তাই উপায়ন্তর না পেয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ২৫ জুলাই লন্ডনে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক।

লন্ডন থেকে ফিরে নিজের রোগ নিয়ে যা বললেন তামিম

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ আগস্ট ২০২০, ০৩:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লন্ডন থেকে ফিরে নিজের অসুস্থতা নিয়ে যা বললেন তামিম
ফাইল ফটো

করোনাকালে স্বাস্থ্য বিধি মেনে মুশফিক-রিয়াদরা অনুশীলনে ফিরলেও মাঠে দেখা যায়নি জাতীয় ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

পেটের পীড়ার কারণ জানতে গত ২৫ জুলাই লন্ডনে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে চিকিৎসা শেষে শনিবার সকালে দেশে ফিরেছেন এই দেশসেরা ড্যাশিং ওপেনার। 

নিজের অসুস্থতা ও চিকিৎসা বিষয়ে তামিম জানালেন, লন্ডনে অনেকগুলো পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে তাকে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে এসব পরীক্ষার রিপোর্ট আসবে। তখনই জানা যাবে, অন্ত্রে তার কি সমস্যা চলছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর বোঝা যাবে তার রোগ কতটা গুরুতর।

দেশে ফিরে দেশের সফলতম ব্যাটসম্যান গণমাধ্যমকে বলেন, লন্ডনে আমার অনেকগুলো টেস্ট করিয়েছেন ডাক্তাররা। তারা অনেক সময় নিয়ে টেস্টগুলো করেছেন। আমাকে পর্যবেক্ষণ করেছেন। সবগুলো টেস্টের রিপোর্ট আসতে আরও ৭ থেকে ১০ দিন লাগবে। তাই ডাক্তার বললেন, লন্ডনে এই সময়টুকু অপেক্ষা না করে চাইলে দেশে ফিরতে পারি। রিপোর্ট দেখে অবস্থা বুঝে তারা অনলাইনেই পরামর্শ দেবেন। ওষুধ দেবেন। আর সার্জারির প্রয়োজন হলে আমাকে ফের লন্ডনে যেতে হবে। তাই চলে এসেছি। এখন শুধু ভালো রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া আর উপায় নেই।

তামিম বলেন, এখনও অনুশীলন শুরু করা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেইনি। রোগ কতটা গুরুতর সে বিষয়ে জানার পর চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েই মাঠে ফেরার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।

কয়েক দিন আগে গণমাধ্যমে তামিম জানিয়েছিলেন, হুট করেই প্রচণ্ড পেটের ব্যথায় ভোগেন তার। এ ব্যথা মাঝেমধ্যে এতটাই বাড়ে যে সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেন না। একপ্রকার শয্যাশায়ী করে ফেলে তাকে। বসে থাকলেও এ ব্যথা কমে না। দেশের কোনো চিকিৎসক এমন ব্যথার কোনো কারণ খুঁজে বের করতে পারেননি।

তাই উপায়ন্তর না পেয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ২৫ জুলাই লন্ডনে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক।